ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাজনীতি

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন: সুজানগর আ.লীগ সভাপতির অনুষ্ঠানে সম্পাদক গ্রুপের হামলা!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২০৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২
প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন: সুজানগর আ.লীগ সভাপতির অনুষ্ঠানে সম্পাদক গ্রুপের হামলা!

পাবনা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে পাবনার সুজানগর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আব্দুল ওহাব গ্রুপের অনুষ্ঠানে সাধারণ সম্পাদক শাহিনুজ্জামান শাহিনের সমর্থকরা হামলা চালিয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।  

বুধবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ১টার দিকে সুজানগর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় চেয়ার-টেবিল ও দোকান-পাট ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।  

বাজারের ব্যবসায়ী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দীর্ঘদিন ধরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদকের মধ্যে বিরোধ রয়েছে। এর জের ধরে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে দুই গ্রুপ আলাদা কর্মসূচি ঘোষণা করে। নির্ধারিত কর্মসূচি অনুযায়ী সকালে সাধারণ সম্পাদকের সমর্থকরা বাজারে আনন্দ মিছিল, আলোচনা ও কেক কাটার আয়োজন করেন। এরপর অনুষ্ঠান শেষ করে তারা বাজারেই অপেক্ষা করতে থাকে। দুপুর ১২টার দিকে সভাপতি গ্রুপের অনুষ্ঠান শুরু হয়। তিনি প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন ও দুর্গপূজা উপলক্ষে উপজেলার ৫৭টি মন্দিরে তিন হাজার টাকা করে অনুদান দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপ-কমিটির সদস্য ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো. কামরুজ্জামান উজ্জ্বল।  

অনুষ্ঠানে প্রথমে আনন্দ শোভাযাত্রা করা হয়। পরে আলোচনা পর্বে সভাপতি আব্দুল ওহাবের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথিসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানরা বক্তব্য দেন। এরপর কেক কেটে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উদযাপন করা হয়। কেক কাটা শেষে অনুদানের টাকা বিতরণ করতে প্রধান অতিথি কামরুজ্জামান উজ্জ্বলসহ আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে উপজেলা সদরের বাজারে আসেন সভাপতি। এসময় সম্পাদক শাহিনুজ্জমান শাহিনের সমর্থক পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ফেরদৌস আলম ফিরোজের নেতৃত্বে একদল যুবক লাঠি নিয়ে সেখানে হামলা চালান। তারা এসময় বেশ কিছু চেয়ার-টেবিল ও কয়েকটি দোকান ভাঙচুর করেন। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।  

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওহাব জানান, আনন্দঘন অনুষ্ঠানে পরিকল্পিতভাবে সম্পাদক শাহিনুজ্জামান শাহিনের লোকজন হামলা চালিয়েছেন। আমরা অতর্কিত এ হামলার বিচার চাই।
কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা কামরুজ্জামান উজ্জ্বল বলেন, এমন হামলায় আমরা হতভম্ব হয়েছি। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। একই সঙ্গে হামলায় জড়িতদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে জানতে ফেরদৌস আলম ফিরোজের মোবাইল ফোনে কয়েকবার কল দিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি।  

তবে সাধারণ সম্পাদক শহিনুজ্জামান শাহিন বলেন, আমি ঢাকায় আছি। কি হয়েছে জানি না। তবে শুনেছি, কিছু লোক টাকার জন্য হামলা চালিয়েছে।
 
সুজানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হান্নান বলেন, সভাপতি আব্দুল ওহাব ও সম্পাদক শাহিনুজ্জামান শাহীন দীর্ঘদিন ধরেই বিরোধে জড়িয়ে আছেন। এর জের ধরেই কিছু লোকজন হামলার চেষ্টা করেছিল। তবে খুব দ্রুতই পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। কেউ আহত হননি।  

বাংলাদেশ সময়: ২২০২ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২২
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa