[x]
[x]
ঢাকা, বুধবার, ২৯ কার্তিক ১৪২৫, ১৪ নভেম্বর ২০১৮
bangla news
কুয়েত থেকে জাহিদুর রহমান

আরব্য রজনীর আরেক উপাখ্যান ওফা-সেলিমের প্রেম!

|
আপডেট: ২০১৫-১২-২৮ ১০:১৭:০০ পিএম
ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বয়স প্রায় ৬০। নিজেই বলেন, বিচরণ করছেন জীবনের শেষ অধ্যায়ে। মরুভূমির বুকে তার অর্জন পাহাড়সহ। কুয়েতে দৈত্যাকার বহু প্রকল্পের রূপকার তিনি নিজে। কিন্তু হৃদয়ে তার মরুভূমি। ধু ধু বালুচর।

আবদুল্লাহ  মোবারক (কুয়েত) থেকে: বয়স প্রায় ৬০। নিজেই বলেন, বিচরণ করছেন জীবনের শেষ অধ্যায়ে। মরুভূমির বুকে তার অর্জন পাহাড়সম। কুয়েতে দৈত্যাকার বহু প্রকল্পের রূপকার তিনি নিজে। কিন্তু হৃদয়ে তার মরুভূমি। ধু ধু বালুচর।

সেই মরুর হৃদয়ে প্রতিনিয়তই আছড়ে পড়ে পারস্য সাগরের ঢেউ। স্মৃতিতে আছড়ে পড়া  সেই ঢেউ এসে ভিজিয়ে দেয় দুটি চোখ।

এ যেন আরব্য রজনীর আরেক উপাখ্যান। বাংলাদেশির সঙ্গে এরাবিয়ান নারীর প্রেম। পরিণতি লুকিয়ে বিয়ে। শেষ পর্যন্ত বিয়োগান্তক বিচ্ছেদ। তারপরও শেষ নয়। বয়ে চলে অনন্য ভালোবাসার এক উপাখ্যান।

মরুর বুকে তেমনিই প্রেমের অনন্য এক উপাখ্যান এখনো হৃদয়ে সযত্নে লালন করছেন চট্টগ্রামের সৈয়দ মোহাম্মদ সেলিম (৫৭)।  দেশটির অন্যতম শীর্ষ অবকাঠামো নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বাহার আল খালিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক।

খোদ কুয়েতিরাই তাকে সমীহ করেন। অনেক ধনাঢ্য কুয়েতি ব্যবসায়ী তার বন্ধু, ব্যবসায়িক অংশীদার। অথচ এক কুয়েতি নারীর ভালোবাসার মূল্য দিতে এই কুয়েতেই তাকে জেল খাটতে হয়েছে। আঘাতে আঘাতে জর্জরিত হয়ে জীবনে কঠিন মূল্যও গুনতে হয়েছে সে সময়ের টগবগে তরুন সেলিমকে। 

সাদাসিধে, ছিমছাম জীবন তার। বিনয় আর দ্রুত মানুষকে আপন করে নেওয়ায় প্রবাসীদের কাছে তার তুলনা তিনি নিজেই।

চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলার গহিরা গ্রামের খান বাড়ির ছেলে সৈয়দ মোহাম্মদ সেলিম। বাবা মরহুম সৈয়দ আলী খান। মেরিন একাডেমি থেকে ১৯৭৬ সালে নেভিগেশন নটিক্যাল সায়েন্সে উচ্চশিক্ষা সম্পন্ন করেন। যোগ দেন যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যিক কনটেইনারবাহী বনু-বে নামের মার্চেন্ট শীপে।

ক্যাডেট অফিসার পদ দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু মোহাম্মদ সেলিমের। নীল সাগর আর মহাসাগরে ভেসে ভেসে নিজের মেধা আর দক্ষতায় পৌঁছে যান চিফ কমিউনিকেশন অফিসারের পদে। ততোদিনে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের গ্রিনকার্ডধারী। নিউইয়র্ক সমুদ্রবন্দরে জাহাজ ভিড়িয়েছেন। ব্রুকলিনের রাস্তায় একদিন প্রাত:ভ্রমণে দেখা হয় কুয়েতি বন্ধু আবেদ জাবেরের সঙ্গে। তার পীড়াপীড়িতে চলে আসেন কুয়েতে। যুক্ত হন পাওয়ার স্টেশন নির্মাণ প্রকল্পে। তার পর যুক্ত হন একের পর এক নির্মাণ শিল্পে।

এর সুবাদে ধনাঢ্য একটি পরিবারের বাড়ি তৈরির কাজ পান তিনি। সেই বাড়ির রূপসী কন্যা ওফা আর মুতাইরির বয়স তখন মাত্র ২২। সেই মেয়েটিই দিওয়ানা হয়ে যান সেলিমের জন্য। সময়টা ১৯৮২। প্রেম আর বিয়ের ব্যাপারে বেশ রক্ষণশীল আরব। তখনকার রক্ষণশীলতার কথা সবারই জানা। নিজ গোত্রের বাইরে বিয়ে নিয়েও রয়েছে নানা ধরনের জটিলতা। এমনকি কুয়েতি নারী অন্য দেশের কোনো নাগরিককে বিয়ে করলেও তাকে মেনে নেয় না এখানকার পরিবার। সম্পর্ক চিরতরে বিচ্ছিন্ন করার নজির-ও রয়েছে অনেক। এছাড়াও কুয়েতি কোনো নারী ভিন্ন কোনো দেশের পুরুষকে বিয়ে করলেও মেলেনা তার স্বামীর নাগরিকত্ব। সন্তানরাও পায়না রাষ্ট্রীয় সুযোগ সুবিধা।

সেলিম আর কি করবেন। ওফার ভালোবাসার মূল্য দিতে গিয়ে নিজেই পড়লেন মহা বিপদে। পারিবারিক প্রথা ভঙ্গ করায় ওফার ভালোবাসা মেনে নিতে পারেনি কেউই। বাঁধা হয়ে দাড়াঁয় ওফার পরিবার ও তার চাচাতো ভাইরা।

তারপর ওফাকে গোপনে বিয়ে করার খেসারত হিসেবে পরিবারের করা মিথ্যে মামলায় জেলে যেতে হয় সেলিমকে।

সেখানেও পাগলের মতো ছুটে যান ওফা। জেল থেকে মুক্ত হয়েও মেলেনি স্বস্তি। একের পর এক শারিরীক আক্রমন আসে তার ওপর। পরিবারের সদস্যদের হামলায় রক্তান্ত হন তিনি। এক পর্যায়ে তাকে প্রাণ বাঁচাতে পরামর্শ দেওয়া হয় সৌদি আরব চলে যাবার। সেই হুংকার আর ভয়ভীতি সত্বেও কুয়েত ছাড়েন নি তিনি।

শেষ পর্যন্ত ওফাকে জিম্মি করে তার পরিবার। সাফ কথা জানিয়ে দেওয়া হয়। সেলিমের সঙ্গে সম্পর্ক রাখলে এর খেসারত দিতে হবে কেবলমাত্র সেলিমকেই। সেটা প্রাণের বিনিময়ে। গুপ্ত ঘাতকরা কেড়ে নেবে তার প্রাণ।

ভালোবাসা বোধহয় একেই বলে। প্রেম আর ভালোবাসার প্রিয় মানুষটির জীবন রক্ষার্থে ওফা সেলিমের সঙ্গে পরামর্শ করেই আনুষ্ঠানিক ভাবে ইতি টানেন সম্পর্কের। কিন্তু হৃদয় থেকে কি সেই সম্পর্ক মোছা যায়!

সেই ওফার পীড়া পীড়িতেই চার বছর বাদে সেলিম বিয়ে করেন ফিলিপিনো নাগরিক প্রকৌশলী লিয়া কাস্টিলোকে। স্ত্রীকে খুলে বলেন, নিজের জীবনে আসা আরব নারীর প্রেম আর বিয়োগান্তক ভালোবাসার কথা।

ওফা নেই। তাতে কি। সম্মানের সঙ্গে তাকে লালন করেন নিজের পরিবারে। স্ত্রী লিয়া কাস্টিলোর সম্মতিতেই তার নাম দেন ওফা। সেই নামেই এখনো ডাকেন তাকে।

ওফার দিকের কষ্টগুলো আমি এখনো অনুভব করি। ওর ভালোবাসা আসলেই খাঁটি। ভালোবাসার আরেক নামই তো ত্যাগ। আমার জীবনের জন্যে সে তার ভালোবাসাকে বিসর্জন দিয়েছে। ভালোবাসার অনন্য উদাহরণ তৈরি করেছে এই মরুভূমির বুকে।

তখনো বিয়ে করেনি। আমার সন্তানদের মনে করেছে নিজের সন্তানের মতো। আদরে অনেক উপহার পাঠিয়েছে। এমনকি ওদের নামগুলোও রেখেছে ওফা। যোগ করেন সেলিম। বর্তমানে ওফা একটি সরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন।

আরব্য রজনীর গল্পগুলোর মাঝে “শিরি ফরহাদ, লাইলি-মজনুর’’ মতো আরব্য রজনীর লোককাহিনীর সঙ্গে যুক্ত হলো ওফা-সেলিমের ত্যাগ আর ভালোবাসার আরেক কাহিনী। যে চরিত্রের রাজকুমার বাংলাদেশের সৈয়দ মোহাম্মদ সেলিম। আর রাজকুমারী ওফা এখন কেবলই স্মৃতির পাতায়।

বাংলাদেশ সময়: ০৯১৯ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৯, ২০১৫
বিএস

** বাংলাদেশকে বদলে দিতে চান কুয়েতের ‘প্রিন্স’
** মরুতেও খাঁটি, দেশেই বিষ
** দিওয়ানিয়ায় দিওয়ানা
** তপ্ত মরুতে বাংলার আর্তনাদ
** রাজনীতিতেই যত সুখ!
** কুয়েতে ‘অ, আ, ক, খ’
** ‘ডাখা মাত্রই ফাওয়া যায়’

** ‘পচা’ শব্দটাই নিষিদ্ধ যেখানে
** ভালো নেই মরু জাহাজের নাবিকরা
** গৃহশ্রমের বাজারের হর্তাকর্তা দুই মোল্লা
** মরুর বুকে ধূসর জীবন
** ত্যাগে শীর্ষে ইমেজে পেছনে
** মরেও শান্তি নেই কুয়েতে!
** কুয়েতের রক্তচোষা মানুষ
** কুয়েতে রচনার বাংলাদেশ রচনা
** গাড়ি নতুন, ফোন পুরনো!
** ‘আঁততে আর বাংলাদেশত যাইতাম মনে ন হ’
** ব্যাডা মাছ, বেডি মাছ!
** ‘ধরা পড়লে রক্ষা নেই, কুয়েত থাকার সুযোগ নেই’
** কুয়েতে একখণ্ড ‘বাংলাদেশ’ বাংলা মার্কেট
** কুয়েতের রাজধানী
** সবার উপর দেশ
** কুয়েতে সবাই এমপি!
** সেই ‘ছোট মানুষটিই’ কুয়েতের বড় ব্যবসায়ী
** কুয়েতের বাতাসে ধ্বনিত হয় বাংলা
** কুয়েতের ডাক্তার আপা
** ‘জীবন যুদ্ধ কইত্যে কইত্যে একটা জায়গায় পৌঁছাইছি’
** কুয়েতে তথ্য প্রযুক্তি খাতে সেনা পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ
** আইনে নেই, তবুও বেআইনি চর্চা
** পরিবেশ পেলে বিনিয়োগ যাবে কুয়েত থেকে
** কুয়েতের জন্যে বাংলাদেশের আত্মত্যাগ
** কুয়েত পুনর্গঠনে বাংলাদেশ
**  কুয়েতে বাংলাদেশের ‘প্রিন্স’ সহিদ
** হয়রানি ও নাজেহালের শিকার হচ্ছেন প্রবাসীর
** অলিদের বঞ্চনা দেখার কেউ নেই
** শিল্প-সাহিত্যেও পিছিয়ে নেই প্রবাসীরা
** বাংলাদেশিদের কাজের ঠিকানা সুলাইবিয়ার ফল-সবজির বাজারও
** পরিবর্তনের দূত মেজর জেনারেল আসহাব উদ্দিন
** কুয়েতে মানবতার ফেরিওয়ালারা!
** সততা আর নিষ্ঠা থাকলে ঠেকায় কে?
** মরুর বুকে বুকভরা নিঃশ্বাস
** শ্রমিকদের মাথার মুকুট আব্দুর রাজ্জাক
** আরব সাগর থেকে হিমেল বাতাসে ভর করে এলো ছন্দ
** মরুর কুয়েত সবুজ চাদরে ঢাকছেন নাফিস জাহান
** ফেব্রুয়ারিতেই খুলনার মারুফের জীবনে আসছে পূর্ণতা!
** কুয়েতে গুলশান!
** কুয়েতের অ্যাম্বাসেডর!
** জন্ম কুয়েতে, হৃদয় বাংলাদেশের
** সূর্য ওঠার আগেই ঘুম ভাঙে চট্টগ্রামের শাহজাহানের
** ধূসর মরুভূমিতে সবুজ স্বপ্ন!

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

প্রবাসে বাংলাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache