ঢাকা, শনিবার, ৯ আশ্বিন ১৪২৯, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২৬ সফর ১৪৪৪

রাজনীতি

মির্জা ফখরুলের প্রশ্ন

সরকার কি ভারতের আনুকূল্যে টিকে আছে?

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৩ ঘণ্টা, আগস্ট ১৯, ২০২২
সরকার কি ভারতের আনুকূল্যে টিকে আছে?

ঢাকা: বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার কি ভারতের আনুকূল্যে টিকে আছে এমন প্রশ্ন করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যের ব্যাখ্যা দাবি করেছেন।

শুক্রবার (১৯ আগস্ট) বিকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের হল রুমে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের ৪২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এই ব্যাখ্যা দাবি করেন।

 

মির্জা ফখরুল বলেন, দুদিন আগে আওয়ামী লীগের সমাবেশে মন্ত্রীরা বড় বড় বক্তৃতা করেছেন। হুমকি দিয়েছেন, হুঙ্কার দিয়েছেন, সন্ত্রাসী ভাষায় কথা বলেছেন। এতই যদি আপনারা হুমকি ধামকি দেন তাহলে আপনাদের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সরকারকে টিকিয়ে রাখার জন্য, প্রধানমন্ত্রীকে টিকিয়ে রাখার জন্য ভারতের সাহায্য চেয়েছেন কেন? আমরা এই কথার ব্যাখ্যা চাই সরকারের কাছে, পররাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে এবং ভারত সরকারের কাছে। আজকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী যে কথা বলেছেন, সে কথার অর্থ কী? তাতে কি এটা দাঁড়ায় যে এই সরকার টিকে আছে ভারতের আনুকূল্যে? মানুষ জানতে চায়, এটা অত্যন্ত জরুরি কথা। এরা এমন সব মানুষকে মন্ত্রী বানিয়েছে যারা কখন কী বলে নিজেরাও জানে না।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আজকে প্রশ্ন উঠেছে বাংলাদেশ সত্যিকার অর্থে একটি স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে থাকবে কি থাকবে না। বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক দেশ থাকবে কি থাকবে না। মানুষের অধিকার ফিরিয়ে দিয়ে সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়বে কি গড়বে না। আজকে এসব প্রশ্ন কেন আসছে। কারণ আমরা দেখলাম আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর থেকেই সুপরিকল্পিতভাবে বাংলাদেশের মানুষের সব অধিকারগুলোকে কেড়ে নিয়েছে। সংবিধান পরিবর্তন করেছে। মানুষের এতদিন ভোট দিয়ে তাদের প্রতিনিধি নির্বাচন করবার সুযোগ ছিল, পাঁচ বছর পর পর যে ভোট দেওয়ার ক্ষমতা ছিল সেটাকে তারা হরণ করেছে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিধানকে বাতিল করে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার আজকে লুটতরাজ, ডাকাতি করতে গিয়ে দেশের মানুষের পেটে আঘাত দিয়েছে। আজকে চাল, ডাল, তেল, জ্বালানি তেলসহ এমন একটা দ্রব্য নেই যার দাম দুই গুণ, তিন গুণ বাড়েনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্ব অর্থনীতিতে সংকট। বিশ্ব অর্থনীতিতে সংকটতো আছেই। আগে থেকে কেন আপনারা সে বিষয়ে ব্যবস্থা নেননি? বার বার করে বলা হচ্ছিল আপনারা যে লুটতরাজ করছেন, দুর্নীতি করছেন সেগুলো বন্ধ করেন। জ্বালানি তেলের দাম বাড়িয়েছেন শতকরা ৫১ভাগ। কী যুক্তিতে বলছেন বিশ্বে জ্বালানি তেলের দাম বেড়েছে, সেই কারণে তেলের দাম বাড়িয়েছেন? কিন্তু যখন বিশ্ববাজারে তেলের দাম কমছিল, তখন আপনারা দাম কমাননি। আজকে যখন আবার দাম কমতে শুরু করেছে তখনোও কিন্তু আপনারা দাম কমাচ্ছেন না।

স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েলের পরিচালনায় আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন মহানগর উত্তর বিএনপির আহ্বায়ক ডাকসুর সাবেক ভিপি আমান উল্লাহ আমান, দক্ষণের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুস সালাম, বিএনপি নেতা আজিজুল বারী হেলাল, ফজলুল হক মিলন, কামরুজ্জামান রতন, মীর সরাফত আলী সপু, যুবদল নেতা সুলতান সালাউদ্দীন টুকু, মোনায়েম মুন্না, স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ-সভাপতি গোলাম সরোয়ার, আসাদুজ্জামান নেসার,  আনু মোহাম্মদ শামীম আজাদ, আজহারুল হক মুকুল, এ বি এম পারভেজ রেজা, শাহাবুদ্দিন মুন্না, ইকবাল আনসারী টিপু,. যুগ্ম সম্পাদক সাইফুল ইসলাম ফিরোজ, সাদরেজ জামান, কাদের হালিমী প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২০১২ ঘণ্টা, আগস্ট ১৯, ২০২২
এমএইচ/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa