ঢাকা, সোমবার, ১৬ মাঘ ১৪২৯, ৩০ জানুয়ারি ২০২৩, ০৭ রজব ১৪৪৪

বিনোদন

সিনেমার পর্দায় ফুটবল

বিনোদন ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬২৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২০, ২০২২
সিনেমার পর্দায় ফুটবল

বিশ্ব এখন ফুটবলে মেতে উঠেছে। রোববার (২০ নভেম্বর) থেকে কাতারে শুরু হচ্ছে ‘ফিফা বিশ্বকাপ ফুটবল-২০২২’।

যেটিকে অবহিত করা হয় ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ হিসেবে। ফুটবলের এই আয়োজন নিয়ে আনন্দে মেতে আছে মানুষ।

এই আনন্দ বাড়িয়ে তুলতে দেখে ফেলতে পারেন ফুটবল নিয়ে নির্মিত কয়েকটি সিনেমা।

দ্য গোলিস অ্যাংজাইটি অ্যাট দ্য পেনাল্টি কিক: এক গোলকিপারের গল্প নিয়ে এই সিনেমা। যিনি ফাউল করার অপরাধে খেলার মাঠ থেকে বহিষ্কৃত হয়। সেই রাত তার কাটে এক সিনেমা ক্যাশিয়ারের সঙ্গে, যাকে সেই গোলকিপার পরে খুন করে।

এস্কেপ টু ভিক্টরি: দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় একটি জার্মান কারাগারে কিছু যুদ্ধবন্দী ছিল যারা একটি জার্মান দলের বিরুদ্ধে ফুটবলের প্রদর্শনী ম্যাচ খেলে। সেই খেলা নিয়ে তৈরি হয়েছে এই সিনেমা।

হোয়েন স্যাটারডে কামস: জিমি পেশাদার ফুটবলার হতে চায়। কিন্তু একজন মদ্যপ ছোটখাটো চাকুরি করা জিমির ফুটবলার হয়ে ওঠার স্বপ্ন পূরণের পথ এত সহজ নয়। অ্যানি নামের এক মেয়ের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে ওঠে জিমির। এরপর সুযোগ মেলে ছোটখাটো এক আয়োজনে খেলার। হঠাৎ করেই যেন স্বপ্ন-পূরণের পথ খুলে যায়। সুযোগ পেয়ে যায় বড় লিগে খেলার। কিন্তু মদের নেশা ছাড়তে হবে প্রথমে তার। মদ ছাড়ার কঠিন পরীক্ষা শুরু হয় তার। এমন গল্পে এগিয়ে যায় সিনেমাটি।

শাওলিন সকার: ফুটবল, কমেডি এবং অ্যাকশনে ভরা সিনেমা শাওলিন সকার। শাওলিন কুংফুর এক ভক্ত তার ছোটবেলার পাঁচ বন্ধুকে নিয়ে গড়ে তোলে এক দল। এই দলের উদ্দেশ্য মার্শাল আর্টের দক্ষতাকে ফুটবলে কাজে লাগানো।  

মিন মেশিন: ইংল্যান্ড ফুটবল দলের সাবেক অধিনায়ক ড্যানি মিহানকে পুলিশের সঙ্গে ঝামেলা করার অপরাধে কারাগারে পাঠানো হয়। কারাগারে অন্য বন্দীদের সঙ্গে মিলে এক খেলার আয়োজন করে ড্যানি। খেলা হয় কারাগারের কর্মকর্তা-কর্মচারী বনাম বন্দীদের মাঝে।

বেন্ড ইট লাইক বেকহাম: এক মেয়ে সকল নিয়ম ভেঙে, বাধা পেড়িয়ে এগুতে থাকে পেশাদার ফুটবলার হওয়ার স্বপ্নে। কিন্তু তার রক্ষণশীল অভিভাবক বাধা হয়ে দাঁড়ায়। মেয়েটিকে বলা হয় জুতা ঝুলিয়ে রেখে ভালো ছেলে দেখে বিয়ে করতে এবং রান্না শিখতে। এরপর নানা ঘটনায় এগিয়ে যায় সিনেমাটি।

ফিভার পিচ: বেন বেশিরভাগ সময় কাটায় ফুটবল খেলা দেখে। এদিকে তার প্রেমিকা লিন্ডসে মনে করে, বেন তাকে অবহেলা করছে। এই নিয়েই এগুতে থাকে এই সিনেমার কাহিনী।

দিয়েগো ম্যারাডোনা: ২০১৯ সালে ম্যারাডোনার অদেখা ফুটেজ নিয়ে তৈরি হয়েছিল ডকুমেন্টারি দিয়েগো ম্যারাডোনা। ১৩০ মিনিটের এই ডকুমেন্টারিতে উঠে এসেছে ম্যারাডোনার বস্তির ছেলে থেকে ফুটবলের কিংবদন্তি হওয়ার গল্প।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২০, ২০২২
এনএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa