ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ আশ্বিন ১৪২৯, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

দিল্লি, কলকাতা, আগরতলা

সাংবাদিকদের সঙ্গে জকি আহাদের সৌজন্য সাক্ষাৎ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২, ২০১৪
সাংবাদিকদের সঙ্গে জকি আহাদের সৌজন্য সাক্ষাৎ ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

কলকাতা: কলকাতায় নিযুক্ত উপ হাইকমিশনার জকি আহাদ সাংবাদিকদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন।  

মঙ্গলবার (০২ নভেম্বর) উপ হাইকমিশন চত্বরে এ সাক্ষাৎ পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।



শুরুতেই সদ্য প্রয়াত বাংলাদেশের চিত্রশিল্পী কাইয়ুম চৌধুরীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

নবনিযুক্ত উপ হাইকমিশনার জকি আহাদ জানান, কলকাতার বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের সাংবাদিকদের সঙ্গে পরিচিত হতেই এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছে।

কলকাতায় নিজের শহর ঢাকার অনুভূতি খুঁজে পান জানিয়ে তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র থাকাকালীন কলকাতায় এসেছিলাম।   ১৯৯৮ সালেও সস্ত্রীক কলকাতা হয়ে নেপালে বেড়াতে গিয়েছিলাম।

বেকার হোস্টেল প্রসঙ্গে জকি আহাদ বলেন, বেকার হোস্টেলে বাংলাদেশের ‍জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন। ওই সময় আমার বাবাও বেকার হোস্টেলে বসবাস করেছেন। তাই কলকাতা বিশ্বের অন্যান্য জায়গার তুলনায় আমাকে বিশেষভাবে টানে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বাংলাদেশ-ভারতের সম্পর্ক শুধু দেওয়া নেওয়ার মধ্যে নয়। দুই দেশের সরকারই চায় একটি অসাম্প্রদায়িক পরিবেশ গড়ে তুলতে। এজন্য সাংস্কৃতিক যোগাযোগ বাড়ানো প্রয়োজন। এক্ষেত্রে কমিশনও সচেষ্ট রয়েছে।

দুই দেশের স্যাটেলাইট চ্যানেল আদান-প্রদানের বিষয়টি নিয়েও আলোচনা হবে বলে জানান নব নিযুক্ত উপ হাইকমিশনার।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ-ভারতে যোগাযোগের ক্ষেত্রে ইউরোপের মতো ভিসা মুক্ত ব্যবস্থার ইচ্ছা রয়েছে।

আরেক প্রশ্নের জবাবে জকি আহাদ বলেন, কলকাতা উপ হাই কমিশন দুই দেশের সম্পর্কের ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এজন্য পশ্চিমবঙ্গের জেলায় জেলায় নাটক এবং চলচ্চিত্র উৎসব আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে।

অনুষ্ঠানে উপ-হাইকমিশনের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২২ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০২ , ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa