bangla news

৫০ লাখ সৌদি রিয়ালে ঠেকবে আলী প্রধানের শিরচ্ছেদ

সৌদি আরব করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৬-১০-১৫ ১:৪২:০০ পিএম
ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

খুনের মামলায় সাজাপ্রাপ্ত গাজীপুরের আলী প্রধানের শিরচ্ছেদ ঠেকাতে প্রয়োজন ৫০ লাখ সৌদি রিয়াল (১০ কোটি টাকা)। 

সৌদি আরব: খুনের মামলায় সাজাপ্রাপ্ত গাজীপুরের আলী প্রধানের শিরচ্ছেদ ঠেকাতে প্রয়োজন ৫০ লাখ সৌদি রিয়াল (১০ কোটি টাকা)। 

বাদীপক্ষের চাহিদা অনুযায়ী রক্তপণ বাবদ ৫০ লাখ রিয়াল পরিশোধ করে আর্থিকভাবে অসচ্ছল এই আলীকে প্রাণে বাঁচাতে ইতোমধ্যে মাঠে নেমেছে সৌদি আপস কমিটির ভলান্টিয়ার গ্রুপ। এই আপস কমিটির ভলান্টিয়ারদের অধিকাংশই সৌদি আরবের বিভিন্ন আদালতের সাবেক প্রধান বিচারপতি।

২০০৬ সালের ২৬ আগস্ট সৌদি আরবের পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ দাম্মামে একটি ক্লিনিং কোম্পানির গাড়ি চালক হিসেবে দায়িত্বপালন করছিলেন। এসময় একজন সৌদি নাগরিকের সঙ্গে (কিশোর) বাকবিতণ্ডতায় জড়িয়ে পড়েন আলী প্রধান। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে রাগের মাথায় কিশোরকে ছুরিকাঘাত করেন আলী। এতে মারা যান সৌদি কিশোর।

তখন থেকেই দাম্মামের জেলে আটক আছেন আলী প্রধান। খুনের বিষয় অনুতপ্ত আলী জেলে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায়ের পাশাপাশি অন্যান্য আসামি, কারারক্ষীসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে ভালো আচার করছেন আলী প্রধান। যার ফশ্রুতিতে আপস কমিটির নজরে আসেন তিনি। জেলে থাকা অবস্থায় আলী ছোটখাটো ফুটফরমায়েস করে মাসে ৪০০/৫০০ রিয়াল আয়ের মাধ্যমে পরিবারের ভরণপোষণ করছেন।

২০১৩ সালের এপ্রিল মাসে শিরচ্ছেদের মাধ্যমে আলীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছিলো। এখবর শুনে তৎকালীন সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শহীদুল ইসলাম রিয়াদের গভর্নরের সঙ্গে সাক্ষাৎ করে মৃত্যুদণ্ড সাময়িক স্থগিত করেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা (রিয়াদ দূতাবাসের তৎকালীন কাউন্সিলর, পলিটিক্যাল) মোশাররফ হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, সেসময় নিহত কিশোরের পরিবারের দাবি ছিল মৃত্যুর বদলে মৃত্যু। আর সেজন্যই আলী প্রধানকে শিরচ্ছদের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছিলো। 

কিন্তু তৎকালীন রাষ্ট্রদূত শহীদুল ইসলাম চেয়েছিলেন রক্তপণ পরিশোধের মাধ্যম আলীকে মুক্ত করা। সে চেষ্টার অংশ হিসেবে অনেক চিঠি চালাচালি আর রিয়াদের গভর্নরের সঙ্গে বৈঠকের পর সে যাত্রায় শিরচ্ছেদ স্থগিত করেছিলো সৌদি কর্তৃপক্ষ। 

 আলী প্রধানের রক্তপণ পরিশোদের জন্য সৌদি সরকারের অনুমোদন নিয়ে একটি ব্যাংক হিসাব চালু করেছে আপস কমিটি। এছাড়া আপস কমিটির সদস্যরা ব্যক্তিগতভাবে আর্থিক সহযোগিতারও আশ্বাস দিয়েছেন। 

আপস কমিটি বলছে, বাংলাদেশি নয় একজন মুসলমান হিসেবে আলী প্রধানে পাশে দাঁড়িয়েছেন তারা।

যেকোনো দানবীর,ধনাঢ্য বাংলাদেশি চাইলে আলী প্রধানের জন্য সাহায্য পাঠাতে পারেন। 

ব্যাংক হিসাবের নাম ‘ডোনেশন অব ব্লাড মানি অব আব্দুল আজীজ বদর আল সালেম’ হিসাব নাম্বার ১০৪৬০৮০১০৬১৩৩০০ আল রাজী ব্যাংক। আইবান নাম্বার এসএ ২৩৮০০০০১০৪৬০৮০১০৬১৩৩০০। 

বাংলাদেশ সময়: ২৩২৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৫, ২০১৬
পিসি/
 

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

প্রবাসে বাংলাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2016-10-15 13:42:00