ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ আশ্বিন ১৪৩০, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

কেসিসি নির্বাচন: খুলনায় পৌঁছেছে ইভিএম

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩০ ঘণ্টা, জুন ৬, ২০২৩
কেসিসি নির্বাচন: খুলনায় পৌঁছেছে ইভিএম

খুলনা: খুলনা জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির জুন মাসের সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (৬জুন) বিকেলে জেলা প্রশাসক খন্দকার ইয়াসির আরেফীনের সভাপতিত্বে তার সম্মেলনকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় খুলনা সিটি কর্পোরেশন (কেসিসি) নির্বাচন-২০২৩ এর রিটার্নিং অফিসার মো. আলাউদ্দীন জানান, এই নির্বাচন ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন বা ইভিএমে অনুষ্ঠিত এ হবে। এজন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক ইভিএম ইতোমধ্যে খুলনায় পৌঁছেছে। বর্তমানে সব কেন্দ্রে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের কাজ চলছে। এখন পর্যন্ত প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী কর্তৃক নির্বচানী আচরণবিধি ভঙ্গের উল্লেখযোগ্য কোনো ঘটনা ঘটেনি। প্রার্থীদের প্রচারণা কার্যক্রম আগামী ১০ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত চলবে।

সভায় জেলা সিভিল সার্জন ডা. সুজাত আহমেদ সভায় জানান, দেশের বিভিন্ন স্থানে ডেঙ্গু জ্বরের প্রকোপ লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এটি মশাবাহিত রোগ হওয়ায় ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে মশার বিস্তার নিয়ন্ত্রণ ও প্রজনন ক্ষেত্রগুলো ধ্বংস করতে হবে। তামাক ও তামাকজাত দ্রব্য মানুষের স্বাস্থ্যের জন্য হুমকী স্বরূপ। তামাকের ক্ষতির ব্যবহার বন্ধে জনসচেতনতা বৃদ্ধি করা প্রয়োজন।

সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপস) সুশান্ত সরকার জানান, অপরাধমূলক ঘটনা প্রতিকারের চেয়ে প্রতিরোধে জোর দেয়া প্রয়োজন। আসন্ন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জেলা পুলিশ সিটি কর্পোরেশন এলাকায় প্রবেশের পথগুলোয় তল্লাশি কার্যক্রম চলমান রেখেছে এবং সিটি কর্পোরেশন সংলগ্ন এলাকায় গোয়েন্দা নজরদারি বৃদ্ধি করেছে।

সভাপতির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণে বাজারসমূহে নজরদারি বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। বিদেশ থেকে আমদানির সিদ্ধান্ত হওয়ায় দেশের বাজারে পেঁয়াজের দাম কমবে বলে আশা করা যায়। আসন্ন ঈদ-উল-আযহাকে কেন্দ্র করে যত্রতত্র পশুর হাট বসানো নিয়ন্ত্রণ ও জালটাকা বিস্তারের চেষ্টা বন্ধ করতে আগে থেকেই প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে।

অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মীর আলিফ রেজা সভায় বিগত মাসে খুলনা জেলা ও মহানগরীর আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি তুলে ধরেন। খুলনা জেলা অধিক্ষেত্রে বিগত মে মাসে ১৭৫টি মামলা দায়ের হয়েছে যা বিগত এপ্রিল মাসে দায়ের হওয়া মামলার চেয়ে আটটি কম। খুলনা মহানগরী অধিক্ষেত্রে মে মাসে ১৪৮টি মামলা দায়ের হয়েছে যা বিগত এপ্রিল মাসে দায়ের হওয়া মামলার চেয়ে ২০টি বেশি।

সভায় জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের স্থানীয় সরকার দপ্তরের উপপরিচালক মোঃ ইউসুপ আলী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) পুলক কুমার মন্ডল, অতিরিক্ত উপপুলিশ কমিশনার শেখ ইমরান, বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দপ্তরের কর্মকর্তাসহ কমিটির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এসময় বিভিন্ন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা সভায় অনলাইনে যুক্ত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩০ ঘণ্টা, জুন ৬, ২০২৩
এমআরএম/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa