ঢাকা, শুক্রবার, ২০ মাঘ ১৪২৯, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১১ রজব ১৪৪৪

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

পশ্চিমবঙ্গে শীতল আমেজ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯২৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৬, ২০২২
পশ্চিমবঙ্গে শীতল আমেজ

কলকাতা: আজ পয়লা অগ্রহায়ণ। বাঙালির ঘরে ঘরে চলছে নবান্ন উৎসবের আয়োজন।

এরইমধ্যে বাংলাজুড়ে নামছে তাপমাত্রা। কলকাতাসহ পার্শ্ববর্তী জেলাগুলোতেও শীতের আমেজ। আগামী কয়েক দিন এ রকম আবহাওয়া থাকবে।  

বুধবার (১৬ নভেম্বর) কলকাতার আবহাওয়া দফতর সূত্রে জানা গেছে, শহর ও শহর সংলগ্ন দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলোতে বৃষ্টির সম্ভবনা নেই। মেঘমুক্ত আকাশ, কোথাও কোথাও সকালে হালকা কুয়াশা এবং শিশির পড়বে বলে জানানো হয়েছে। তবে দার্জিলিং ও কালিম্পঙ-এ আগামী ৪৮ ঘণ্টায় হালকা বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সিকিমেও বৃষ্টি হবে বলে জানানো হয়েছে। উঁচু এলাকায় তুষারপাতের সামান্য সম্ভাবনা রয়েছে সিকিম এবং সংলগ্ন এলাকায়।  

একইভাবে রাজ্যের দক্ষিণবঙ্গজুড়ে থাকবে শীতল আমেজ। বলা যায়, জাঁকিয়ে শীত শুধু সময়ের অপেক্ষা। তবে ঠিক কবে থেকে জাঁকিয়ে ঠাণ্ডা পড়বে সে ব্যাপারে এদিন স্পষ্ট করে কিছু জানাতে পারেনি কলকাতার আবহাওয়া দফতর।  

জানানো হয়েছে, কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নেমে গেছে ১৭ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। যা স্বাভাবিকের থেকে ৩ ডিগ্রি কম।

আবহাওয়া দফতর সূত্রে আরও জানা গেছে, পশ্চিমবঙ্গের শিল্পনগরী আসানসোল জেলার সর্বনিম্ম তাপমাত্রা ১১ দশমিক ৪ ডিগ্রি। একইভাবে বাঁকুড়া জেলায় ১৪ দশমিক ৪, বর্ধমান ও কোচবিহার জেলায় ১৪ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। পাশপাশি ঠাণ্ডায় কাঁপছে শৈল শহর দার্জিলিং। সেখানে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা নেমে ৮ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কালিম্পঙের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২ দশমিক ২ ডিগ্রি।

রাজ্যে উত্তরের হাওয়ার প্রবেশ হতেই শীতের আমেজ টের পাচ্ছেন বঙ্গবাসী। তারইমধ্যে কৃষকের ঘরে নতুন ফসল আর বাঙালির ঐতিহ্যবাহী নবান্ন উৎসব ঘিরে বাংলার বাড়ি বাড়ি চলছে পিঠা, পায়েসসহ নানা আয়োজন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯২০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৬, ২০২২
ভিএস/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa