ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ মাঘ ১৪২৮, ২০ জানুয়ারি ২০২২, ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

আদালত

কুষ্টিয়ায় কৃষক মিরাজুল হত্যা মামলায় ২ জনের যাবজ্জীবন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৪৭ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩০, ২০১৯
কুষ্টিয়ায় কৃষক মিরাজুল হত্যা মামলায় ২ জনের যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়া: কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার কৃষক মিরাজুল হত্যা মামলায় দু’জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাদের ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া অভিযুক্ত অন্য তিন আসামিকে এ মামলা থেকে খালাস দেওয়া হয়।

বুধবার (৩০ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামী এ রায় দেন। এসময় আদালতে অভিযুক্তদের মধ্যে চার আসামি উপস্থিত ছিলেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- একই উপজেলার পুটিমাড়ী এলাকার কোরবান আলীর ছেলে কামাল হোসেন (৪০) ও একই এলাকার মুন্তাজ আলীর ছেলে কামরুল ইসলাম (৩৭)। এদের মধ্যে কামাল পলাতক রয়েছেন।

খালাসপ্রাপ্তরা হলেন- একই এলাকার মৃত শামসুদ্দিনের ছেলে কোরবান আলী ও তার স্ত্রী আকলিমা খাতুন এবং দণ্ডপ্রাপ্ত কামালের স্ত্রী রূপালী খাতুন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ৪ জুলাই রাত সাড়ে ১০টার দিকে আসামি কামালের স্ত্রী রূপালী খাতুনের সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ এনে আসামি কামরুল কৃষক মিরাজুল ইসলাম ওরফে আলমগীরকে বাড়ি থেকে ডেকে আনেন। সেসময় আসামিরা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে মিরাজুলকে পিটিয়ে এবং কুপিয়ে গুরুতর জখম করে পালিয়ে যান। খবর পেয়ে পরিবারের লোকজন ঘটনাস্থল থেকে মিরাজুলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া পথে তার মৃত্যু হয়।  

এ ঘটনায় পরের দিন ৫ জুলাই মিরাজুলের স্ত্রী তাসলিমা বেগম বাদী হয়ে ওই পাঁচ আসামির নামোল্লেখ করে মিরপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ২৮ মে আদালতে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করে পুলিশ।

আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী বাংলানিউজকে বলেন, সাক্ষ্যগ্রহণ ও শুনানি শেষে আসামি কামরুল ও কামালের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীত প্রমাণিত হওয়ায় তাদের দু’জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় মিরাজ হত্যার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে অভিযুক্ত দুই নারীসহ তিনজনকে মামলা থেকে বেকসুর খালাস দেন আদালত।

আসামিপক্ষে মামলাটির আইনজীবী ছিলেন মির্জা লোকমান হোসেন বেগ (স্টেট ডিফেন্স), সুধীর কুমার শর্মা ও ফেরদৌস উল ইসলাম।  

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩০, ২০১৯
এসআরএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa