ঢাকা, বুধবার, ২২ আষাঢ় ১৪২৯, ০৬ জুলাই ২০২২, ০৬ জিলহজ ১৪৪৩

আওয়ামী লীগ

নৈরাজ্য সৃষ্টির হুঙ্কার দেবেন না: ড. হাছান মাহমুদ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২২৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৭
নৈরাজ্য সৃষ্টির হুঙ্কার দেবেন না: ড. হাছান মাহমুদ ড. হাছান মাহমুদ। ফাইল ফটো

ঢাকা: শেখ হাসিনার অধীনে এবং সংসদ বহাল রেখে কোন নির্বাচন হতে দেওয়া যাবে না- বিএনপি চেয়ারপারসনের এমন বক্তব্যের  জবাবে আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি বলেছেন, খালেদা জিয়ার বক্তব্যেই স্পষ্ট সংকেত আছে তারা আন্দোলনের নামে জনগণকে জিম্মি করে দেশে আবারো অতীতের মতো নৈরাজ্য সৃষ্টির পাঁয়তারা করছে।

তিনি বলেন, আমি বিএনপি চেয়ারপারসনকে বলবো, এখন ২০১৩, ২০১৪ কিংবা ২০১৫ সাল নয়, এখন ২০১৭ সাল। আপনার এসব হুঙ্কার চিড়িয়াখানায় আবদ্ধ রোগাক্রান্ত সিংহের মতোই শোনায়।

তাই হুঙ্কার দেবেন না। আগামী সংসদ নির্বাচনের আগে আপনারা (বিএনপি) যদি দেশে বিশৃঙ্খলা করার অপচেষ্টা চালান তাহলে দেশের জনগণ আপনাদের প্রতিহত করবে।

সোমবার (২৫ ডিসেম্বর) সকালে, জাতীয় প্রেস ক্লাবে আওয়ামী হকার্স লীগ আয়োজিত মহান বিজয় দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, সংবিধান অনুযায়ীই সংবিধান সম্মতভাবেই আগামী নির্বাচন হবে। এর কোন ব্যত্যয় ঘটবে না।

আগামী ৫ জানুয়ারিকে ঘিরে বিএনপি দেশে নাশকতা করার ষড়যন্ত্র করছে বলেও মন্তব্য করেন ড. হাছান মাহমুদ।

মুক্তিযোদ্ধাদের সমাবেশে গিয়ে খালেদা জিয়া মহান মুক্তিযুদ্ধকে উপহাস করেছেন এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, যিনি মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে পাকিস্তানি সেনানিবাসে সেনাবাহিনীর আতিথেয়তায় ছিলেন, যিনি পাকিস্তানি সামরিক গোয়েন্দা সংস্থা থেকে অর্থ সাহায্য নেন, যিনি যুদ্ধাপরাধীদের মন্ত্রিসভায় স্থান দিয়ে গাড়িতে আমাদের জাতীয় পতাকা তুলে দেন, তিনি (খালেদা জিয়া) যখন মুক্তিযোদ্ধাদের সমাবেশে অংশগ্রহণ করেন তখন তা আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধাদের উপহাস করা ছাড়া আর কিছুই নয়।

‘দেশ পাকিস্তানি স্টাইলে চলছে’ খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করে আওয়ামী লীগ প্রচার সম্পাদক বলেন, খালেদা জিয়া আসলে বলতে চেয়েছেন, তিনিই পাকিস্তানি স্টাইলে দেশ চালাতে চান। কিন্তু ভুল করে এ কথা বলে ফেলেছেন।

বিএনপি নেত্রীকে উদ্দেশ্য করে ড. হাছান মাহমুদ বলেন,পাকিস্তানি আদালত সে দেশের প্রধানমন্ত্রীকে বরখাস্ত করে, আর আপনি পাকিস্তানের মতো এ দেশে প্রধান বিচারপতিকে সাথে নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করার চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু এ দেশ পাকিস্তানের মতো নয় বলেই, আপনার এই ষড়যন্ত্র বানচাল হয়ে যায়। যাকে নিয়ে এই ষড়যন্ত্র করেছিলেন, সেই প্রধান বিচারপতিও দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন।

বক্তব্যের শুরুতে ড. হাছান মাহমুদ বড়দিন উপলক্ষ্যে দেশের খ্রিস্ট সম্প্রদায়ের জনগণকে শুভেচ্ছা জানান।

আওয়ামী হকার্স লীগ সভাপতি জাকারিয়া হানিফের সভাপতিত্বে আরো উপস্হিত ছিলেন  সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ আলী, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন উপাচার্য ড. গোলাম মাওলাসহ আরো অনেকে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৫, ২০১৭
জেডএম/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa