ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩ বৈশাখ ১৪৩১, ১৬ এপ্রিল ২০২৪, ০৬ শাওয়াল ১৪৪৫

জলবায়ু ও পরিবেশ

নিষিদ্ধ কারেন্ট জালের ফাঁদে বিপন্ন পাখি

রফিকুল আলম, উপজেলা করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৪৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৪
নিষিদ্ধ কারেন্ট জালের ফাঁদে বিপন্ন পাখি ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ধুনট (বগুড়া): বগুড়ার ধুনটে কৃষকের টমেটো খেতে নিষিদ্ধ কারেন্ট জালের ফাঁদে বিপন্ন হচ্ছে পরিবেশবান্ধব দোয়েল, শালিক, বুলবুলি, পেঁচা, বাদুরসহ নানা প্রজাতির পাখি।

বর্তমানে টমেটো চাষের পুরো মৌসুম চলছে।

খেতের টমেটো পাকতে শুরু করেছে। বিভিন্ন প্রজাতির পাখি খেতের পাকা টমেটো খেয়ে সাবাড় করছে।

পাখির হাত থেকে রক্ষায় চাষিরা মাছ শিকারের জন্য ব্যবহৃত কারেন্ট জাল দিয়ে টমেটো খেত ঘিরে রেখেছে। খেতের চার পাশে উচু করে কারেন্ট জালের বেড়া দিয়েছে। অনেক চাষি আবার পুরো টমেটো খেতই কারেন্ট জাল দিয়ে মুড়িয়ে রেখেছে।

খোলা আকাশের নিচে কারেন্ট জালের বেড়া থাকায় উড়ন্ত পাখি চলাচলে বাধাপ্রাপ্ত হয়। খেতের উপর দিয়ে পাখি চলাচল করতে গিয়ে কারেন্ট জালে আটকা পড়ে মৃত্যু হয়। এভাবে প্রতিদিন নির্বিচারে পাখি নিধনের ফলে মারাত্মক হুমকির মুখে পড়ছে জীববৈচিত্র্য।
 
পিরহাটি গ্রামের কৃষক হযরত আলী এ তথ্য নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, খেতের আইলে কারেন্ট জালে আটকা পড়ে দুই একটা করে পাখি মরছে। কিন্ত জাল দিয়ে বেড়া না দিলে পাখি টমেটো খেয়ে ক্ষতি করে।

তবে এভাবে পাখি মরার ফলে পরিবেশের ক্ষতির বিষয়টি ভেবে দেখেনি তিনি।

শ্যামগাতি গ্রামের শফিকুল আলম বাংলানিউজকে জানান, কৃষকের কারেন্ট জালে আটকা পড়ে প্রতিদিন অসংখ্য পাখি মরছে। এভাবে পাখি মরলে আগামীতে আর কোনো পাখি দেখা যাবে না। ধীরে ধীরে চিরচেনা বিভিন্ন প্রজাতির পাখির বিলুপ্ত ঘটবে।

ধুনট উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম এ তথ্য নিশ্চিত করে বাংলানিউজকে জানান, কৃষক না বুঝে এ ধরনের কাজ করছেন। মান্ধাতা আমলের ঢনঢনি পদ্ধতিতেও খেতের পাখি তাড়ানো যেত। কিন্ত খেতের টমেটো রক্ষার নামে কৃষক প্রাণিকুলের ক্ষতি করে জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে ফেলছে।

তবে এ বিষয়ে সচেতনতার জন্য কৃষককে পরামর্শ দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।

ধুনট উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আব্দুস সামাদ বাংলানিউজকে জানান, অতিথি পাখি শিকারির বিরুদ্ধে দেশে প্রচলিত আইন রয়েছে। কিন্ত কৃষকের খেতে কারেন্ট জালের ফাঁদে পাখি মরার বিষয়টি খুবই নতুন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৬, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।