ঢাকা, শুক্রবার, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ জুলাই ২০২২, ০০ জিলহজ ১৪৪৩

আওয়ামী লীগ

আমাকে আরেকবার সুযোগ দিন: সাঈদ খোকন

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৪৫৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৮, ২০১৯
আমাকে আরেকবার সুযোগ দিন: সাঈদ খোকন

ঢাকা: ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন বলেছেন, আমি ফেরেস্তা না আমি মানুষ, আমার ভুল-ত্রুটি হতেই পারে। আমার ছোটখাটো ভুল-ত্রুটি হয়ে থাকলে আপনাদের সন্তান, আপনজন হিসেবে ধরিয়ে দেবেন। এ ভুলগুলো সংশোধন করার জন্য আরেকবার যদি সুয়োগ পাই, তাহলে আমার অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে আগামী পাঁচ বছর আপনাদের সুখে-দুঃখে পাশে থেকে সেবা করবো। অসমাপ্ত কাজগুলো শেষ করে নতুন রূপে আপনাদের কাছে এ ঢাকাকে ফিরিয়ে দেবো।

শুক্রবার (২৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় রাজধানীর বকশিবাজারে কারা কনভেনশন সেন্টারে ঢাকা সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ডিএসসিসির বাসিন্দাদের প্রতি এ আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

সাঈদ খোকন বলেন, সাড়ে চার বছর আমি একাগ্রতা, নিষ্ঠার সঙ্গে কর্তব্য পালন করেছি।

কোনো দিন কর্তব্যে অবহেলা করিনি। বলতে গেলে দক্ষিণ ঢাকায় ইতিবাচক পরিবর্তনের সূচনা করতে সক্ষম হয়েছি। আমাকে যদি ঢাকাবাসী আরেকবার সুযোগ দেন, তাহলে আমি বাকি কাজগুলোও শেষ করবো। পাশাপাশি বিশ্বের উন্নত শহরের আদলে সব নাগরিক সুযোগ-সুবিধা দিতে কাজ করবো।

মেয়র বলেন, শনিবার (২৮ ডিসেম্বর) দল থেকে মেয়র প্রার্থী ঘোষণা করা হবে। দল থেকে যদি আমাকে সুযোগ দেয়, আর আপনারা যদি আমার পাশে থাকেন, সবার দোয়ায় নির্বাচিত হই, তাহলে বাকি কাজগুলোও শেষ করতে পারবো। বাকি কাজগুলো করার জন্য আমাকে আর একবার সুযোগ দিন।

তিনি বলেন, তৃতীয় প্রজন্ম হিসেবে ঢাকাবাসীর সেবা করার সুযোগ হয়েছে আমার। এরআগে আমার বাবার ও নানা ঢাকাবাসীর সেবা করে গেছেন।

তিনি আরও বলেন, ৩১টি পার্ক-খেলার মাঠ দখলমুক্ত করেছি। বেশ কিছু পার্ক আন্তর্জাতিক মানের করা হচ্ছে। এগুলোর মধ্যে বেশ কয়েকটি উন্মুক্ত করা হয়েছে। বাকিগুলোর কাজ ৭০ থেকে ৮০ শতাংশ শেষ হয়েছে। মাঠ উদ্ধার করা সহজ কাজ ছিলো না। মাঠগুলোতে ট্রাকস্ট্যান্ড ছিল। মাঠে কনস্টাকশন ইয়ার্ড বানিয়ে রাখা ছিল। আমি চেষ্টা করেছি। করতে পেরেছি। তবে আরও কাজ বাকি আছে। রসুলবাগে বৃষ্টি হলে কোমর সমান পানি হতো। এ পানিকে ধরে রেখে রিসাইকেলিং করে ব্যবহারের উপযোগী করার চেষ্টা করছি। ৮৫ থেকে ৯০ শতাংশ রাস্তাঘাট করে দিয়েছি। ঢাকা শহরে কোনো পাবলিক টয়লেট ছিলো না। প্রায় ৫০ টি আধুনিক টয়লেট করেছি। শহরের ময়লা পরিষ্কার করতে নানা পদক্ষেপ নিয়েছি। নিজে রাত জেগে থেকে প্রতি বৃহস্পতিবার শহরের ময়লা পরিষ্কার করেছি।

মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ঢাকাবাসীর সামাজিক, রাজনৈতিক একটা ঐতিহ্য আছে। অর্থনৈতিক দিক থেকেও বিশাল অবদান রেখেছি। গর্বের সঙ্গে বলতে পারি, বাংলাদেশে সরকার প্রতি বছর যে রাজস্ব আরোহন করে তার শতকরা ৬০ শতাংশ ঢাকাবাসী যোগান দেন। আর বাকি ৪০ শতাংশ সারাদেশের মানুষ দিয়ে থাকে। এ শহরের গোড়াপত্তন থেকে ব্যবসা থেকে শুরু করে সব বিষয়ে ঢাকাবাসীর একটি ভূমিকা আছে।

ঢাকা সমিতির সভাপতি হারুনুর রশিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সমিতির অন্য সদস্যসহ ঢাকা দক্ষিণ আওয়ামী লীগের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

** ‘কঠিন সময়ে’ কেঁদে ফেললেন সাঈদ খোকন

বাংলাদেশ সময়: ২৩৪৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৭, ২০১৯
পিএস/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa