ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ৩০ জুন ২০২২, ০০ জিলহজ ১৪৪৩

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

চীন সফরে নৌমন্ত্রী

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৭৫২ ঘণ্টা, মে ১৬, ২০১৭
চীন সফরে নৌমন্ত্রী

ঢাকা: প্লেট কাটিং (কীল লেয়িং) অনুষ্ঠানে অংশ নিতে নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান সোমবার ( ১৫ মে)  রাতে চীনের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেছেন।

মঙ্গলবার (১৬ মে) নৌমন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
 
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, চীনের কাছ থেকে ছয়টি নতুন জাহাজ কিনবে বাংলাদেশ।

২০১৮ সালের মধ্যে বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশনের (বিএসসি) বহরে জাহাজগুলো যোগ হবে। ছয়টি জাহাজের মধ্যে তিনটি প্রোডাক্ট অয়েল ট্যাংকার এবং তিনটি বাল্ক ক্যারিয়ার। প্রতিটির ধারণ ক্ষমতা ৩৯ হাজার ডেড ওয়েট টন (ডিডব্লিউটি)। জাহাজগুলো চীনের ওয়াই জেড জে শিপইয়ার্ডে নির্মাণাধীন।
 
এ সফরে মন্ত্রী তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। অন্যরা হলেন, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো: আব্দুল কুদ্দুস খান এবং বিএসসি’র নির্বাহী পরিচালক (কারিগরি) মোহাম্মদ সায়েদ উল্লাহ।
 
চায়না ন্যাশনাল ইমপোর্ট অ্যান্ড এক্সপোর্ট মেশিনারিজ কর্পোরেশন (সিএমসি) থেকে ছয়টি জাহাজ কিনতে ১ হাজার ৮৪৩ কোটি টাকা ব্যয় হবে। এর মধ্যে চীন সরকারের লোন ১ হাজার ৪৪৮ কোটি এবং বিএসসি’র নিজস্ব অর্থ ৩৯৫ কোটি টাকা।
 
অয়েল ট্যাংকার দিয়ে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের (বিপিসি) আমদানি করা পরিশোধিত তেল পরিবহন করা হবে। বাল্ক ক্যারিয়ারে খোলা পণ্য, সারসহ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য কয়লা পরিবহন করা হবে। ছয়টি জাহাজ যোগ হলে বিএসসির আর্থিক অবস্থা চাঙ্গা হবে।

কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ পর্যন্ত সর্বমোট ৩৮টি জাহাজ সংগ্রহ করা হয়েছে। তবে বর্তমানে বিএসসি’র বহরে ৩টি জাহাজ রয়েছে। এর মধ্যে একটি কন্টেইনার এবং দু’টি  লাইটার ট্যাংকার।  

সফর শেষে  ২০ মে দেশে ফিরবেন মন্ত্রী।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৪৬ ঘণ্টা, মে ১৬, ২০১৭
এসজে/জেডএম/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa