ঢাকা, বুধবার, ২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ আগস্ট ২০২২, ১৮ মহররম ১৪৪৪

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

বিদ্যুৎ ও জ্বালানিখাতের উন্নয়নে প্রয়োজন দক্ষ জনবল

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৬২০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৮, ২০১৬
বিদ্যুৎ ও জ্বালানিখাতের উন্নয়নে প্রয়োজন দক্ষ জনবল

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের উন্নয়নে আরো বেশি দক্ষ জনবল প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

ঢাকা: বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের উন্নয়নে আরো বেশি দক্ষ জনবল প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।
 
বৃহস্পতিবার (০৮ ডিসেম্বর) সকালে রাজধানীর একটি হোটেলে ‘ইনস্টলেশন অব সিঙ্গেল পয়েন্ট মুরিং (এসপিএম) উইথ ডাবল পাইপ লাইন প্রকল্প’ চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।

 
 
চায়না পেট্রোলিয়াম পাইপ লাইন ব্যুরো ও বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) মধ্যে চুক্তিটি স্বাক্ষর হয়। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করছে বিপিসি’র পক্ষে ইস্টার্ন রিফাইনারি লি. (ইআরএল)।  

প্রকল্পের মোট ব্যয় ধরা হয়েছে পাঁচ হাজার ২৬ কোটি টাকা। যার মধ্যে সরকার দিচ্ছে এক হাজার ২১ কোটি, বিপিসি দিচ্ছে একশ’ ১১ কোটি টাকা। আর প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করতে চার হাজার ২৯৩ কোটি টাকার বৈদেশিক সহায়তা দিচ্ছে চায়না এক্সিম ব্যাংক।  
 
প্রকল্পটি সম্পর্কে নসরুল হামিদ বলেন, এটি বাস্তবায়ন হলে ক্রমবর্ধমান জ্বালানির চাহিদা ও যোগানের ভারসাম্য রক্ষা পাবে। শুধু তাই নয়, আমদানিকৃত অপরিশোধিত তেল নিরাপদে, স্বল্প খরচে এবং স্বল্প সময়ে খালাস করা সম্ভব হবে। এছাড়া প্রকল্পটির মাধ্যমে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ ও জ্বালানিখাতের আরো বেশি উন্নয়ন হবে। আর প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে আমাদের প্রতি বছর ১ হাজার কোটি টাকা সাশ্রয় সম্ভব হবে বলেও জানান তিনি।  
 
তিনি আরো বলেন, যেকোনো প্রজেক্টরের উন্নয়নে আমাদের আরো বেশি বেশি দক্ষ জনবল তৈরি করতে হবে। কেননা দক্ষ জনবল ছাড়া আধুনিক প্রজেক্টরের সফলতা সম্ভব নয়। আর এই দক্ষ জনবল তৈরি করতে বর্তমান সরকার বরাবরই বদ্ধ পরিকর।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, আগামী নির্বাচনের বাকি মাত্র ২ বছর। তাই এর মধ্যে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ে যতগুলো প্রকল্প আছে সবগুলো প্রকল্পের কাজ শুরু করতে হবে। আমরাই সব প্রকল্পের সফলতা অর্জন করে চলেছি। শুধু তাই নয়, সব সেক্টরে আমাদের উন্নয়ন হচ্ছে।  
 
চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক সমন্বয়ক মো. আবুল কালাম আজাদ, জাতীয় সংসদের বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি তাজুল ইসলাম, জ্বালানি এবং খনিজ বিভাগের সচিব নাজিম উদ্দিন চৌধুরী।

বাংলাদেশ সময়: ১২২১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৮,২০১৬
এসজে/জেডএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa