ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২১ মে ২০২৪, ১২ জিলকদ ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

খুলনায় সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলা শুরু

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৩, ২০১৮
খুলনায় সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলা শুরু বেলুন উড়িয়ে আয়কর মেলার উদ্বোধন করলেন মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, ছবি: বাংলানিউজ

খুলনা: ‘নির্বিঘ্নে ও নিশ্চিন্তে আয়কর রিটার্ন দিন করমেলাতে’ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে খুলনায় সপ্তাহব্যাপী আয়কর মেলা শুরু হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৩ নভেম্বর) বেলা ১১টায় খুলনার বয়রাস্থ কর ভবন প্রাঙ্গণে মেলার উদ্বোধন করেন সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক। বিভাগীয় পর্যায়ে এ মেলা ১৯ নভেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল নয়টা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত চলবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, বঙ্গবন্ধু যে স্বনির্ভর বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখেছিলেন তা অর্জনের পথে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বের কারণে তা সম্ভব হচ্ছে। আজ আমরা নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতুসহ দেশের অনেক বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন করছি। একসময় ঋণ নেওয়ার জন্য আমরা যাদের পেছনে ঘুরতাম এখন তারাই ঋণ দেওয়ার জন্য আমাদের পেছনে ঘোরে। আত্মনির্ভরশীল জাতিতে পরিণত হতে হলে, উন্নয়নের এ ধারাকে অব্যাহত রাখতে হলে আমাদের প্রত্যেককে নাগরিক দায়িত্ব পালনে এগিয়ে আসতে হবে। সময়মত এবং সঠিকভাবে কর দিতে হবে। আয়কর মেলার ফলে মানুষের মধ্যে কর নিয়ে এক ধরনের ইতিবাচক উপলব্ধি তৈরি হবে। করভীতি থেকে বেরিয়ে এসে মানুষ কর দেওয়ায় উদ্বুদ্ধ হবে বলে আমি বিশ্বাস করি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথিরা বলেন, রাজস্ব আয়ে আয়করের অবদান দিন দিন বাড়ছে। ২০১৩ সালে টিআইএনধারীর (কর শনাক্তকরণ সংখ্যা) সংখ্যা ছিলো মাত্র ১২ লাখ, গত পাঁচ বছরে তা বেড়ে ৩৭ লাখে দাঁড়িয়েছে। এসময়ে আয়করের পরিমাণ ১২ হাজার কোটি থেকে বেড়ে ৬৬ হাজার কোটিতে উন্নীত হয়েছে। কর মেলার মাধ্যমে জনসচেতনতা বাড়াতে পারলে সামনের দিনগুলোতে আয়কর আহরণের পরিমাণ আরও বাড়বে। এজন্য কর দেওয়ার প্রক্রিয়াকে আরও সহজ করার কাজ অব্যাহত আছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন- জাতীয় রাজম্ব বোর্ডের সদস্য কালিপদ হালদার, কর আপিল অঞ্চল খুলনার কর কমিশনার প্রশান্ত কুমার রায়, পুলিশ কমিশনার মো. হুমায়ুন কবির, মোংলা কাস্টমস হাউজের কমিশনার সুরেশ চন্দ্র বিশ্বাস, খুলনা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সিনিয়র সহ-সভাপতি শরীফ মো. আতিয়ার রহমান এবং খুলনা কর আইনজীবী সমিতির সভাপতি হারুন অর রসিদ হেলাল।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কর অঞ্চল-খুলনার কর কমিশনার মো. জাহাঙ্গীর আলম। স্বাগত জানান অতিরিক্ত কর কমিশনারখালেদ শারিফ আরেফিন।

মেলায় ৪৭টি স্টলের মাধ্যমে কর সংক্রান্ত সেবা দেওয়া হচ্ছে। মেলায় সব শ্রেণির করদাতারা ইটিআইএন রেজিস্ট্রেশন বুথে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে নতুন করদাতারা ইটিআইএন রেজিস্ট্রেশন এবং বর্তমান করদাতারা রি-রেজিস্ট্রেশন করতে পারছেন। পাশাপাশি এ মেলায় করদাতারা তাদের আয়কর রিটার্ন দাখিল এবং মেলা প্রাঙ্গণে স্থাপিত সোনালী, বেসিক ও জনতা ব্যাংকের বুথের মাধ্যমে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের আয়কর জমা দিতে পারছেন। মেলায় নারী, প্রতিবন্ধী ও প্রবীণ করদাতাদের জন্য পৃথক বুথ রয়েছে। করদাতাদের রিটার্ন পূরণে সহায়তা করার জন্য মেলায় ‘হেল্প ডেস্ক’ এর ব্যবস্থা আছে। এবছর আয়কর রিটার্ন দাখিলের শেষ তারিখ ৩০ নভেম্বর।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৩, ২০১৮
এমআরএম/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।