bangla news

হবিগঞ্জে শিগগিরই নির্মাণ হচ্ছে বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১০-২৫ ২:৫৪:৩৩ পিএম
বিদ্যৎ উপকেন্দ্রের স্থান পরিদর্শন করছেন এমপি আবু জাহিরসহ কর্মকর্তারা। ছবি: বাংলানিউজ

বিদ্যৎ উপকেন্দ্রের স্থান পরিদর্শন করছেন এমপি আবু জাহিরসহ কর্মকর্তারা। ছবি: বাংলানিউজ

হবিগঞ্জ: হবিগঞ্জ শহরের আধুনিক স্টেডিয়াম সংলগ্ন এলাকায় শিগগিরই নির্মাণ হচ্ছে ৩৩/১১ কেভি নতুন বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র। এটি চালু হলে এলাকার লো ভোল্টেজ সমস্যার সমাধানসহ নিশ্চিত হবে মানসম্মত বিদ্যুৎ সরবরাহ।

শুক্রবার (২৫ অক্টোবর) নির্মিতব্য উপকেন্দ্রের স্থান পরিদর্শন করেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য এবং হবিগঞ্জ-৩ আসনের এমপি অ্যাডভোকেট মো. আবু জাহির। 

এ সময় হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মর্জিনা খাতুন, প্রকল্প পরিচালক কেএম নাজিম উদ্দিন, হবিগঞ্জ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শামীম ফরহাদসহ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

হবিগঞ্জ পিডিবির নির্বাহী প্রকৌশলী শামীম ফরহাদ বাংলানিউজকে জানান, হবিগঞ্জ শহরে বর্তমানে ৬টি ফিডার রয়েছে। যে কারণে বিভিন্ন এলাকায় মাঝে মধ্যে বিদ্যুৎ বিভ্রাট ঘটে। ২৫ কোটি টাকা ব্যয়ে শিগগিরই এ উপকেন্দ্র নির্মাণের  কাজ শুরু হবে। এক বছরের মধ্যেই কাজ সম্পন্ন করা হবে। উদ্বোধন হলে ৬টি ফিডারের সঙ্গে যোগ হবে আরও ৮টি ফিডার। ফলে লো ভোল্টেজ সমস্যার সমাধানসহ নিশ্চিত হবে মানসম্মত বিদ্যুৎ সরবরাহ।

স্থান পরিদর্শনকালে এমপি আবু জাহির বলেন, বিএনপি বিদ্যুৎ উৎপাদনের পরিমাণ রেখে গেছিল ৩ হাজার মেগাওয়াট। সেই জায়গা থেকে আমরা এখন বিদ্যুৎ উৎপাদন নিয়ে এসেছি ২২ হাজার মেগাওয়াটের ওপরে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার ইতোমধ্যে সারাদেশের ৯৫ শতাংশ পরিবারে বিদ্যুৎসেবা নিশ্চিত করেছে। হবিগঞ্জ শহরবাসীর নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহে এ উপকেন্দ্রটি নির্মাণ করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫০ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৫, ২০১৯
আরএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   বিদ্যুৎ হবিগঞ্জ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-10-25 14:54:33