ঢাকা, রবিবার, ২৮ আষাঢ় ১৪২৭, ১২ জুলাই ২০২০, ২০ জিলকদ ১৪৪১

লন্ডন

‘দ্বৈত নাগরিকত্ব আইন-২০১৫ প্রবাসী স্বার্থ বিরোধী’

সৈয়দ আনাস পাশা, স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৬-০৫-০৭ ১২:৪২:৫০ পিএম
‘দ্বৈত নাগরিকত্ব আইন-২০১৫ প্রবাসী স্বার্থ বিরোধী’ ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

লন্ডন: গত বছর মন্ত্রিপরিষদে পাশ হওয়া প্রস্তাবিত দ্বৈত নাগরিকত্ব আইন-২০১৫ তে প্রবাসী স্বার্থ বিরোধী ধারা রয়েছে।   এমন অভিযোগ করে এ ধারার বিকল্প প্রস্তাব নিয়ে শিগগিরই লন্ডন থেকে বাংলাদেশে আসছে একটি প্রতিনিধি দল।

রোববার (০৩ জুলাই) পূর্ব লন্ডনের একটি রেষ্টুরেন্টে ‘একটি নাগরিক উদ্যোগ’  নামের একটি ব্যানারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান উদ্যোক্তারা।

লন্ডন ভিত্তিক বাংলা টেলিভিশন চ্যানেল-এস এর হেড অব নিউজ কামাল মেহেদীর স্বাগত বক্তব্যের মাধ্যমে শুরু হয় সংবাদ সম্মেলন।

কামারা মেহেদী বলেন, বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের আসন্ন অধিবেশনে উত্থাপনের লক্ষ্যে গত বছর মন্ত্রিপরিষদে গৃহিত প্রস্তাবিত দ্বৈত নাগরিকত্ব আইনে প্রবাসী স্বার্থ বিরোধী কিছু ধারা রয়েছে। এগুলো নিয়ে কথা বলতে লন্ডন থেকে একটি প্রতিনিধি দল বাংলাদেশে যাচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে এ ব্যাপারে বিস্তারিত ব্যাখ্যা দেন বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব ও টেলিভিশন সংবাদ পাঠিকা ডা. জাকি রেজওয়ানা আনোয়ার ও বিশিষ্ট আইনজীবী ব্যারিষ্টার নজরুল খসরু।

‘একটি নাগরিক উদ্যোগ’ এর পক্ষে তারা বলেন, প্রবাসী স্বার্থ বিরোধী বিতর্কিত কিছু ধারাসহ এই আইন পাশ হলে বাংলাদেশের সঙ্গে প্রবাসীদের সম্পর্ক ছিন্ন হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

তারা বলেন, এই আইনের একটি ধারায় আছে বাংলাদেশের কোনো নাগরিক যদি বিদেশের নাগরিকত্ব গ্রহণ করেন তাহলে তার বাংলাদেশের নাগরিকত্ব চলে যাবে এবং নির্ধারিত নিয়ম মেনে বাংলাদেশের নাগরিকত্বের জন্যে তাদের নতুন করে আবেদন করতে হবে। আইনে আরও রয়েছে বিদেশি নাগরিকত্ব গ্রহণকারী কেউ বাংলাদেশের কোনো নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না।

‘একটি নাগরিক উদ্যোগ’ নেত‍ারা বলেন, নতুন এই দ্বৈত নাগরিকত্ব আইনে আমাদের দ্বিতীয় প্রজন্মের পর তৃতীয় প্রজন্মের বাংলাদেশের নাগরিক হওয়া কঠিন করে দেয়া হয়েছে। জন্মসূত্রে আমরা বাংলাদেশের নাগরিক হওয়ায় আমাদের সন্তানরা নাগরিকত্ব পেলেও যেহেতু জন্মসূত্রে তারা বাংলাদেশের নাগরিক নন, সেহেতু তাদের সন্তানদের বাংলাদেশের নাগরিকত্ব পাওয়ার সুযোগ জটিল করে দেয়া হয়েছে এই আইনে।
উল্লেখ্য, গত বছর মন্ত্রিপরিষদে এই আইনটি পাশ হওয়ার পর এর কিছু প্রবাসী স্বার্থ বিরোধী ধারা ব্যাপকভাবে নাড়া দেয় ব্রিটেন প্রবাসীদের। চলতি বছরের মে মাসে এর প্রতিবাদে একটি গোল টেবিল বৈঠকও হয় লন্ডনে। ঐ বৈঠকেই বিতর্কিত ধারাগুলোর বিকল্প হিসেবে নতুন সুপারিশ তৈরির দায়িত্ব দেওয়া হয় এক্সপার্টদের। আর তাদের তৈরি বিকল্প সুপারিশ নিয়েই আসন্ন সংসদ অধিবেশনের আগেই ঢাকা যাচ্ছে এই প্রতিনিধি দল।

বাংলাদেশ সময়: ১২৩২ ঘণ্টা, জুলাই ০৫, ২০১৬
বিএস

 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa