ঢাকা, বুধবার, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিক্ষা

সহিংসতা প্রতিরোধে জনপ্রতিনিধিদের উদ্যোগ দেখা যায়নি 

ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০০৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ২২, ২০২১
সহিংসতা প্রতিরোধে জনপ্রতিনিধিদের উদ্যোগ দেখা যায়নি 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়: সম্প্রতি দেশের সনাতন ধর্মালম্বীদের পূজা উৎসবকে কেন্দ্র করে সংঘটিত ঘটনা প্রতিরোধে জনপ্রতিনিধিদের কোনো ধরনের উদ্যোগ দেখা যায়নি বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. একেএম গোলাম রব্বানী।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে বিশ্বধর্ম ও সংস্কৃতি বিভাগ এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তধর্মীয় ও আন্তসাংস্কৃতিক সংলাপ কেন্দ্র আয়োজিত ‘হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা ও পবিত্র কোরআন অবমাননার বিরুদ্ধে প্রতিবাদে মৌন মিছিল’ কর্মসূচিতে তিনি এ মন্তব্য করেন।

বিশ্বধর্ম ও সংস্কৃতি বিভাগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মো. আবু দেলোয়ার হোসেন, বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান ফাদার তপন ডি রোজারিও ও খণ্ডকালীন শিক্ষক নিরঞ্জন অধিকারী।

ঢাবি প্রক্টর বলেন, দেশের যেসব জায়গায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। কোনো জায়গাতেই এসব প্রতিরোধে জনপ্রতিনিধিদের কোনো উদ্যোগ দেখা যায়নি৷ এসব ঘটনার দায় তাদেরও নিতে হবে। নাহলে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র বিপন্ন হবে।

শিক্ষক সমিতির পক্ষ থেকে ঘটনাস্থল পরিদর্শনের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, সবার বক্তব্য শুনে আমাদের কাছে মনে হয়েছে, এটি আকস্মিক বা বিচ্ছিন্ন কোনো ঘটনা নয়। এটি ছিল একটি সংগঠিত অপচেষ্টা৷ এই আক্রমণে হাজার হাজার তরুণ অংশ নিয়েছেন। এই তরুণ প্রজন্মকে কে প্রশিক্ষিত করল তাদের এই মানসিক অবস্থা কী প্রাতিষ্ঠানিকভাবে, সাংগঠনিকভাবে নাকি ব্যক্তিপর্যায়ে তৈরি হচ্ছে—এই বিষয়টিকে আমাদের এখন সব দিক থেকে বিবেচনা করতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১০০৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২২, ২০২১ 
এসকেবি/এসআইএস 
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa