ঢাকা, শুক্রবার, ৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ আগস্ট ২০২২, ২০ মহররম ১৪৪৪

জলবায়ু ও পরিবেশ

নির্বিষ ‘কালনাগিনী’ সাপ উদ্ধার

ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২০৭ ঘণ্টা, মে ২৮, ২০২২
নির্বিষ ‘কালনাগিনী’ সাপ উদ্ধার

মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে নির্বিষ কালনাগিনী সাপ (Ornete Flying Snake) উদ্ধার করেছে শ্রীমঙ্গলে অবস্থিত বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষ।

শুক্রবার (২৭ মে) সকালে শ্রীমঙ্গল শহরের কালিঘাট রোডের জুয়েল কানুর তিন তলা বাসার ছাদে এ সাপ উদ্ধার করা হয়।

বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন সূত্র জানায়, গত বুধবার দুপুরে বাসার ছাদে কাপড় রোদে দিতে গেলে এক মহিলা একটি সাপ দেখতে পান। পরে আতঙ্কিত হয়ে বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে খবর দেওয়া হয়। সজল সেখানে যান যাওয়ার পর সাপটিকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। পরের দিনও সাপটির দেখা যায়নি। লোকজন দেখলে সাপটি লুকিয়ে যায়। অবশেষে একটানা দুই দিন খোঁজাখুঁজির পর সাপটি শুক্রবার উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

এই সাপ উদ্ধারের পর শারীরিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে শীঘ্রই বনে অবমুক্ত করা হবে বলে সূত্র জানায়।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রফেসর এবং বন্যপ্রাণী গবেষক ড. কামরুল হাসান বাংলানিউজকে বলেন, কালনাগিনী নির্বিষ সাপ। অর্থাৎ এর কামড়ে মানুষ মারা যায় না। সাপুড়ে যারা সাপের খেলা দেখায় তারা এই সাপকে নিয়ে নানাবিধ ভ্রান্ত কল্পকাহিনী রচনা করে সাধারণ মানুষের মনে বিষাক্ত সাপের ভীতি সঞ্চার করেছে। ফলে মানুষ ‘কালনাগিনী’ শব্দটাকে বিষাক্ত হিসেবে মনে করতে শিখেছে এবং অনেকে দেখা মাত্রই এই নিরীহ সুন্দর সাপটিকে হত্যাও করে থাকেন। যা কখনোই উচিত নয়।

এরা দিবাচর এবং শান্তস্বভাবের সাপ। এই সাপটি দৈর্ঘ্যে ১২০ থেকে ১৭০ সেন্টিমিটার পর্যন্ত লম্বা হয়ে থাকে। এর খাদ্যতালিকায় রয়েছে ছোট ব্যাঙ, ছোট পাখি, পাখির ডিম, কীট-পতঙ্গ, ছোট বাদুর প্রভৃতি বলে জানান এই বন্যপ্রাণী গবেষক।

বাংলাদেশ সময়: ১২০৪ ঘণ্টা, মে ২৮, ২০২২
বিবিবি/কেএআর

 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa