ঢাকা, সোমবার, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৩ আগস্ট ২০২০, ১২ জিলহজ ১৪৪১

প্রবাসে বাংলাদেশ

ফিনল্যান্ডে একুশে টিভির যুগপূর্তি উৎসব

নূরের জামান ভূঁইয়া, ফিনল্যান্ড থেকে | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১২-০৪-১৮ ০৭:৫৪:০০ এএম
ফিনল্যান্ডে একুশে টিভির যুগপূর্তি উৎসব

হেলসিঙ্কি : বর্ণিল আয়োজনের মধ্য দিয়ে একুশে টেলিভিশনের এক যুগ পূর্তি উৎসব উদযাপিত হয়েছে ফিনল্যান্ড এর রাজধানী হেলসিঙ্কিতে।

গত ১৬ এপ্রিল হেলসিঙ্কির একটি পার্টি সেন্টারে একুশে ফোরাম ফিনল্যান্ড আয়োজিত বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

এরপরই একুশের একযুগ পূর্তি উপলক্ষে কাটা হয় বিশাল দুটি কেক।

একুশে টেলিভিশনের ফিনল্যান্ড প্রতিনিধি জাহিদ লিঙ্কনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শুভেচছা বক্তব্য রাখেন সংবাদ২১ ডটকম সম্পাদক নুরুজ্জামান ভূঁঞা। তিনি বলেন, পরিবর্তনের অঙ্গীকার নিয়ে যাত্রা শুরু করা একুশে টেলিভিশন ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সংবাদ ও অনুষ্ঠান পরিবেশনে ভিন্নতাসহ টেলিভিশন মিডিয়াকে গণমানুষের কাছে জনপ্রিয় করে তুলেছে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত কামরুল হাসান জনি বলেন, বাংলাদেশে সম্প্রচার সাংবাদিকতায় একটা বৈপ্লবিক পরিবর্তন শুরু হয়েছিল একুশে টিভির মাধ্যমে। দেশের প্রত্যন্ত গ্রামে গ্রামে ঘুরে মানুষের দুঃখ-দুর্দশা, সমস্যা তুলে ধরে আনে ইটিভি। এছাড়া বস্তুনিষ্ট সংবাদ প্রদান এবং মাণসম্পন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে একুশে টিভি দেশের সীমানা পেরিয়ে এখন প্রবাসেও জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। তার পর শুরু হয় আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

মোবিন মোহাম্মাদ বলেন, একুশে টেলিভিশন বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ ও মানসম্পন্ন অনুষ্ঠানমালা পরিবেশনার মাধ্যমে আজো তার স্বতন্ত্র অবস্থান বজায় রাখতে সক্ষম রয়েছে। শত বাধা-বিপত্তি উপেক্ষা করেও একুশে তার গন্তব্যে এগিয়ে চলছে। ডা. মামুন উর রশীদ বলেন, একুশ মানে কারো কাছে মাথা না নোয়ানো। যেন কারো কাছে মাথা নোয়াতে না হয় দর্শকরা তাদের অব্যাহত অকুন্ঠ সমর্থনের মাধ্যমে একুশকে সে প্রেরণা যুগিয়ে যাবে সবসময়।

মাহমুদুল হাসান বলেন, একুশে টেলিভিশনের মৌলিকতা ছিল টেরিস্টেরিয়াল। টেরিস্টেরিয়ালে সম্প্রচারের অনুমতি ফিরে না ফেলেও অনলাইনে ফ্রি সম্প্রচারের মাধ্যমে বিশ্বব্যাপি ছড়িয়ে পড়ার মাধ্যমে একুশ তার মৌলিকতা ফিরে পেয়েছে। পেয়েছে নব উদ্যম।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্হিত ছিলেন জহিরুল আলম নজরুল, ইমাম হোসেন পাভেল, প্রদীপ কুমার সাহা, এজাজুল হক রুবেল, রিপন, হিমেল, সাজ্জাদসহ প্রবাসী বাংলাদেশি ব্যবসায়ী ও রাজনীতিবিদরা। পরে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

বাংলাদেশ সময় : ০৭৪৫ ঘণ্টা, ১৮ এপ্রিল, ২০১২

সম্পাদনা : আহ্সান কবীর, আউটপুট এডিটর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa