ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০২ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

নারকেল গাছের রস থেকে চিনি হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৪৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০, ২০১৬
নারকেল গাছের রস থেকে চিনি হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গে ছবি: সংগৃহীত

পশ্চিমবঙ্গের বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় নারকেল গাছের রস থেকে চিনি তৈরির প্রক্রিয়া শুরু করেছে। তবে সেই চিনি তৈরি হবে একটু ভিন্নভাবে।

কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গের বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় নারকেল গাছের রস থেকে চিনি তৈরির প্রক্রিয়া শুরু করেছে। তবে সেই চিনি তৈরি হবে একটু ভিন্নভাবে।

কোনো রাসায়নিক নয়, পুরোপুরি প্রাকৃতিক উপায়ে তৈরি চিনি খেতে পারবেন মধুমেহ রোগীরা।

 

বিজ্ঞানীদের তরফে বলা হয়েছে এই চিনি মধুমেহ রোগীদের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে। নারকেল গাছের মোচির (ফুল) রস থেকে এ চিনি তৈরি করা হচ্ছে। সাধারণ চিনিতে থাকে প্রচুর পরিমাণে গ্লাইসেমিক। গ্লাইসেমিক মধুমেহ রোগীদের ক্ষেত্রে শারীরিক সমস্যার মূল কারণ। কিন্তু নারকেল গাছের রসে তৈরি চিনিতে এ গ্লাইসেমিক থাকবে না।

এর ফলে মধুমেহ রোগীরা এ চিনি থেকে তৈরি মিষ্টি খেতে পারবেন। ভারতের দক্ষিণ অংশে এ চিনি জনপ্রিয়। কোকোস্যাপ চিলার বক্স নামে একটি যন্ত্র ব্যবহার করে নারকেল গাছে মোচি (ফুল) থেকে রস সংগ্রহ করা হয়। তারপর সেই রস থেকে তৈরি হয় চিনি।

নতুন ধরনের এই চিনির নামকরণ করা হয়েছে ‘নীরা’। জানা গেছে আমেরিকা এবং ইউরোপের বাজারে এই চিনির চাহিদা প্রচুর। আগামী দিনে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের সাহায্য পেলে বাণিজ্যিকভাবে এই চিনি তৈরির প্রকল্প নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

মনে করা হচ্ছে মিষ্টি না খেতে পারার হতাশা থেকে কিছুটা হলেও মুক্তি পাবেন মধুমেহ রোগীরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২০, ২০১৬
এসএস/আরআইএস/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa