ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৭, ১১ আগস্ট ২০২০, ২০ জিলহজ ১৪৪১

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

রূপপুরের যন্ত্রপাতি প্রস্তুত, শিপমেন্টে অগ্রগতি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০২৩৮ ঘণ্টা, নভেম্বর ২১, ২০১৯
রূপপুরের যন্ত্রপাতি প্রস্তুত, শিপমেন্টে অগ্রগতি

ঢাকা: রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রপাতি প্রস্তুত ও উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে। বেশ কিছু যন্ত্রপাতি ইতোমধ্যে বাংলাদেশে পৌঁছেছে। কিছু সংখ্যকের শিপমেন্ট হয়েছে এবং বাকিগুলোর নির্মাণ প্রক্রিয়াধীন।

নির্ধারিত সময়েই রূপপুর প্রকল্পের কাজ শেষ করতে বিভিন্ন যন্ত্রপাতি নির্মাণ ও স্থাপনের কাজ এগিয়ে চলছে। সময়ের কথা বিবেচনায় নিয়ে রাশিয়ায় পুরোদমে এগিয়ে চলছে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রপাতি, যন্ত্রাংশের নির্মাণ কার্যক্রম।

বুধবার (২০ নভেম্বর) রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় পারমাণবিক শক্তি করপোরেশন রোসাটমের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। রোসাটম এই প্রকল্পাটি বাস্তবায়ন করছে।

এতে বলা হয়, প্রকল্পের প্রথম ইউনিটের রিয়্যাক্টর প্রেসার ভেসেলের লোয়ার সেমি-ভেসেলের সংযোজন কাজ সম্পন্ন হয়েছে রুশ প্রতিষ্ঠান এটোমাশের এইএম টেকনোলজির অন্তর্ভুক্ত ভলগাদন্সক শাখায়। রোসাটমের প্রকৌশল শাখা এটমএনার্গোমাশের একটি অংশ এটোমাশ।

রিয়্যাক্টর কোরের হেড এবং শেলের সংযোজনের পর জয়েন্টের ওয়েল্ডিং এবং প্রয়োজনীয় হিট-ট্রিটমেন্ট করা হচ্ছে। প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হলে ইতোমধ্যে প্রস্তুতকৃত আপার সেমি-ভেসেলের সঙ্গে এটিকে সংযুক্ত করা হবে।

রিয়্যাক্টর মূলত একটি খাড়া সিলিন্ডার আকৃতির কাঠামো এবং এর তলদেশ উপবৃত্তাকার। এর ভেতরেই অবস্থান করে রিয়্যাক্টরের কোর এবং অন্য যন্ত্রপাতি। রিয়্যাক্টর ভেসেলের উপরিভাগে কুল্যান্ট বা শীতলকারী পদার্থ প্রবাহের জন্য ইনলেট এবং আউটলেটের পাশাপাশি জরুরি অবস্থায় কুল্যান্ট সরবরাহের জন্য ও ইনলেট পাইপের ব্যবস্থা রয়েছে।

অন্যদিকে, এটমএনার্গোমাশের অপর একটি শাখা জিও-পাডলস্ক টার্বাইন হলের জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতির প্রথম লটটি নির্মাণের পর সম্প্রতি রাশিয়া থেকে শিপমেন্ট করেছে। এসব যন্ত্রপাতির মধ্যে রয়েছে ময়েশ্চার সেপারেটর- রিহিটার (এমএসআর)। শিপমেন্টের মোট ওজন ২১১ টন এবং এসব যন্ত্রপাতির সার্ভিস লাইফ ৫০ বছর। প্রতিষ্ঠানটি গত মাসে রিয়্যাক্টর প্ল্যান্ট প্রেসারাইজার সিস্টেমের একটি অন্যতম অংশ বাবলার ট্যাংক শিপমেন্ট করেছে, যা শিগগির রূপপুর সাইটে এসে পৌঁছাবে।

এমএসআর-এর কাজ হলো- টার্বাইনের উচ্চচাপ সিলিন্ডারে আদ্র বাষ্পকে আদ্রতামূক্ত ও পুনরায় উত্তপ্ত করা। এমএসআর একটি খাড়া যন্ত্র যা তিনটি অংশের সমন্বয়ে গঠিত। টার্বাইন প্ল্যান্টের বাষ্প প্রস্তুতকারী সিস্টেমের এটি একটি অংশ।

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের রিয়্যাক্টর হলের জন্য প্রয়োজনীয় সব যন্ত্রপাতির একমাত্র সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে কাজ করছে এটমএনার্গোমাশ। টার্বাইন হলের যন্ত্রপাতির একটি বড় অংশও সরবরাহ করছে প্রতিষ্ঠানটি।

রুশ নকশা অনুযায়ী নির্মিত হচ্ছে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প। প্রকল্পটিতে প্রতিটি ১২০০ মেগা-ওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন দু’টি ইউনিট থাকবে। প্রতিটি ইউনিটে স্থাপিত হবে সর্বাধুনিক ৩+ প্রজন্মের ভিভিইআর-১২০০ রিয়্যাক্টর।

বাংলাদেশ সময়: ২১৩৭ ঘণ্টা, নভেম্বর ২০, ২০১৯
এসকে/এইচএডি/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa