ঢাকা, বুধবার, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯, ১০ আগস্ট ২০২২, ১১ মহররম ১৪৪৪

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

বিশ্বজোড়া ঠাণ্ডা লড়াইয়ের প্রভাব ভারতের পররাষ্ট্র নীতিতে!

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৪৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৪
বিশ্বজোড়া ঠাণ্ডা লড়াইয়ের প্রভাব ভারতের পররাষ্ট্র নীতিতে! সীতারাম ইয়েচুরি

কলকাতা: প্রথম বিশ্বযুদ্ধের ‘হ্যাং ওভার’ পরবর্তী ১শ’ বছরেও কাটেনি বলে সোমবার (২৯ ডিসেম্বর) কলকাতায় এক সভায় মন্তব্য করলেন সিপিএম পলিটব্যুরো সদস্য সীতারাম ইয়েচুরি।

কলকাতার ‘মৌলালি যুবকেন্দ্রে’ অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য অশোকনাথ বসু।



সীতারাম ইয়েচুরি বলেন, বিশ্ব পুঁজিবাদের অনবদ্য একটি আবিষ্কার হলো ‘ক্রেডিট কার্ড’। একটি প্লাস্টিকের কার্ড ভাঙিয়ে ঋণ করে চলো। ‌ তারপর এই করতে করতে একদিন ব্যাংক দেউলিয়া হয়ে যাবে। লোপাট হবে গরিব মানুষের সঞ্চিত অর্থ।

তিনি বলেন, পুঁজিবাদের লক্ষ্য হলো ‘ক্যাপিটাল টু ক্যাপিটালিস্ট’ অর্থাৎ পুঁজিপতিদের হাতে পুঁজি তুলে দাও। এ প্রসঙ্গে তিনি বিজেপিকেও কটাক্ষ করতে ছাড়েন নি।

পুঁজিবাদের বিরুদ্ধে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদি তাই ১৫ হাজার কোটি রুপি খরচ করে ভোটের মিডিয়ায় প্রচার করতে পারেন, এটা পুঁজিবাদের প্রকাশ্য লক্ষণ।

সীতারাম ইয়েচুরি বলেন, পরমাণু বোমা আবিষ্কার হওয়ার পর আর বিশ্বযুদ্ধের সম্ভাবনা না থাকলেও বাজার দখল, এলাকা দখলের ঠাণ্ডা লড়াই গোটা পৃথিবীজুড়ে চলছে।

তিনি মনে করিয়ে দেন এসব ঠাণ্ডা যুদ্ধই প্রথম বিশ্বযুদ্ধের ‘হ্যাং ওভার’। তিনি বিজেপি সরকারের স্বচ্ছ ভারত অভিযানেরও সমালোচনা করেন। বলেন, এই অভিযানের বিজ্ঞাপনে যে অর্থ খরচ করা হচ্ছে তাতে প্রচুর প্রাথমিক স্কুল, স্বাস্থ্যকেন্দ্র গড়া যেত।

সীতারাম ইয়েচুরি বলেন, প্রথম বিশ্বযুদ্ধ পুঁজির অসম বণ্টনের আরও নিত্যনতুন পথ খুঁজে দিয়েছিল। ‌ ভারতবাসীর স্বার্থ দেখেই ভারতের পররাষ্ট্রনীতি হওয়া উচিত। ‌ কিন্তু সেটা হচ্ছে না। পুঁজিবাদী প্রভাবে ভারতও ঠাণ্ডা লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১১৪৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa