ঢাকা, মঙ্গলবার, ১০ বৈশাখ ১৪৩১, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১৩ শাওয়াল ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

মেলায় কর আদায় ২৪৬৮ কোটি টাকা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১২০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২০, ২০১৮
মেলায় কর আদায় ২৪৬৮ কোটি টাকা কর মেলার আয়োজনে অতিথিরা

ঢাকা: করদাতাদের ব্যাপক আগ্রহের মধ্য দিয়ে সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলা শেষ হয়েছে। এবারের মেলায় করদাতা ও সেবা গ্রহণকারীদের ব্যাপক সাড়া পাওয়া গেছে বলে দাবি করেছেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া।

মেলা শেষে তিনি জানান, এবারের মেলায় কর আদায় হয়েছে ২ হাজার ৪৬৮ কোটি ৯৪ লাখ ৪০ হাজার ৮৯৫ টাকা।

সোমবার (১৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর বেইলী রোডের অফিসার্স ক্লাবের মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি।

এসময় এনবিআরের সদস্য (কর প্রশাসন ও মানবসম্পদ ব্যবস্থাপনা) জিয়া উদ্দিন মাহমুদসহ এনবিআরের সদস্য ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

তিনি জানান, এবার ঢাকাসহ সারাদেশের ১৬৬টি স্পটে ‘আয়কর মেলা-২০১৮’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মেলায় সেবা নিয়েছেন ১৬ লাখ ৩৬ হাজার ২৬৬ জন। গত বছর এ সংখ্যা ছিলো ১১ লাখ ৬৯ হাজার ৫৬৯ জন।

এবারের মেলায় রিটার্ন দাখিল করেছেন ৪ লাখ ৮৭ হাজার ৫৭৩ জন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠান। গত বছর রিটার্ন দাখিল করেছিলেন ৩ লাখ ৩৫ হাজার ৪৮৭ জন। গত বছর রিটার্ন দাখিল করেছিলেন ৩ লাখ ৩৫ হাজার ৪৮৭ জন। তাতে পৌনে ৫ লাখ রিটার্ন দাখিলকারীর কাছ থেকে মেলায় ২ হাজার ৪৬৮ কোটি টাকার কর আদায় হয়েছে। যা গত বছরের তুলনায় ১১ দশমিক ৩৫ শতাংশ বেশি।

মেলায় সমাপনী বক্তব্যে এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, সারাদেশের করদাতাদের মধ্যে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা গেছে। ফলে এবারের মেলায় রাজস্ব আদায়ের পরিমাণ আগের সব রেকর্ড ছাড়িয়েছে।

তিনি বলেন, আয়কর সপ্তাহ উপলক্ষে কর অঞ্চল ও সার্কেল অফিসেও করদাতারা একই পরিবেশে রিটার্ন দাখিল করবেন। আর রিটার্ন জমা নেওয়ার ক্ষেত্রে কোনো কর্মকর্তা-কর্মচারী যদি আয়কর মেলার মতো সেবা দিতে গাফিলতি করেন তাহলে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।  

তিনি আরও বলেন, আয়কর সপ্তাহ একটি সৃজনশীল উদ্যোগ। এবারও সেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে আগের প্রবণতা বজায় থাকবে। আগামী ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত রিটার্ন দাখিল করা যাবে।

৭০ শিক্ষার্থীকে পুরস্কার দিলো এনবিআর: নতুন প্রজন্মের করদাতাদের আয়কর সম্পর্কে সচেতন করতে সপ্তাহব্যাপী মেলার বাড়তি আকর্ষণ ছিলো শিক্ষার্থীদের ‘কর শিক্ষণ ফোরাম’।

এতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়সহ ৭টি প্রতিষ্ঠানের ২৮০ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন। তাদের মধ্য থেকে ৭০ জন বিজয়ীকে পুরস্কার হিসেবে বই ও সনদ দেওয়া হয়। তার মধ্যে ২১ জনকে এনবিআরে পক্ষ থেকে প্রাইজবন্ড দেওয়া হয়। বাকি প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে- নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা মেডিকেল কলেজ, নটরডেম কলেজ,  ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ।

মেলায় ৮ হাজার বেশি নতুন ই-টিআইএন: নবমবারের মতো আয়োজিত এ মেলায় নতুন করে ই-টিআইএন খুলেছেন ৩৯ হাজার ৭৪৩ জন ব্যক্তি। যা গতবছরের তুলনায় ৩৬ শতাংশ বেশি। ফলে ৯টি মেলায় ই-টিআইএনধারী বেড়ে হয়েছে ২ লাখ ৬৬ হাজার ৪৫৪ জন।

অনলাইনে আয়কর পরিশোধ: মেলায় জনপ্রিয়তা পেয়েছে এনবিআরের ই-পেমেন্ট ওয়েবসাইটে (www.nbrepayment.gov.bd)। অর্থাৎ অনলাইনে আয়কর পরিশোধের সিস্টেমটি। এই সিস্টেমে এবারের মেলায় ৩ হাজার ৭৭০ জন করদাতা কর জমা দিয়েছেন।

এছাড়াও ই-পেমেন্টের মাধ্যমে ১ হাজার ১৬০ জন করদাতা ১ কোটি ৪৮ লাখ ৬৮৫ টাকা কর পরিশোধ করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১৮/আপডেট: ২১৪৭ ঘণ্টা
এমএফআই/জেডএস

বাংলাদেশ সময়: ২০১৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৯, ২০১৮
এমএফআই/জেডএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।