ঢাকা, শুক্রবার, ৬ কার্তিক ১৪২৮, ২২ অক্টোবর ২০২১, ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ক্রিকেট

বিফলে হোল্ডারের লড়াই, প্লে অফ শেষ হায়দরাবাদের

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০০২১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১
বিফলে হোল্ডারের লড়াই, প্লে অফ শেষ হায়দরাবাদের বৃথা গেছে ব্যাট হাতে হোল্ডারের লড়াই/সংগৃহীত ছবি

শেষ পর্যন্ত আশায় ছিল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। কারণ ক্রিজে ছিলেন বিগ হিটার জেসন হোল্ডার।

বিশাল বিশাল ৫টি ছক্কা হাঁকিয়ে আশাও জাগিয়েছিলেন তিনিই। কিন্তু এই ক্যারীবিয় অলরাউন্ডারও পারলেন না ডুবতে থাকা দলকে টেনে তুলতে। বরং শেষের ওই রোমাঞ্চের পর জয় ছিনিয়ে নেয় পাঞ্জাব কিংস।  

শনিবার শারজাহতে লো স্কোরিং ম্যাচে শুরুতে ব্যাট করতে নেমে ৭ উইকেটে ১২৫ রানের মামুলি সংগ্রহ পায় পাঞ্জাব। জবাবে সমান উইকেট হারিয়েও নির্ধারিত ২০ ওভারে ১২০ তুলতে সক্ষম হয় হায়দরাবাদ। ফলে ৫ রানে জিতে যায় পাঞ্জাব। এই হারে প্লে-অফে খেলার আশা শেষ হয়ে যায় ৯ ম্যাচে মাত্র ১ জয়ে ২ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় সবার নিচে থাকা হায়দরাবাদের। আর পাঁচে থাকা পাঞ্জাবের আশা এখনই টিকে রইলো।

আইপিএলে অভিষিক্ত ন্যাথান এলিসের করা ইনিংসের শেষ ওভারে জয় তুলে নিতে ১৭ রান দরকার ছিল হায়দরাবাদের। দারুণ ব্যাটিংয়ে প্রথম ৫ বলে ১০ রান তুলে ফেলেন জেসন হোল্ডার। শেষ বলে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৭ রান। কিন্তু ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার নিতে পারেন ২ রান। ফলে লড়াইটা শেষ বল পর্যন্ত নিতে পারলেও হার মানতে হয় উইলিয়ামসন বাহিনীকে। শেষ পর্যন্ত ২৯ বলে ৪৭ রানে অপরাজিত থাকেন হোল্ডার। তার ইনিংসে কোনো চার নেই, ৫টিই ছক্কা।

সানরাইজার্সের ইনিংসে বলার মতো রান কেবল হোল্ডার এবং ঋদ্ধিমান সাহাই পেয়েছেন। তবে হোল্ডারের মতো ঝড়ো গতিতে নয়, হায়দরাবাদের উইকেটরক্ষক ৩১ রানের ইনিংস খেলেছেন ৩৭ বলে, বাউন্ডারি মাত্র ১টি। এছাড়া মনিশ পান্ডে এবং কেদার যাদব দুই অঙ্কের দেখা পেলেও তাদের স্ট্রাইক রেট টি-টোয়েন্টিসুলভ নয়। দুই মূল ব্যাটসম্যান ডেভিড ওয়ার্নার ও অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন বিদায় নিয়েছেন যথাক্রমে ২ ও ১ রানে।

বল হাতে পাঞ্জাবের পেসার মোহাম্মদ শামি ৪ ওভারে মাত্র ১৪ রান খরচে নিয়েছেন ২ উইকেট। সমান ওভারে ২৪ রান খরচে ৩ উইকেট নিয়েছেন রবি বিষ্ণু। ১ উইকেট গেছে আর্শদীপ সিংয়ের ঝুলিতে। তিনিও ৪ ওভারে মাত্র ২২ রান খরচ করেছেন।  

এর আগে রশিদ ও হোল্ডারের বোলিং তোপে রান তুলতে হিমশিম খেয়েছেন পাঞ্জাবের ব্যাটাররাও। ২৬ রানে প্রথম উইকেট হারানো দলটি নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়েছে। দলটির সর্বোচ্চ ২৭ রান এসেছে প্রোটিয়া ব্যাটার এইডেন মার্করামের ব্যাট থেকে। আর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২১ রান করেছেন ওপেনার লোকেশ রাহুল। তবে পাঞ্জাবের অধিনায়ক বলও খেলেছেন ঠিক ২১টি। এছাড়া ক্রিস গেইল ১৪, দীপক হুডা ১৩, ন্যাথান এলিস ১২ এবং হরপ্রীত ব্রার অপরাজিত ১৮ রান করেছেন।

বল হাতে ৪ ওভারে মাত্র ১৯ রান খরচে ৩ উইকেট নিয়েছেন হোল্ডার। এছাড়া ১টি করে উইকেট গেছে সন্দ্বীপ শর্মা, ভুবনেশ্বর কুমার, রশিদ খান ও আব্দুল সামাদের দখলে। এর মধ্যে রশিদ খান ৪ ওভারে খরচ করেছেন মাত্র ১৭ রান।

দল হারলেও ব্যাটিং ও বোলিংয়ে দুর্দান্ত পারফর্ম করা হোল্ডার জিতেছেন ম্যাচসেরার পুরষ্কার।

বাংলাদেশ সময়: ০০১১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১
এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa