ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ মাঘ ১৪২৯, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৫ রজব ১৪৪৪

ব্যাংকিং

আমানত-ঋণের সুদহারের তথ্য প্রতি মাসের ১০ তারিখের মধ্যে

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৫৪ ঘণ্টা, আগস্ট ৫, ২০১৮
আমানত-ঋণের সুদহারের তথ্য প্রতি মাসের ১০ তারিখের মধ্যে

ঢাকা: ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর আমানত ও ঋণের সুদহারের তথ্য এখন থেকে প্রতিমাসের ১০ তারিখের মধ্যে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে জানাতে হবে। আগে প্রতিমাসের ১৫ তারিখের মধ্যে জানানোর বাধ্যবাধকতা ছিল।

কেন্দ্রীয় ব্যাংক এসব তথ্য-উপাত্তের ভিত্তিতে ব্যাংক ও আর্থিক খাতের একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সূচক স্প্রেড হিসাবায়ন করে থাকে। যা আমানত ও আগামের ভারিতগড় সুদ হারের ব্যবধান যৌক্তিকীকরণসহ আর্থিক নীতি নির্ধারনে ব্যবহৃত হয়।

রোববার (৫ আগস্ট) বাংলাদেশ ব্যাংকের পরিসংখ্যান বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোকে এ নির্দেশনা দিয়েছে। আগস্ট মাস থেকেই এ নির্দেশনা কার্যকর হবে।

এতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে দেশের সব ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সব ধরনের আমানত ও ঋণের সুদহারের তথ্য থাকে। ঋণ, আমানতের সুদহার ব্যাংক ও আর্থিক খাতের গুরুত্বপূর্ণ সূচক। এ দুটোর পার্থক্য থেকে আরো একটি গুরুত্বপূর্ণ সূচক বের করা হয়ে থাকে। যাকে বলা হয় স্প্রেড। এছাড়া আমানত ও ঋণের ভারিত গড় হারও এসব তথ্য থেকে বের করা হয়। এসব তথ্য আর্থিক নীতি নির্ধারণী কাজে ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ও অন্যান্য ব্যবহারকারীদের প্রতি মাসের ১২ তারিখের মধ্যে স্প্রেডের তথ্য সরবরাহ করতে হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের পাশাপাশি সরকারের বিভিন্ন সংস্থাও গবেষণা প্রতিষ্ঠান এসব তথ্য ব্যবহার করে। ১৫ তারিখের পর ঋণ ও আমানতের সুদহারের তথ্য পেলে তা বিশেষ কাজে লাগে না।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫২ ঘণ্টা, আগস্ট ৫, ২০১৮
এসই/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa