ঢাকা, শুক্রবার, ৬ আশ্বিন ১৪৩০, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৫

অর্থনীতি-ব্যবসা

পেঁয়াজের দাম পাইকারিতে কমলেও খুচরায় প্রভাব নেই

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১০৮ ঘণ্টা, জুন ৬, ২০২৩
পেঁয়াজের দাম পাইকারিতে কমলেও খুচরায় প্রভাব নেই

ঢাকা: লাফিয়ে-লাফিয়ে পেঁয়াজের দাম বাড়ার পর এবার পাইকারি বাজারে কমতে শুরু করেছে; তবে, সেভাবে প্রভাব পড়েনি খুচরা বাজারে। যদিও পাইকারী ব্যবসায়ীরা বলছেন শিগগিরই খুচরা বাজারেও কমবে পেঁয়াজের দাম।

মঙ্গলবার (৬ জুন) রাজধানীর কারওয়ান বাজার এলাকায় ঘুরে এমন তথ্য জানা গেছে।

এর আগে, দাম বাড়ার প্রেক্ষিতে দীর্ঘ আড়াই মাস পর সোমবার (৫ জুন) থেকে পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি দেয় কৃষি মন্ত্রণালয়। এদিন থেকে দেশের বিভিন্ন স্থলবন্দর থেকে ভারতীয় পেঁয়াজ আসা শুরু হয়েছে।

মূলত, সরকার ভারতীয় পেঁয়াজ আমদানির ঘোষণা দেওয়ার এক দিনের মধ্যে কমতে শুরু করেছে নিত্যপ্রয়োজনীয় এই পণ্যটির দাম।   আমদানি ঘোষণা দেওয়ার এক দিনের ব্যবধানে কারওয়ান বাজারে পেঁয়াজের দাম কেজি প্রতি কমেছে ৩০ থেকে ৩৫ টাকা পর্যন্ত।

কারওয়ান বাজারের পাইকারী ব্যবসায়ী সাইফুল আলম বাংলানিউজকে বলেন, আমদানির ঘোষণায় আমাদের লোকসান হবে। গুদামজাত পেঁয়াজ আমরা কিনেছি বেশি দামে, এখন কম দাম বিক্রি করতে হচ্ছে। গত পরশুও ৯০ টাকা কেজি দরে দেশি পেঁয়াজ বিক্রি করেছি, আজ বিক্রি করেছি ৬০ টাকা দরে।

তবে খুচরা বাজারে এখনো পেঁয়াজের দাম কমার প্রভাব পড়েনি। ব্যবসায়ীরা বলছেন, শিগগিরই খুচরা বাজারেও কমবে। পাড়া মহল্লার মুদি দোকানে আজও পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৯০-৯৫ টাকা কেজি দরে। খুচরো বিক্রেতারা জানিয়েছেন তারা আগের দামে পেঁয়াজ কিনেছেন।

নিকেতন বাজার গেট এলাকার খুচরা ব্যবসায়ী হাশেম মোল্লা বাংলানিউজকে বলেন, আমরা আগের দামেই কিনেছি, তাই কম দামে বিক্রি করতে পারছি না। নতুন করে কিনলে দাম কমবে।

প্রাপ্ত তথ্যমতে, সোমবার থেকে দুই দিনে ৪ লাখ ৩৩ হাজার টন পেঁয়াজ আমদানির অনুমতি দিয়েছে কৃষি মন্ত্রণালয়। এর মধ্যে মঙ্গলবার (৬ জুন) পর্যন্ত ১ হাজার ২৮৮ টন আমদানিকৃত পেঁয়াজ দেশে এসেছে।

বাংলাদেশ সময়: ২১০৮ ঘণ্টা, জুন ৬, ২০২৩
এমকে/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa