ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৪ আশ্বিন ১৪২৯, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

রাজনীতি

জীবন দিয়ে হলেও ফ্যাসিবাদ থেকে দেশকে মুক্ত করবো: নুর

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬১৫ ঘণ্টা, আগস্ট ১৬, ২০২২
জীবন দিয়ে হলেও ফ্যাসিবাদ থেকে দেশকে মুক্ত করবো: নুর মিছিলে গণঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব নুরুল হক নুর। ছবি: শাকিল আহমেদ

ঢাকা: গণঅধিকার পরিষদের সদস্য সচিব নুরুল হক নুর বলেছেন, মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) সাবেক ও বর্তমান সাত কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তাদের সরিয়ে না দিয়ে বেতন গ্রেড ও সুবিধা বাড়িয়েছে।

প্রশাসনের নির্ভরতায় শেখ হাসিনা টিকে আছে। শেখ হাসিনা রাজনীতি ও প্রশাসনে এ দুর্বৃত্তায়ন ঘটিয়েছেন। বাংলাদেশকে একটি মাফিয়া সাম্রাজ্যে পরিণত করেছে। আমরা রাস্তায় নেমেছি। তাই জীবন দিয়ে হলেও শেখ হাসিনার ফ্যাসিবাদ থেকে দেশকে মুক্ত করবো। যদি জীবন দিতে হয়, গুম হতে হয়, তাহলে তাই হবো।

মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) দুপুরে জাতীয প্রেসক্লাবের সামনে যুব অধিকার পরিষদ আয়োজিত নাটোরে কর্মী হত্যার প্রতিবাদে প্রতীকী লাশের মিছিলে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, একটি প্রতিবেদনে উঠে এসেছে কীভাবে বাংলাদেশের গোয়েন্দা সংস্থার সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারকরা ভিন্ন মতের মানুষকে গুম করে আবু গরিব কারাগারের মতো করে বন্দী করে রেখেছে। এভাবে তারা আরেকটি কারাগার তৈরি করেছে। অথচ চাটুকারেরা চুপ করে আছে। টেলিভিশন ও মিডিয়ার কোথায়ও এ নিয়ে আলোচনা হয় না।

তিনি আরও বলেন, গত ১৩ বছরে ৬ শতাধিক মানুষকে গুম করা হয়েছে। এখনো ১ শতাধিক মানুষ নিখোঁজ রয়েছে। অর্ধশতাধিক মানুষের লাশ পাওয়া গেছে।

নুর বলেন, শেখ হাসিনার উন্নয়ন আজ মানুষ মারার উন্নয়ন। গতকাল পাঁচ জন গার্ডারের নিচে পড়ে মারা গিয়েছে। কোনো ঘটনা ঘটলে মন্ত্রীরা বলেন তদন্ত করে ব্যবস্থা নেবো। এখানেই শেষ। এটি নিয়ে আর কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয় না। দেশে আইন প্রণেতারা আজ আইন মানেন না।

প্রতীকী লাশের মিছিলে বক্তব্য রাখেন গণঅধিকার পরিষদের রাশেদ খান, ফারুক হাসান, তারেক রহমান, মাহফুজুর রহমান, মশিউর রহমান ও যুব অধিকার পরিষদের নেতারা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৪ ঘণ্টা, আগস্ট ১৬, ২০২২
এমকে/আরআইএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa