ঢাকা, বুধবার, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২২ মে ২০২৪, ১৩ জিলকদ ১৪৪৫

শিক্ষা

বগুড়ার শিবগঞ্জে হলো ‘খাতা উৎসব’

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৪, ২০২০
বগুড়ার শিবগঞ্জে হলো ‘খাতা উৎসব’ শিক্ষার্থীদের হাতে খাতা তুলে দিচ্ছেন পৌর মেয়র তৌহিদুর রহমান মানিক। ছবি: বাংলানিউজ

বগুড়া: বছরের প্রথমদিন শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিয়ে দেশব্যাপী বই উৎসব হচ্ছে প্রতি বছরই। এবার সেই আদলে বগুড়ার শিবগঞ্জে ‘খাতা উৎসব’ শুরু করলেন পৌর মেয়র তৌহিদুর রহমান মানিক।

তিনি পৌর এলাকায় সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের হাতে খাতা তুলে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছেন। প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে বছরের শুরুতেই দু’টি করে খাতা উপহার দিয়ে তাদের লেখাপড়ায় উৎসাহিত করার জন্য এ কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

শনিবার (০৪ জানুয়ারি) সকালে শিবগঞ্জ উপজেলা সদরের পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও বানাইল মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দেড় হাজার শিক্ষার্থীকে প্রথমদিনের মতো খাতা দেওয়া হয়।

এ লক্ষ্যে খাতা বিতরণ উসবের আয়োজন করা হয় পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে। পৌর মেয়র তৌহিদুর রহমান মানিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উৎসবে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আলমগীর কবির।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তা, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রিজ্জাকুল ইসলাম রাজু, শিবগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক তাজুল ইসলাম প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে পৌর মেয়র বলেন, প্রধানমন্ত্রী দেশব্যাপী শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দিয়ে তাদের স্কুলমুখী করার এক যুগান্তকারী প্রদক্ষেপ নিয়েছেন। অনেক পরিবার রয়েছে যাদের ছেলেমেয়ে বই পেলেও খাতা কেনার জন্য সমস্যায় পড়ে। বিষয়টি বিবেচনা করে পৌর এলাকায় সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের দু’টি করে খাতা দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। পর্যাক্রমে পৌর এলাকার ১২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রায় সাড়ে ১২ হাজার শিক্ষার্থীকে দু’টি করে খাতা দেওয়া হবে। এর মধ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের বাংলা ও ইংরেজি খাতা এবং উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের দু’টি করে অংক খাতা দেওয়া হবে।

প্রধান অতিথি ইউএনও আলমগীর কবির বলেন, সমাজের বিত্তবান, হিতৈষী ও শিক্ষানুরাগী মানুষ যদি এমন উদ্যোগ দেখে উৎসাহিত হন তাহলে কোথাও শিশু শিক্ষার্থীদের সংকটে পড়তে হবে না। শিবগঞ্জ পৌর মেয়রের এ উদ্যোগ অন্য এলাকার জনপ্রতিনিধিদের উৎসাহিত করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

এ সময় উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান রিজ্জাকুল ইসলাম রাজু এক হাজার দুইশ’ শিক্ষার্থীকে একটি করে কলম দেওয়ার ঘোষণা দেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ০৪, ২০২০
কেইউএ/এফএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।