ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ আষাঢ় ১৪২৬, ২৫ জুন ২০১৯
bangla news
বাংলাদেশের অন্য বিজয়

ট্যুরিজম ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে ৫ অ্যাওয়ার্ড

924 |
আপডেট: ২০১৫-০৬-১৯ ১২:৪০:০০ এএম
ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ট্যুরিজম বিষয়ক আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ‘ফিল্মিএট’-এ মোট পাঁচটি অ্যাওয়ার্ড জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ। একদিকে ভারতের সঙ্গে ম্যাচ জিতে বাংলাদেশ বিশ্বে নিজেদের অবস্থান আরো শক্ত করলো। অন্যদিকে, ট্যুরিজম নিয়ে নির্মিত তথ্যচিত্র- ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’ ছিনিয়ে এনেছে ট্যুরিজম বিষয়ক আন্তর্জাতিক...

ওয়ারশ, পোল্যান্ড থেকে: ট্যুরিজম বিষয়ক আন্তর্জাতিক ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল ‘ফিল্মিএট’-এ মোট পাঁচটি অ্যাওয়ার্ড জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ।

একদিকে ভারতের সঙ্গে ম্যাচ জিতে বাংলাদেশ বিশ্বে নিজেদের অবস্থান আরো শক্ত করলো। অন্যদিকে, ট্যুরিজম নিয়ে নির্মিত তথ্যচিত্র- ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’ ছিনিয়ে এনেছে ট্যুরিজম বিষয়ক আন্তর্জাতিক ফিল্ম ভেস্টিভ্যাল -‘ফিল্মিএট’ থেকে পাঁচটি অ্যাওয়ার্ড। এ আরেক বিজয় বাংলাদেশের।

পাঁচটির মধ্যে চারটি পেয়েছে- বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের অর্থায়নে নির্মিত তথ্যচিত্র ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’ এবং বাকি একটি নিউইয়র্কভিত্তিক বাংলাদেশি টিভি চ্যানেল টিভিএন২৪।

ট্যুরিজম বোর্ডের অর্থায়নে বাংলাদেশের প্রখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা গিয়াস উদ্দিন সেলিম নির্মিত ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ-ল্যান্ড অব রিভার’-এর জন্য অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়েছে তিনটি।

একটি ট্যুরিজম বোর্ড, একটি নির্মাতা এজেন্সি ও আরেকটি তথ্যচিত্রের বেস্ট মিউজিকের জন্য।

মিউজিক ক্যাটাগরিতে ‘ল্যান্ড অব রিভার’- এর মিউজিক ইন্ডিয়াসহ সারা বিশ্বের সব প্রতিযোগী তথ্যচিত্রের মধ্যে সেরা হিসেবে নির্বাচিত হওয়ায় বেস্ট মিউজিক ক্যাটাগরি অ্যাওয়ার্ডও লাভ করে ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ-ল্যান্ড অব রিভার’।

পাঁচটির মধ্যে বাকি দুটো অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ স্কুল অব লাইফ (১০ মিনিট) নির্মাতা এবং টিভিএন২৪-এর ইউরোপ ডিরেক্টর মইনুল হোসেন মুকুল।

মইনুলের এ দুটোর মধ্যে ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’ মূল অ্যাওয়ার্ডটি বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড পায় ২০১২ সালে। অ্যাওয়ার্ড প্রদানের অনেক পর তথ্যচিত্রটির নির্মাতা হিসেবে মইনুল হোসেন মুকুলকে আবিষ্কার করে ‘ফিল্মএট’।

আর তাই এবারের ফেস্টিভ্যালে তার কর্মের স্বীকৃতি হিসেবে ‘স্পেশাল অ্যাওয়ার্ড’-এ ভূষিত করা হয়।

বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের ১০ মিনিটের এই তথ্যচিত্রটি রেড ডট প্রোডাকশনের অধীনে নির্মাণ করেছেন নির্মাতা মঈনুল হোসেন মুকুল।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় রাত ১০টায় (বাংলাদেশ সময় রাত ২টা) ওয়ারশ’র প্রেস্টিজিয়াস হোটেল ‘বৃস্টল’-এ এক আড়ম্বপূর্ণ গালা ডিনারে এই অ্যাওয়ার্ড দেওয়া হয়।

বিশ্বের মোট ৩৫টি দেশের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন এই অনুষ্ঠানে। বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের পক্ষে অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেন পোল্যান্ডে দায়িত্বরত বাংলাদেশের অনারারি কনসাল মোহাম্মদ ওমর ফারুক এবং ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ-স্কুল অব লাইফ’ (১০ মিনিট)-এর তথ্যচিত্র নির্মাতা ও টিভিএন২৪-এর ডিরেক্টর, ইউরোপের মইনুল হোসেন মুকুল।

বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিশ্বের আরো কয়েকটি দেশ ফিল্মএট ফেস্টিভ্যালে অ্যাওয়ার্ড পেলেও বাংলাদেশের অ্যাওয়ার্ডই ছিল সবচেয়ে আলোচিত। প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের সব মিউজিক পেছনে ফেলে বাংলাদেশ সেরা মিউজিক অ্যাওয়ার্ড ছিনিয়ে নেওয়ায় প্রতিযোগীদের মধ্যে এ নিয়ে ছিল বেশ আলোচনা।

এদিকে, ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’-কে অনুকরণ করে ‘পোল্যান্ড ইজ বিউটিফুল’ নির্মিত হওয়ায় বাংলাদেশ এখন ‘ট্যুরফিল্মের অনুপ্রেরণা’ এমন আলোচনাও হয় খোদ ফেস্টিভ্যাল কর্মকর্তাদের মধ্যে।

অ্যাওয়ার্ড বিতরণ শেষে সংবাদমাধ্যমগুলোকে দেওয়া এক প্রতিক্রিয়ায় ‘ফিল্মএট’ ফেস্টিভ্যাল ইভা কুটুস বলেন, বিশ্ব পর্যটন শিল্পে বিপ্লব ঘটানোর মতো পর্যটন স্পট রয়েছে বাংলাদেশে, যা ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’ তথ্যচিত্র বিশ্বের কাছে উপস্থাপন করতে পেরেছে।

জুরি বোর্ডের চেয়াম্যান অস্কার বিজয়ী প্রযোজক বিগনেফ ঝুমুতসকি’র মতে, ভ্রমণ পিপাসুদের কাছে বাংলাদেশ এখন উদীয়মান পর্যটন স্পট।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ এমন প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের অধিকারী একটি দেশ, যা ভ্রমণপিপাসুদের অনেকেই জানতেন না; যদি ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’ ফিল্মএট ফেস্টিভ্যালে না আসতো।

তিনি বলেন, আমি কোনো দিন বাংলাদেশে না গেলেও বন্যা ও পানির দেশ হিসেবেই এটির নাম শুনেছি। কিন্তু ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’-এর কারণে আমি এখন জানতে পেরেছি, আসল বাংলাদেশ সম্পর্কে।

ইন্টারন্যাশনাল কমিটি অব ট্যুরিজম ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল (cuffs) পরিচালক আলেক্সজান্ডার ভি কামমেলও অ্যাওয়ার্ড বিতরণ পরবর্তী প্রতিক্রিয়ায় বাংলাদেশ নিয়ে তার উচ্ছ্বাসের কথা জানান।

তিনি বলেন, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যের অধিকারী এমন সুন্দর একটি পর্যটন স্পট থেকে এতদিন বঞ্চিত ছিলেন ভ্রমণপিপাসুরা। তাদের এই বঞ্চনার এবার অবসান ঘটাবে- ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’।

বিউটিফুল বাংলাদেশ-স্কুল অব লাইফ (১০ মিনিট) সম্পর্কে অকুন্ঠ প্রশংসা করলেও ল্যান্ড অব রিভারের একটি শর্টে হ্যালথ অ্যান্ড সেইফটির বিষয় নিয়ে নিজের ভাবনা জানান কামমেলও।

তিনি বলেন, তথ্যচিত্রের একটি শর্টে উচু ব্রিজ থেকে বাচ্চাদের লাফিয়ে নদীতে পড়ার দৃশ্য ধারণ করেছেন নির্মাতা। এই দৃশ্যটি পর্যটকদের নিরাপত্তা বিষয়টি নিয়ে ভাবাতে পারে।

অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ শেষে পোল্যান্ডে বাংলাদেশের অনারারি কনসাল ওমর ফারুক বলেন, ট্যুরফিল্মে এই অ্যাওয়ার্ড বাংলাদেশের আরেকটি অর্জন। এই অ্যাওয়ার্ড পর্যটন শিল্পের উদীয়মান বাঘ হিসেবেই ভ্রমণপিপাসুদের সামনে এখন বাংলাদেশকে তুলে ধরবে।

‘বিউটিফুল বাংলাদেশ-স্কুল অব লাইফ’ (১০ মিনিট) নির্মাতা ও টিভিটনে২৪-এর ইউরোপ ডিরেক্টর মইনুল হোসেন মুকুল বলেন, আজকের দিনটি বাংলাদেশের জন্য খুবই শুভ ছিল। আমাদের টাইগাররা ক্রিকেটে ভারতকে হারিয়ে দিনের যে শুভ সূচনা করেছিল, ট্যুরফিল্মে পাঁচ পাঁচটি অ্যাওয়ার্ড জিতে সেই সূচনার ষোলকলা পূর্ণ হলো দিনশেষে।

তিনি বলেন, বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অর্জনের যে ধারাবাহিকতা চলছে, তাতে সর্বশেষ সংযোজন ‘ফিল্মএট’-এর এই অ্যাওয়ার্ড। একজন ছোটখাটো নির্মাতা হিসেবে আমি আজ আনন্দিত ও গর্বিত।


বাংলাদেশ সময়: ১০৪০ ঘণ্টা, জুন ১৯, ২০১৫
এমএ/এবি

** ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’ ভুল ধারণা ভেঙে দিয়েছে
** বিউটিফুল বাংলাদেশ: প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের বাংলাদেশ
** ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ-বিউটিফুল চায়না’ আর্ট কম্পিটিশন
** দেখুন নদীমাতৃক ‘বিউটিফুল বাংলাদেশ’ (ভিডিও)
** বাংলাদেশ এখন বিশ্ব ট্যুরফিল্মেরও অনুপ্রেরণা

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

প্রবাসে বাংলাদেশ বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
db 2015-06-19 00:40:00