ঢাকা, বুধবার, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ১২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

ধুনটে যমুনায় ধরা পড়েছে ৩ মণ ওজনের শুশুক

উপজেলা করসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১১৬ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০১৬
ধুনটে যমুনায় ধরা পড়েছে ৩ মণ ওজনের শুশুক ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বগুড়ার ধুনট উপজেলার যমুনা নদীর কুতুবপুর ঘাট এলাকায় জেলেদের জালে ধরা পড়েছে তিন মণ ওজনের একটি শুশুক (ফ্রেস ওয়াটার ডলফিন)।

ধুনট (বগুড়া): বগুড়ার ধুনট উপজেলার যমুনা নদীর কুতুবপুর ঘাট এলাকায় জেলেদের জালে ধরা পড়েছে তিন মণ ওজনের একটি শুশুক (ফ্রেস ওয়াটার ডলফিন)।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) দুপুর ১টায় ধুনট পৌর বাজারের মাছের আড়ৎদার রবিন হাওলাদার বাংলানিউজকে এ তথ্য জানান।

রবিন হাওলাদার বাংলানিউজকে জানান, শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) দিনগত রাতে যমুনা নদীতে মাছ শিকারে যান সারিয়াকান্দি উপজেলার দেবডাঙ্গা গ্রামের আবদুর রহিম। বিভিন্ন জাতের মাছের সঙ্গে শনিবার সকালে তার জালে ওই শুশুকটি ধরা পড়ে। শুশুকটি দেখে প্রথমে ভয় পেলেও কৌশলে জাল টেনে সেটি নৌকায় তোলেন তিনি ও তার সহযোগীরা।

রবিন আরও জানান, শনিবার সকালে ভ্যানে করে শুশুকটি ধুনট পৌর বাজারে বিক্রির জন্য আনা হয়। পরে গোসাইবাড়ি গ্রামের ছোবাহান চৌধুরী নামে এক কবিরাজ শুশুকটি তিন হাজার টাকায় কিনে নেন।

শুশুক ক্রেতা ছোবাহান চৌধুরী বাংলানিউজকে বলেন, শুশুকের তেলে ঔষধি গুণ রয়েছে। তাই তেল তৈরির জন্য এই শুশুকটি তিন হাজার টাকায় কিনে নিয়েছি। শুশুকের তেল গরু, মহিষ কিংবা মানুষের শরীরে আঘাত জনিত ব্যথানাশকে ব্যবহার করা হয়।

বন্যপ্রাণী ও প্রকৃতি সংরক্ষণে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন স্বাধীন জীবন-এর নির্বাহী পরিচালক আব্দুর রাজ্জাক নাছিম বাংলানিউজকে বলেন, জলবায়ুর বিরূপ প্রভাবে জলাশয়গুলো শুকিয়ে যাচ্ছে। তাই শুশুকসহ (ফ্রেস ওয়াটার ডলফিন) অনেক জলজপ্রাণী বিলুপ্তির পথে। এই শুশুক শিকার করা আইনত দণ্ডণীয় অপরাধ।
ধুনট উপজেলার ভারপ্রাপ্ত মৎস্য কর্মকর্তা তৌহিদুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, শুশুক ধরা বা শিকার করা সরকারিভাবে নিষিদ্ধ। এ বিষয়টি দেখার দায়িত্ব পরিবেশ অধিদপ্তরের।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০১৬
এনটি/এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa