ঢাকা, শুক্রবার, ৬ বৈশাখ ১৪৩১, ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ০৯ শাওয়াল ১৪৪৫

শিক্ষা

ঢাবির হল খুলে দেওয়ার দাবি ছাত্র অধিকার পরিষদের 

ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৫৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৩, ২০২০
ঢাবির হল খুলে দেওয়ার দাবি ছাত্র অধিকার পরিষদের 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়: পরীক্ষা নেওয়ার আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) আবাসিক হল খুলে দেওয়ার দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে ছাত্র অধিকার পরিষদ।
 
বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এই কর্মসূচি শুরু করে তারা।

এতে বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি বিন ইয়ামিন মোল্লা, কেন্দ্রীয় যুগ্ম আহ্বায়ক তারিকুল ইসলাম তারেক, ঢাবি শাখার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাকিল মিয়া প্রমুখ অংশ নেন।
 
বিন ইয়ামিন মোল্লা বলেন, হল না খুলে পরীক্ষা নেওয়া মানে শিক্ষার্থীদের ঝুঁকির মধ্যে ফেলে দেওয়া। বিশেষ করে ছাত্রীদের রীতিমতো বিপর্যয়। শিক্ষার্থীরা নানাভাবে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করলেও প্রশাসনের নীরব ভূমিকা শিক্ষার্থীদের মধ্যে উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা, অনিশ্চয়তা আর ক্ষোভ সৃষ্টি করছে। আমরা ছাত্র অধিকার পরিষদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা এই অবস্থান কর্মসূচি থেকে প্রশাসনকে আহ্বান করছি, জেনে-বুঝে শিক্ষার্থীদের ঝুঁকির মধ্যে না ফেলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আবাসিক হল খুলে দিন। না খোলা পর্যন্ত আমরা অবস্থান কর্মসূচি চালিয়ে যাবো।
 
এসময় চারটি দাবি জানানো হয়। দাবিগুলো হলো- অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পরীক্ষার্থীদের জন্য পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে হল খুলে দিতে হবে। এক্ষেত্রে মেডিক্যাল সেন্টারে করোনা ইউনিট স্থাপন ও পর্যাপ্ত অক্সিজেনের ব্যবস্থা করতে হবে। বহিরাগত প্রবেশ সীমিত করতে হবে। হলে প্রবেশ ও বের হওয়ার ক্ষেত্রে পর্যাপ্ত চেকিং ও স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করতে হবে। প্রতি ফ্যাকাল্টিতে হাত ধোয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। এবং অসুস্থ শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা নেওয়ার ব্যাপারে ভিন্ন নীতিমালা প্রণয়ন করতে হবে।

এছাড়া পরীক্ষার আগে শিক্ষার্থীদের পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নেওয়ার সুযোগ দিতে প্রয়োজনে মেকাপ ক্লাসের ব্যবস্থা, শিক্ষার্থীদের শিগগিরই ডিভাইস দেওয়ার ব্যবস্থা ও  শিক্ষার্থীদের নেট প্যাকেজ কেনার ন্যূনতম খরচ দেওয়ার দাবি জানান তারা।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৭৫১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৩, ২০২০
এসকেবি/এএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।