ঢাকা, শুক্রবার, ৫ বৈশাখ ১৪৩১, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫

নির্বাচন ও ইসি

ভোটের সময় এনআইডি সংশোধন স্থগিত নয় 

ইকরাম-উদ দৌলা, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২৩
ভোটের সময় এনআইডি সংশোধন স্থগিত নয় 

ঢাকা: নির্বাচনের সময় এলেই মাঠপর্যায়ে জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি) সংশোধন তো দূরের কথা সব সেবাই স্থগিত রাখা হয়। এতে ভোগান্তির কোনো সীমা থাকে না।

তবে এখন থেকে সংশোধন নিয়ে আর সংকট থাকছে না।

জানা গেছে, সম্প্রতি অনুষ্ঠিত এক সমন্বয় সভায় বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হলে সংশোধন কার্যক্রম নির্বাচনকালীনও চালু রাখার সিদ্ধান্ত হয়। এক্ষেত্রে সব আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তাকে বিষয়টি দায়িত্বশীলতার সঙ্গে পালনের নির্দেশনাও দেওয়া হয়।

নির্বাচন কমিশনের সচিব মো. জাহাংগীর আলম স্বাক্ষরিত ওই বৈঠকে কার্যবিবরণীতেও বিষয়টি ওঠে এসেছে।  

গত জানুয়ারির শেষ দিকে অনুষ্ঠিত ওই বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনার সূত্রপাত করেন সিলেটে আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা।  

তিনি বলেন, নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পরে এনআইডি কার্ড সংশোধনের কার্যক্রম নির্বাচনী এলাকায় কেন্দ্রীয়ভাবে স্থগিত রাখা প্রয়োজন। অন্যথায়, নির্বাচনী কার্যক্রমের জন্য দেওয়া ভোটার তালিকা ও সংশোধিত আইডিকার্ডে তথ্যের গরমিল হওয়ায় মাঠপর্যায়ে নানাবিধ সমস্যার সৃষ্টি হয়।  

তার এই বক্তব্যের পর এনআইডি মহাপরিচালক একেএম হুমায়ুন কবীর বৈঠকে বলেন, নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পরে আইডিকার্ড সংশোধনে কোনো সমস্যা নেই। কারণ তফসিল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে নির্বাচনী এলাকার ভোটার তালিকার সিডি পাঠানো হয়। সে সময়ে নির্বাচনী এলাকার আইডিকার্ড সংশোধনের কার্যক্রমসমূহ আলাদাভাবে সংরক্ষণ করা হয়।  

এই পর্যায়ে তিনি যথাসময়ে দায়িত্বশীলতার সহিত আইডিকার্ড সংশোধন সংক্রান্ত কার্যক্রম সম্পাদনের জন্য সব আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বানও জানান।

তার বক্তব্যে প্রতি সমর্থন জানিয়ে আইন শাখার যুগ্মসচিবও বলেন, নির্বাচনকালীন নির্বাচনী এলাকায় আইডিকার্ড সংশোধনের কার্যক্রম বন্ধ বা স্থগিত রাখা সমীচীন হবে না।  

এই আলোচনা পর সিদ্ধান্ত হয় এনআইডি কার্ড সংশোধন ইত্যাদির সংক্রান্ত মাসভিত্তিক প্রতিবেদন মাসিক সমন্বয় সভায় উপস্থাপন করতে হবে।

ইসি সচিব মো. জাহাংগীর আলম এনআইডি মহাপরিচালক ও সব আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তাকে ওই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের নির্দেশনা দেন।

বিষয়টি নিয়ে খোদ ইসি কর্মকর্তারা ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন। কেননা, নির্বাচনের সময় নাগরিক সেবা বন্ধ থাকে না। আর কারো এনআইডিতে কোনো সমস্যা থাকলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির অন্যান্য সেবা পেতে বাধাগ্রস্ত হতে হয়। এই সিদ্ধান্তের ফলে সাধারণ নাগরিকদের ভোটের সময় এনআইডি সংশোধন সংক্রান্ত সমস্যার সমাধান হবে।  

বর্তমানে ইসির তথ্য ভাণ্ডার ১১ কোটির বেশি ভোটারের তথ্য রয়েছে। এদের মধ্যে অনেকেই এনআইডিতে কোনো না কোনো তথ্যগত সমস্যা রয়েছে।  

বাংলাদেশ সময়: ২০৪৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০২৩
ইইউডি/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।