ঢাকা, রবিবার, ২ আষাঢ় ১৪২৬, ১৬ জুন ২০১৯
bangla news

বিশ্বব্যাংক-আইএমএফ বৈঠকে গুরুত্ব পাচ্ছে রোহিঙ্গা ইস্যু

মফিজুল সাদিক, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-১১ ১০:৩৫:৩৫ পিএম
ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

ওয়াশিংটন ডিসি থেকে: সাইবার ঝুঁকি এবং জলবায়ু পরিবর্তন ও অবৈধ অভিবাসন সমস্যা মোকাবেলায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজের কৌশল নির্ধারণ করতে শুরু হয়েছে বিশ্বব্যাংক ও আন্তর্জাতিক অর্থ তহবিলের (আইএমএফ) বসন্তকালীন বৈঠক। 

যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে বিশ্ব ব্যাংক কার্যালয়ে শুরু হওয়া এ বৈঠকে গুরুত্ব পাচ্ছে বাংলাদেশের রোহিঙ্গা ইস্যু ও টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজি) বাস্তবায়নে বেসরকারি বিনিয়োগ বিষয়ক আলোচনা।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, রোহিঙ্গা ইস্যুসহ বাংলাদেশ তার স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় বিশ্বের নীতি-নির্ধারকদের কাছে তুলে ধরবে। এছাড়া সব দেশের প্রবৃদ্ধিকে আরও টেকসই করা, যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে বাণিজ্যযুদ্ধের উদ্বেগ কমিয়ে আনার কৌশলও খুঁজে বের করার জন্য আলোচনা হবে বৈঠকে। 

বৈঠকে বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালসহ ১৮৯টি দেশের অর্থমন্ত্রী এবং কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর অংশ নিচ্ছেন। অংশ নিচ্ছেন ২ হাজার ৮০০ অতিথি, ৩৫০টি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি এবং ৮০০ সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের ৫৫০ জন প্রতিনিধি।

বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলে অর্থমন্ত্রী ছাড়াও রয়েছেন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ড. ফজলে কবির, অর্থ সচিব আবদুর রউফ তালুকদার ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব মনোয়ার আহমেদসহ ১৫ জন। 

বৈঠক প্রসঙ্গে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব মনোয়ার আহমেদ বাংলানিউজকে বলেন, শুক্রবারের (১২ এপ্রিল) বৈঠকেই তুলে ধরা হবে রোহিঙ্গা ইস্যু। আগামী বর্ষায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পের অনেক বসতি নষ্ট হবে। নতুন করে বসতি নষ্ট হলে তা তৈরি করতে অর্থের প্রয়োজন। এ বিষয়টি দাতা সংস্থাগুলোর কাছে তুলে ধরা হবে।

তিনি আরও বলেন, রোহিঙ্গাদের আবাসন সংকট নিরসনে নোয়াখালীর ভাসানচরে প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। তবে আমাদের ভয় রয়েছে প্রকল্পটি নিয়ে। প্রকল্প এলাকার চারপাশ মেঘনা নদীর ভাঙন ঝুঁকিতে। তাই এর চারপাশ রক্ষণাবেক্ষণে আমরা সহায়তা চাইবো।

এদিকে টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য (এসডিজি) বাস্তবায়নে বেসরকারি বিনিয়োগ বাড়ানোর উপায় নিয়ে আলোচনা হবে বৈঠকে। সেখানে বাংলাদেশ এবং এ ধরনের দেশগুলো কিভাবে এসডিজি বাস্তবায়ন করবে, বেসরকারি বিনিয়োগের অংক, কারা বিনিয়োগ করবে- এসব তুলে ধরা হবে বিশ্বের বড় বড় প্রতিষ্ঠানের সিইও ও উদ্যোক্তাদের কাছে। বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে একটি পেপারও উপস্থাপন করা হবে।

জানা গেছে, বিশ্বব্যাংক ও আইএমএফের বৈঠকে বিশ্ব অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা বেশি শুরু পাচ্ছে। কারণ আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) সম্প্রতি তাদের পূর্বাভাসে বলেছে, ২০১৯ এবং ২০২০ সালে কমপক্ষে ৩ দশমিক ৫ শতাংশ প্রবৃদ্ধি কমবে বিগত বছরগুলোর তুলনায়। 

বিশ্ব অর্থনৈতিক খাতের নেতারা একমত হয়েছেন, ২০১৮ সালের পর যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে যে বাণিজ্যযুদ্ধ শুরু হয়েছে, এর নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে বিশ্ব অর্থনীতিতে। এই বাণিজ্যযুদ্ধকেন্দ্রিক উদ্বেগ কিভাবে কমানো যায়, সেটি চলমান বৈঠকে আলোচনা হবে।

এছাড়া বৈঠকে গুরুত্ব পাচ্ছে সন্ত্রাসে অর্থায়ন প্রতিরোধ, সাইবার ঝুঁকি, জলবায়ু পরিবর্তন ও ভৌগোলিক মাইগ্রেশন সংক্রান্ত ইস্যু। 

বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) নারীর আর্থিক অন্তর্ভূক্তি ও নীতি-নির্ধারণ বিষয়ে একটি বৈঠকে অংশ নেবেন গভর্নর ফজলে কবির। তিনি বলেন, অর্থমন্ত্রীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে বৈঠক নিয়ে ভালো প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। 

বাংলাদেশ সময়: ২২২৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ১১, ২০১৯
এমআইএস/এইচএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

প্রবাসে বাংলাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-04-11 22:35:35