ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ কার্তিক ১৪২৮, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

শিক্ষা

এ আর হাওলাদার মেমোরিয়াল প্রাইজ পেলেন ড. শহীদ উদ্দিন

ইউনিভার্সিটি করেসপনন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪২ ঘণ্টা, এপ্রিল ৩, ২০১২
এ আর হাওলাদার মেমোরিয়াল প্রাইজ পেলেন ড. শহীদ উদ্দিন

ঢাকা: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ‍ড. শহীদ উদ্দিন আহমেদ তাঁর ‘এন্ট্রাপ্রেনারশিপ: আ বিহ্যাভিয়ারাল অ্যানালাইসিস’ শীর্ষক গ্রন্থ ও গবেষণাকর্মের জন্য ‘এ আর হাওলাদার মেমোরিয়াল প্রাইজ ২০০৫’ লাভ করেছেন।

মঙ্গলবার বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে অধ্যাপক শহীদ উদ্দিন আহমেদের হাতে পুরস্কারের চেক ও সনদপত্র তুলে দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক।

অনুষ্ঠানে উপাচার্য প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন।
 
উপাচার্য ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক ‘এ আর হাওলাদার মেমোরিয়াল প্রাইজ লাভ করায় অধ্যাপক ড. শহীদ উদ্দিন আহমেদকে অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, তাঁর এ পুরস্কার শিক্ষকদের গবেষণায় উদ্বুদ্ধ করবে।

তিনি বলেন, ‘বর্তমান বিশ্বায়নের যুগে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ করতে বৈষম্যহীন বিশ্ব বাণিজ্য গড়ে তোলা জরুরি। সুস্থ বাণিজ্যিক ব্যবস্থাপনা ছাড়া মানবতাবাদ জাগ্রত করা সম্ভব নয়। ’

অধ্যাপক শহীদ উদ্দিন আহমেদ রচিত গ্রন্থ সুস্থ বাণিজ্যিক ব্যবস্থাপনা গড়ে তুলতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-উপাচার্য এবং এ আর হাওলাদার মেমোরিয়ালের ট্রাস্ট ফান্ডের ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হারুন-অর-রশিদের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান ও বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দিন আহমেদ বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ব্যবসায় গবেষণা ব্যুরোর চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. সরোজ কুমার সাহা। শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন ট্রাস্ট ফান্ডের দাতা প্রতিনিধি এবং এ আর হাওলাদারের জামাতা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ সেলিম। মানপত্র (সাইটেশন) পাঠ করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার সৈয়দ রেজাউর রহমান। ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ব্যবসায় গবেষণা ব্যুরোর পরিচালক অধ্যাপক ড. মাহমুদ ওসমান ইমাম।
 
উল্লেখ্য, প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষায় শিক্ষিত না হয়েও মরহুম এ আর হাওলাদার বাংলাদেশের শিল্পায়ন ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে গেছেন। তিনি মাদারীপুর এ আর হাওলাদার জুট মিলসের প্রতিষ্ঠাতা। তাঁর পাঁচ সন্তানের তিনজনই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। তাঁর ৫ ছেলেমেয়ে পিতার নামে ১৯৮৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘এ আর হাওলাদার মেমোরিয়াল ট্রাস্ট ফান্ড’ প্রতিষ্ঠা করেন।

এই ট্রাস্ট ফান্ডের আয় থেকে প্রতি বছর শিল্প ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত গবেষণা কর্মের জন্য একজন গবেষককে ১০ হাজার টাকা মূল্যমানের এ আর হাওলাদার মেমোরিয়াল প্রাইজ দেওয়া হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩১ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৩, ২০১২

এমএইচ
সম্পাদনা: রানা রায়হান, অ্যাসিসট্যান্ট আউটপুট এডিটর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa