ঢাকা, রবিবার, ৯ মাঘ ১৪২৮, ২৩ জানুয়ারি ২০২২, ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

জলবায়ু ও পরিবেশ

উপকূলীয় শিশুদের জলবায়ু সম্মেলন

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৫১ ঘণ্টা, নভেম্বর ২১, ২০২১
উপকূলীয় শিশুদের জলবায়ু সম্মেলন

খুলনা: খুলনায় উপকূলীয় শিশুদের জলবায়ু সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রোববার (২১ নভেম্বর) অর্ধদিবস ব্যাপী মহানগরীর রূপসাস্থ কারিতাস মিলনায়তনে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা জাগ্রত যুব সংঘ (জেজেএস) এ সম্মেলনের আয়োজন করে।

 

এতে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

তিনি বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব থেকে পৃথিবীকে রক্ষায় বিশ্ব নেতাদের ঐক্যবদ্ধভাবে এগিয়ে আসতে হবে। যে দাবিটি সম্প্রতি কপ সম্মেলনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তুলে ধরেছেন। বাংলাদেশের অতীতের কোনো সরকার প্রধান এভাবে কপ সম্মেলনে গিয়ে দাবি তুলে ধরেননি। অর্থাৎ বর্তমান সরকার বিশ্ব নেতাদের সঙ্গে ঐক্যবদ্ধ হয়ে জলবায়ু পরিবর্তনের হাত থেকে রক্ষায় বলিষ্ট ভূমিকা রাখছে। জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে বিশ্বের ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলোর মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। আর বাংলাদেশের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ উপকূলীয় এলাকা। বাংলাদেশের দক্ষিণে যেমন সমুদ্রের কারণে প্রাকৃতিক দুর্যোগের ঝুঁকি অনেকটা বেশি তেমনি সুন্দরবনের কারণে আমরা অনেক ক্ষতি থেকে রক্ষা পাই। এজন্য তিনি সুন্দরবন রক্ষার মধ্যদিয়ে দুর্যোগ মোকাবিলায় সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। তবে এসব দাবির ব্যাপারে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি আগামী দিনের ভবিষ্যৎ শিশুদের অনেক ভূমিকা পালনের সুযোগ রয়েছে। এজন্য শিশুদের নিয়ে সম্মেলনের আয়োজন করে জেজেএস একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

জেজেএসর চেয়ারপারসন জাকিয়া আক্তার হোসেনের সভাপতিত্বে এবং নির্বাহী পরিচালক এটিএম জাকির হোসেনের সঞ্চালনায় সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন পরিবেশ অধিদপ্তর খুলনার উপ-পরিচালক এমডি এমদাদুল হক, খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এসএম জাহিদ হোসেন, কনসার্ন ওয়ার্ড ওয়াইডের কান্ট্রি ডিরেক্টর ফিওনা ম্যাকলিসেট।

সম্মেলনে জলবায়ু সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ডিজাস্টার ফোরাম ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব গওহর নাইম ওয়ারা, ম্যাক্স ফাউন্ডেশনের আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক শেখ বাবুল, কুয়েটের প্রফেসর ড. তরিকুল ইসলাম, দৈনিক কালের কণ্ঠের খুলনা ব্যুরো প্রধান গৌরাঙ্গ নন্দী, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান ডিসিপ্লিনের প্রফেসর ড. আতিকুল ইসলাম, কনসার্ন ওয়ার্ল্ড ওয়াডের দক্ষিণ কোরিয়ার কান্ট্রি ডিরেক্টর সরজ দাস, খুবির প্রফেসর ড. নাজমুস সাদাত, কুয়েটের প্রফেসর ড. মোস্তফা সারোয়ার, খুবির পরিবেশ বিজ্ঞান ডিসিপ্লিনের প্রসেফর ড. দিলিপ কুমার দত্ত, কেএনএইচ’র কান্ট্রি ডিরেক্টর শুভময় হক, কনসার্ন ওয়ার্ল্ড ওয়াইডের প্রকল্প সমন্বয়কারী এমরানুল হক, দৈনিক পূর্বাঞ্চলের স্টাফ রিপোর্টার এইচ এম আলাউদ্দিন, শিশু প্রতিনিধি সুইটি, লামিয়া আক্তার, রকিবুল ইসলাম নয়ন।

সবশেষে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন জেজেএস’র প্রকল্প পরিচালক এমএম চিশতি।

সম্মেলনে শিশুদের জন্য ১০ দফা দাবি পেশ করেন শিশু প্রতিনিধি বৈশাখী সরকার। পরে সিটি মেয়রের কাছে শিশু প্রতিনিধি বৈশাখী সরকার ও সাজ্জাদ হোসেন দাবি পেশ করে। তাদের দাবিগুলো হলো- উপকূলীয় বন্যা দুর্গত শিশুদের সুরক্ষায় সরকারি-বেসরকারি দপ্তরের পদক্ষেপ, দুর্যোগের ফলে শিশুদের শিক্ষা ও বিনোদন ব্যহত হয়, স্বাভাবিক বিকাশ বাধাগ্রস্ত হওয়ার ফলে কর্তৃপক্ষকে নজর দেওয়ার আহ্বান, শিশুবান্ধব আশ্রয়কেন্দ্র তৈরি, উপকূলের প্রতি সরকারের নজরদারি, জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতিপুরণে কর্তৃপক্ষের প্রতিশ্রুতির বাস্তবায়ন, ধনী দেশে পরিমিত ব্যবহার নিশ্চিত ও উপকূলীয় দেশ রক্ষাসহ ১০ দফার বাস্তবায়ন দাবি করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২১, ২০২১
এমআরএম/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa