ঢাকা, শনিবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৫ মে ২০২৪, ১৬ জিলকদ ১৪৪৫

জলবায়ু ও পরিবেশ

হাতি যখন ‍আবহাওয়াবিদ!

পরিবেশ-জীববৈচিত্র্য ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১০৪২ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৯, ২০১৪
হাতি যখন ‍আবহাওয়াবিদ! ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: প্রখর স্মৃতি শক্তির জন্য হাতির সুখ্যাতি রয়েছে। এখন নতুন এক গবেষণায় শেষে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন হাতিদের আবহাওয়া পূর্বাভাস দেওয়ার ক্ষমতাও রয়েছে।



কেবল তাই নয় তারা নিজেদের অবস্থান থেকে ১৫০ মাইলের (২৪১ কিলোমিটার)  চেয়েও দূরে কোনো জায়গার ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা আগে থেকেই টের পায়।

গবেষণা শেষে বিজ্ঞানীরা ভাবছেন হাতিকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার মাধ্যমে যদি পূর্বাভাস প্রকাশের ক্ষমতায় আনা যায় তবে মানুষের পাশাপাশি তাদেরও প্রাকৃতিক দুর্যোগ এবং শিকারীদের হাত থেকে রক্ষা করা সম্ভব হবে।

আশ্চর্যজনকভাবে, হাতির কানের আকার যেমনই হোক না কেন তাদের শ্রবণ ক্ষমতা খুবই ভালো এবং খুবই কম তরঙ্গের শব্দের উৎসও তারা সুনির্দিষ্ট করতে পারে।

এই কারণেই বহুদূরে বজ্রপাতের কম তরঙ্গের আওয়াজ শুনে ঝড় বা বৃষ্টিপাত হাতির অবস্থানে আসতে পারে কি না তার পূর্বাভাস দিতে পারে।

সম্প্রতি একটি জার্নালে বল‍া হয়, অতীতে কোনো গবেষণায় হাতিদের এই গুণাবলির কথা আলোচনা করা হয় নি।

টেক্সাসের এ অ্যান্ড এম ইউনিভার্সিটির জীববিদ্যা অনুষদের অধ্যাপক অলিভার ফ্রানফিল্ড বলেন, হাতিরা মূলত আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেখে ক্রমাগত স্থান পরিবর্তন করতে থাকে।

গবেষণায় নয়টি হাতিকে জিপিএস ট্রাকিং পদ্ধতির অন্তর্ভুক্ত করা হয় এবং প্রায় সাত বছর তাদের চলাফেরা পর্যবেক্ষণ করা হয়। নামিবিয়াতে জানুয়ারি থেকে মার্চ মাস পর্যন্ত অর্থাৎ বর্ষাকালে হাতিরা প্রতিদিনই তাদের জায়গা পরিবর্তন করতে থাকে।

তিনি বলেন, একইভাবে গ্রীষ্মকালে যখন তাদের জলের দরকার হয়, তখন ‍তারা সেই জায়গায় চলে যায় যেখানে সম্প্রতি বৃষ্টিপাত হয়েছে বা তাড়াতাড়ি হবে।

গবেষকরা এখন ভাবছেন হাতিদের এই ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়েই তাদের শিকারিদের হাত থেকেও বাঁচানো সম্ভব।

বাংলাদেশ সময়: ১০৩০ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৯, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।