ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ১১ আগস্ট ২০২০, ২০ জিলহজ ১৪৪১

লন্ডন

ভিয়েনায় আনন্দ শোভাযাত্রায় শিল্পমন্ত্রী

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৪১ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৫, ২০১৭
ভিয়েনায় আনন্দ শোভাযাত্রায় শিল্পমন্ত্রী

ভিয়েনা (অস্ট্রিয়া) থেকে: বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ ইউনেস্কোর ‘বিশ্ব ঐহিত্যের প্রামাণ্য দলিল’ হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ায় অস্ট্রিয়া প্রবাসী বাঙালিরা ভিয়েনায় আনন্দ সমাবেশ করেছে।

২৩ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার) সন্ধ্যায় ভিয়েনার প্যান এশিয়া হলে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।

বিশেষ অতিথি ছিলেন সর্বইউরোপিয়ান আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক অস্ট্রিয়া প্রবাসী মানবাধিকার কর্মী, লেখক এম নজরুল ইসলাম।

অস্ট্রিয়া আওয়ামী লীগের  উদ্যোগে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি খন্দকার হাফিজুর রহমান নাসিম। সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম কবির।

সমাবেশে শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেন, ১৯৭১ সালের ৭ই মার্চ নির্ধারিত সময়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঙালির হাজার বছরের মুক্তির স্বপ্ন নিয়ে বিক্ষোভে উত্তাল রেসকোর্সের লাখো জনতার সভামঞ্চে এসে উপস্থিত হন। বঙ্গবন্ধু তার ভাষণে পাকিস্তানের ২৩ বছরের রাজনৈতিক ইতিহাস, পাকিস্তান রাষ্ট্রের সঙ্গে বাঙালিদের দ্বন্দ্বের স্বরূপ তুলে ধরেন। শান্তিপূর্ণভাবে বাঙালিদের অধিকার আদায়ের চেষ্টার কথা বলেন।

শিল্পমন্ত্রী বলেন,সবশেষে বঙ্গবন্ধু পাকিস্তানি ঔপনিবেশিক শাসন-শোষণের শৃঙ্খল ছিন্ন করে স্বাধীনতা অর্জনের লক্ষ্যে চূড়ান্ত সংগ্রামের আহ্বান জানান। বঙ্গবন্ধুর এই আহ্বানে সাড়া দিয়ে আমাদের স্বাধীনতা অর্জনে ৩০ লাখ মানুষ আত্মোৎস্বর্গ করেন, যা বিশ্ব ইতিহাসে নজিরবিহীন। ’

সমাবেশে এম নজরুল ইসলাম ইউনেস্কোকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ ছিল বাংলাদেশ সৃষ্টির প্রণোদনা। এই উদ্দীপনাময় ভাষণটি মুহূর্তে বাঙালিদের নবচেতনায় জাগিয়ে তুলে অভিষ্ট লক্ষ্য অর্জনে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারে তাদের প্রস্তুত করেছিল।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৫, ২০১৭
এসএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa