ঢাকা, সোমবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩

ট্রাভেলার্স নোটবুক

চী‌নের সড়কে যা দেখ‌ছি

চী‌নের রাস্তা মানেই স‌ঙ্গে আছে ফুটপাত, রাস্তা মা‌নেই আইল্যা‌ন্ডে আ‌ছে সা‌রি সা‌রি বৃক্ষরা‌জি। আ‌ছে আলাদা সাই‌কেল লেন ও

মোবাইল স্ক্রিনে ডুবে থাকেন চীনারা!

বুধবার (১০ জানুয়ারি) চীন ভ্রমণের পঞ্চম দিন। দক্ষিণ থেকে উত্তর এবং উত্তর থেকে পূর্ব চীন ঘুরে যেখানেই দেখেছি, মোবাইল স্ক্রিনে ডুবে

বন্দরে বা‌ণি‌জ্যে ব্যস্ত, শান্ত অপ্সরী নিং‌বো সি‌টি

আবার আস‌তে হ‌বো নিং‌বো সি‌টির টা‌নে...। সব‌চে‌য়ে বে‌শি পণ্য প‌রিবহনকারী বন্দর আর প্রযু‌ক্তিপণ্য প্র‌তিষ্ঠা‌নের

অদেখা থাকলো সাংহাইয়ের আলো আর গ‌তির রহস্য

মঙ্গলবার (০৯ জানুয়ারি) স্পিডি ট্রেনে সাংহাই ছেড়ে দক্ষিণ চীনের দিকে। জালের মতো ছ‌ড়িয়ে থাকা ফ্লাইওভার আর অজস্র ভবন দেখে  ট্রেন

চীনাদের অর্ধসেদ্ধ খাবারের স্বাদ

গোয়াংজু, সাংহাই, সুজো, শানডং- চার দিনে চীনের এ চারটি শহর ঘুরে এভাবেই খাবার খেতে হলো। তবে সমস্যা পাত্রে নয়! খাবারে। কেন? বাংলাদেশে

কনফু‌সিয়া‌সের ছু ফু শহরে 

‌সোমবার (৮ জানুয়া‌রি) ভো‌রে পূর্ব জিনান রেল স্টেশন থে‌কে হাইস্পিড ট্রে‌নে এক ঘণ্টার মধ্যে পৌঁছে যাই কনফু‌সিয়া‌সের ছু ফু

শত ব্যস্ততায় আতিথেয়তায় অনন্য চীনারা

এ আতিথেয়তা ফাইভস্টার হোটেলের পিকআপ ও ড্রপআপের চেয়ে বেশি কিছু। কারণ এজন্য কেনো টাকা দিতে হয় না।  ওই ব্যবসায়ীর সঙ্গে পরে ব্যবসা

ঢাকার বিমানবন্দ‌র ছা‌ড়ি‌য়ে চী‌নের রেল স্টেশন!

স্টেশ‌নে প্লাটফ‌র্মে প্র‌বে‌শের আ‌গেই যাত্রী‌দের বসার জন্য ক‌য়েক’শ আসন র‌য়ে‌ছে। সেখানে আ‌শ-পা‌শে নান্দ‌নিক

সুজিয়ানায় সাইবেরীয় শীতে তুষারখেলা  

শনিবার (৬ জানুয়ারি) ভোরে সুজো থেকে ২০০ কিমিলোটার দূরে সুজিয়ানার পথে রেলে। সড়কপথ তখনও খোলেনি। সাংহাই বেইজিং ধরে যেতে হয়

বুলেট ট্রেনে ভেসে সাংহাই ছাড়িয়ে

শুক্রবার (০৫ জানুয়ারি) সকাল সোয়া ১১টায় রওনা দিয়ে দুপুর ২টায় চায়না সাউদার্নের ডমেস্টিক ফ্লাইটে চীনের বাণিজ্যিক রাজধানীতে অবতরণ।

ঝকঝ‌কে গুয়াংজু বিমানবন্দরে কারও সাহায্য লা‌গে না

শুক্রবার (০৫ জানুয়া‌রি) ভোর। ঝকঝ‌কে বিমানবন্দর, সবকিছুই বেশ গোছালো। চকচকে ভেতর-বাইরে। সাম‌নে এ‌গি‌য়ে ইমিগ্রেশনের সারি। 

এক টুকরো অাফ্রিকা (পর্ব ৪)

দিগন্ত বিস্তৃত গ্রেট রিফট ভ্যালি, ঘুমন্ত আগ্নেয়গিরির পাহাড় দেখলাম। পাহাড়ের উপরে, থম্পসন ফলসের পাশে বসে চমৎকার রেস্তোরাঁয় দুপুরের

ঢাকার বাইরে গিয়ে গোধূলিলগ্ন উপভোগ

ঢাকার বাইরে গোধূলিলগ্ন উপভোগ করতে চাওয়ার যথেষ্ট কারণ ছিল। একদিকে সদরঘাটে বুড়িগঙ্গার পানি দেখতে বিবর্ণ, অন্যদিকে বুকভরে শ্বাস

আরবের নিভৃতে আইফোন বিক্রি করছে আফগান!

কাছে গিয়ে নাড়াচাড়া করতেই আফগানি ভাঙা আরবী ও ইংরেজি মিশিয়ে বললেন, 'আইফোন সিক্স। জাদিদ। আফজাল।' অর্থ হলো, এটা আইফোন সিক্স, নতুন,

এক টুকরো আফ্রিকা (পর্ব ৩)

রোদে জ্বলে যাওয়া প্রকৃতি ধূলার আস্তরণের নিচে ঢাকা পড়ে আছে। যতবার আমাদের গাড়ি পানিশূন্য নদীগুলোকে রাস্তা হিসেবে ব্যবহার করছিল,

সবকিছু স্মৃতি হবে কিন্তু হিমালয়ের আহ্বান সবসময় বর্তমান

হঠাৎ করেই আবহাওয়া ভালো হয়ে গেছে। পরিষ্কার আকাশে হাজারো তারার মেলা! বাতাসের লেশ মাত্র নেই। অথচ আগামী তিনদিনই খারাপ আবহাওয়ার

হাঁটু সমান বরফ বাধ সাধলো সামিটে

আজ লারকে পাসের দিকে যাওয়া ট্রেকার নেই বললেই চলে। সকালের দিকে কিছু মালবাহী খচ্চর আর তাদের চালকদের চলাফেরা ছিল। এখন আর কেউ নেই লারকে

সামিটের প্রস্তুতির রাতে শুরু হলো বরফ পড়া

আমাদের বেসক্যাম্পের দক্ষিণে ঘণ্টাখানেক হাঁটলে শুরু হয়েছে হাই ক্যাম্পে যাওয়ার চড়াই। অনেকটা পথ এখান থেকে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে।

আঁধার ঠেলে উঁকি দিলো আগুনরঙা মানাসলু

সূর্যের আলোয় ঝলমল করে উঠলো পুরো উপত্যকা। আমরা আজ সামদোর পথে পা বাড়াবো। লজে থাকা অন্য দেশের ট্রেকাররাও সামদো যাবে। সবাই মিলে কাফেলার

হাতের নাগালে বরফ পাহাড়, বীরেন্দ্র লেকে মুগ্ধতা

মুহিত ভাই জানালেন অন্তত চার হাজার মিটার পর্যন্ত হাইট গেইন করবেন। আমি তো মনে মনে মানাসলু বেস ক্যাম্পে যাওয়ার-ই পরিকল্পনা এঁটে বসে

এই বিভাগের সর্বাধিক জনপ্রিয়

Alexa