ঢাকা, রবিবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

কেপিসি থেকে তেল আমদনি: ২৫ বছরের পুরানো জাহাজ দিয়ে তেল পরিবহনের সিদ্ধান্ত

হাসান আজাদ, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৪৭ ঘণ্টা, মার্চ ২, ২০১১
কেপিসি থেকে তেল আমদনি: ২৫ বছরের পুরানো জাহাজ দিয়ে তেল পরিবহনের সিদ্ধান্ত

ঢাকা: চলতি বছরে কুয়েত থেকে তেল পরিবহনে ২৫ বছর পুরানো জাহাজ ব্যবহার করা হবে। কুয়েত পেট্রোলিয়াম করপোরশেনের (কেপিসি) অনুরোধের পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ সরকারের জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগ তেল পরিবহনে জাহাজের বয়সসীমা ২৫ বছর পর্যন্ত রাখার সিদ্ধান্ত নেয়।



গত ৭ ফেব্রুযারি জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী এনামুল হকের সভাপতিত্বে কুয়েত পেট্রোলিয়ামের সঙ্গে জ্বালানি তেল সরবরাহের চুক্তি নবায়নের ক্ষেত্রে জাহাজের বয়সসীমা নির্ধারণ বিষয়ে এক আন্তঃমন্ত্রনালয় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। পরে গত ২৮ ফেব্রুয়ারি প্রতিমন্ত্রী বিষয়টির অনুমোদন দেন।

জ্বালানি সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিনের সঙ্গে এ বিষয়ে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ব্যস্ত থাকায় কথা বলা যায়নি।

ওই সভায় সিদ্ধান্ত হয় কেপিসির জাহাজগুলো দুই তলানি বিশিষ্ট হওয়ায়, কেপিসির জাহাজগুলোর বয়সসীমা সব্বোর্চ্চ ২৫ বছর বহাল রেখে ২০১১ সালের জন্য এক বছরের জন্য কেপিসির সঙ্গে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরশেন (বিপিসি) চুক্তি নবায়ন করতে পারে।

একই সঙ্গে তেল পরিবহনে জাহাজের বয়সসীমা নির্ধারনে একটি আন্তঃমন্ত্রণালয় কমিটিও গঠন করা হয়েছে। এই কমিটি পারবর্তী ১৫ দিনের মধ্যে জাহাজের বয়সসীমা নির্ধারণের সুপারিশ জমা দেবে।

জ্বালানি বিভাগের উর্ধতন এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, কুয়েত পেট্রোলিয়াম করপোরশেন ২০০৩ সাল থেকে বাংলাদেশে জ্বালানি তেল সরবরাহ করে আসছে। কেপিসির পাশাপাশি বাংলাদেশ আরও চারটি দেশ থেকে সরকারি পর্যায়ে তেল আনে। অন্যান্য সরবরাহকারীর মত ২০০৮ সাল পর্যন্ত কেপিসির তেলবাহী জাহাজের বয়সসীমা ছিল ২০ বছর।

২০০৯ সালে সমুদ্র পরিবহনের মতামত নিয়ে ২০০৯ ও ১০ সালের জন্য কেপিসির জাহাজের বয়সসীমা সব্বোর্চ্চ ২৫ বছর নির্ধারণ করা হয়। কেপিসির চারটি জাহাজে করে তেল পরিবহন করা হত। একই বছরের মাঝামাঝি সময়ে কেপিসির জাহাজে করে জেট ফুয়েল পরিবহনের সময় দুষণ ঘটলে কেপিসির দুটি জাহাজে তেল পরিবহন বাতিল করা হয়।

এই পরিপ্রেক্ষিতে চলতি বছর কেপিসির সঙ্গে তেল আমদানির চুক্তি নবায়ন করতে গেলে তাদের পক্ষ থেকে জাহাজের বয়সসীমা ২৫ বছর রাখার অনুরোধ জানায়।

ওই কর্মকর্তা আরও জানান, ভারত, পাকিস্তান ও শ্রীলংকায় তেলবাহী জাহাজের বয়সসীমা ১৫ বছর।

পরিবেশ ও বন মন্ত্রনালয়ের সুত্রে জানা গেছে, গত ৩ জানুয়ারি তেলবাহী জাহাজের বয়সসীমা ২০ বছর রাখার পরামর্শ দেয়। একই সঙ্গে ২০১০ সালের পরে অঅর্ন্তজাতিকভাবে এক তলানি বিশিষ্ট জাহাজ দিয়ে তেল পরিবহন নিষিদ্ধ করা হয়। যেহেতু কেপিসির জাহাজগুলো দুই তলানি বিশিষ্ট এবং ঈঅচ (ঈড়হফরঃরড়হ অংংবংংসবহঃ চৎড়মৎধস ) জধঃরহম ভাল সে কারণে জাহাজের বয়সসীমা সব্বোর্চ্চ ২৫ বছর রেখে এক বছরের জন্য কেপিসির সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করতে সমস্যা নেই।

জ্বালানি বিভাগ সুত্রে জানা গেছে, এই মাসের শেষে কেপিসির সঙ্গে বিপিসি ২০১১ সালের জন্য তেল আমদানির চুক্তি নবায়ন করবে।

এ বছর কেপিসি থেকে মোট ১২ লাখ টন জ্বালানি তেল আমদানি করা হবে। এর মধ্যে ৯ লাখ ৯০ হাজার টন জেট ফুয়েল এবং দুই লাখ ১০ হাজার টন ডিজেল।

বাংলাদেশ সময়ঃ ১৩২৩, ২ মার্চ ২০১১।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa