ঢাকা, সোমবার, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৪ রজব ১৪৪৪

আওয়ামী লীগ

বঙ্গবন্ধুর নামে যারা চাঁদাবাজি করে, তাদের ঘৃণা করি

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬৪৪ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৫, ২০১৭
বঙ্গবন্ধুর নামে যারা চাঁদাবাজি করে, তাদের ঘৃণা করি সেমিনারে বক্তব্য রাখছেন ওবায়দুল কাদের, অনুষ্ঠান মঞ্চে অতিথিরা। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর নামে যারা চাঁদাবাজি করে, তাদের ঘৃণা করি, তিরস্কার করি।

শনিবার (২৫ নভেম্বর) সকালে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন (বিএমএ) মিলনায়তনে আয়োজিত এক সেমিনারে তিনি এ কথা বলেন। বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণকে ইউনেস্কো স্বীকৃতি দেওয়ায় ‘৭ মার্চ: আলোকের ঝরনাধারা’ শীর্ষক এ সেমিনারের আয়োজন করে আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপ-কমিটি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বঙ্গবন্ধুর নামে যারা চাঁদাবাজি করে, দখল করে, এ ধরনের সংগঠন আমাদের দরকার নেই। আমরা এদের ঘৃণা করি। এদের তিরস্কার করি। বঙ্গবন্ধুর সততা ও সাহস থেকে আমাদের শিক্ষা নিতে হবে।  

রাজনীতিবিদদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আমরা বুকে হাত দিয়ে ক’জন বলতে পারবো যে ‘আমি সৎ’? আমরা রাজনীতিকরা যদি দুর্নীতিমুক্ত থাকি, দেশে দুর্নীতি স্বয়ংক্রিয়ভাবে অর্ধেক কমে যাবে।  

মানুষের ভালোবাসার চেয়ে একজন রাজনীতিকের জীবনে বড় কিছু নেই উল্লেখ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, মানুষের ভালোবাসা পেতে হলে সৎ হতে হবে, মাটির কাছে যেতে হবে।  

তিনি উল্লেখ করেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একজন বিশ্বস্বীকৃত সৎ রাজনীতিবিদ। সততার দিক থেকে তিনি বিশ্বের তৃতীয় প্রধান নেতা। পরিশ্রমের দিক থেকে প্রধানমন্ত্রী বিশ্বের পঞ্চম প্রধান নেতা।  

বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধেও কোনো অর্থপাচার বা দুর্নীতির অভিযোগ নেই বলে জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, কোনো হাওয়া ভবনের আশীর্বাদ নেই। বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্যরা চাকরি করে খান।

বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, বিএনপি আমাদের কখনো (সংসদে) ৪০টি সিট দেয়, কখনো ২৫টি সিট দেয়। তারা সংখ্যাতত্ত্বের রাজনীতি শুরু করেছে। তাদের মধ্যে অনেক ফরচুন টেলার (ভবিষ্যদ্বাণীদাতা) ও অ্যাস্ট্রোলজার (জ্যোতির্বিদ) রয়েছে। ২০০৮ সালে তারা ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন, আমরা নাকি ৩০ সিট পাবো। আল্লাহর কী হুকুম। তারাই সে নির্বাচনে ৩০টির মতো সিট পেয়েছে। খালেদা জিয়া বলেছিলেন, ১০০ বছরেও আওয়ামী লীগ নাকি ক্ষমতায় আসতে পারবে না। আমরা সবমিলিয়ে ১৩ বছর ক্ষমতায় আছি।

আওয়ামী লীগের সবচেয়ে বড় সম্পদ সততা জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশের মানুষ শেখ হাসিনার সততা ও দক্ষতার ওপর আস্থাশীল।  

সততা, যোগ্যতা ও দক্ষতাকে পুঁজি করে আওয়ামী লীগ আবারও ক্ষমতায় আসবে বলেও আশাবাদ ব্যক্ত করেন দলটির সাধারণ সম্পাদক।

আসন্ন রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জ ও কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের মতো অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে রংপুরেও। সরকার কোনো হস্তক্ষেপ করবে না। অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সরকার সব করমের সহযোগিতা করবে।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এবং তথ্য ও গবেষণা উপ-কমিটির চেয়ারম্যান প্রফেসর সাইদুর রহমান খানের সভাপতিত্বে সেমিনারে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দৈনিক সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার, ইউনেস্কোর কান্ট্রি ডিরেক্টর বিয়েট্রিস খলদুন প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১২৩৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৫, ২০১৭
এমইউএম/এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa