ঢাকা, রবিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাজনীতি

এখনো সময় আছে পদত্যাগ করুন: ফখরুল

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৩৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২২
এখনো সময় আছে পদত্যাগ করুন: ফখরুল

ঢাকা: সরকারের উদ্দেশ্যে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এখনো সময় আছে পদত্যাগ করুন। সংসদ বিলুপ্ত করুন।

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করুন ও তাদের মাধ্যমে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করে নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের পার্লামেন্ট গঠন করুন।

শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টনে এক বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। মুন্সিগঞ্জে পুলিশ ও বিএনপির সংঘর্ষে যুবদল নেতা শাওন হত্যার প্রতিবাদে জাতীয়তাবাদী যুবদল এ বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে।

দেশ রক্ষার আহ্বান জানিয়ে বিএনপি মহাসচিব ফখরুল বলেন, ক্ষমতার মালিক হচ্ছে জনগণ। তাদের ভোটাধিকার চাই। মানুষের জীবনের অধিকার চাই, নিরাপত্তা চাই। কথায় কথায় গুলি করবেন? কথায় কথায় ফেলে দেবেন। কথায় কথায় আগুন জ্বালিয়ে দেবেন দেশের মানুষ আর সহ্য করবে না।

তিনি বলেন, আসুন সব রাজনৈতিক দল এবং মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করে দুর্বার আন্দোলন করে তুলি। দুর্বার গণ আন্দোলনের মধ্য দিয়ে ফ্যাসিস্ট সরকারকে পরাজিত করে তাদের পদত্যাগ করতে বাধ্য করি।

নানা অত্যাচারের প্রসঙ্গ তুলে ফখরুল বলেন, আজকে রক্ত ঝরিয়ে, ভয় দেখিয়ে, খুন করে, বাড়ি-ঘর পুড়িয়ে দিয়েআওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকতে চায়। তারা  শুধুমাত্র মুন্সিগঞ্জের শাওনকে হত্যা করে ক্ষ্যান্ত হননি। তারা বিএনপির নেতার কারখানা জ্বালিয়ে দিয়েছে। মুন্সিগঞ্জে একটি ত্রাসের রাজত্ব তৈরি করেছে। এভাবে সারা দেশে একটি ত্রাসের সৃষ্টি করে তারা ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়।

তিনি বলেন, আমাদের ৩৫ লাখ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করেছে। তারা জাতিসংঘে গিয়ে বলে যুদ্ধ চাই না, নিষেধাজ্ঞা চাই না। শাওনের মৃত্যুতে আব্দুর রহিম এবং নুর আলমের মৃত্যুতে মানুষের যে দাবি শুরু হয়েছে, যে আন্দোলন শুরু হয়েছে, যে অভ্যুত্থান শুরু হয়েছে, এ অভ্যুত্থানকে কখনো বন্ধ করা সম্ভব হবে না।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকে শাওনের বাবার কণ্ঠে আমরা আহাজারি শুনিনি, তার চোখে অশ্রু দেখিনি। তার চোখে আগুন দেখেছি। বজ্র কণ্ঠে তিনি বলেছেন আমি আপস করব না। শাওনের বাবাকে ভয় দেখানো হচ্ছে। যে তুমি বলো পেছন থেকে ইটের আঘাতে তিনি (শাওন) মারা গেছেন। তুমি বলো, তাকে বিএনপির লোকেরাই মেরেছে। শাওনের যে ডেথ সার্টিফিকেট তাতে পরিস্কার করে বলা হয়েছে যে, মেসিভ ব্রেইন ইজুরি ডিউ টু গান শট। বন্দুকের গুলিতেই তার মৃত্যু হয়েছে। তাই আর মিথ্যেচার করবেন না। মিথ্যাচার করে জনগণকে বোকা বানিয়ে রেখেছেন।  

সমাবেশে নিহত যুবদল নেতা শহিদুল ইসলাম শাওনের বাবা তোয়াব বলেন, ‘আমার ছেলে গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করতে গিয়ে নিহত হয়েছেন। যারা আমার সন্তানকে হত্যা করেছে তারা জনগণের অধিকারকে হত্যা করেছে। আমাকে ভয়ভীতি দেখানো হচ্ছে, আপনারাই আমার ভরসা। আপনারা আমার পাশে থাকলে কোনো শক্তিকেই আমি ভয় পাই না।  

যুবদলের সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মোনায়েম মুন্নার পরিচালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমানুল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, যুবদলের সাবেক সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২২
এমএইচ/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa