ঢাকা, শুক্রবার, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯, ১২ আগস্ট ২০২২, ১৩ মহররম ১৪৪৪

রাজনীতি

অধ্যক্ষ লাঞ্ছিত: ইউনিয়ন আ. লীগ নেতাকে সাময়িক অব্যাহতি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫১৭ ঘণ্টা, জুলাই ১, ২০২২
অধ্যক্ষ লাঞ্ছিত: ইউনিয়ন আ. লীগ নেতাকে সাময়িক অব্যাহতি

নড়াইল: নড়াইলের মীর্জাপুর ইউনাইটেড ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসকে লাঞ্ছিত করার ঘটনায় সদর উপজেলার বিছালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আকতার হোসেন কিংকুকে তার পদ থেকে সাময়িকভাবে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।  

ওই ঘটনায় প্রত্যক্ষভাবে জড়িত থাকার অভিযোগে তাকে অব্যাহতি  দিয়েছে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগ।

তিনি ওই কলেজের সহকারী অধ্যাপক।

এসময় সহ-সভাপতি মশিয়ার রহমানকে ও ইউনিয়ন পরিষদের সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। এছাড়া এ ঘটনায় মো. আকতার হোসেনকে তিন দিনের মধ্যে লিখিতভাবে কারণ দর্শানোর জন্য বলা হয়েছে।

নড়াইল সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট অচিন কুমার চক্রবর্তী ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মো. ওমর ফারুক এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।  

কারণ দর্শানোর নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে, গত ১৮ জুন মীর্জাপুর ইউনাইটেড ডিগ্রি কলেজের এক ছাত্রের ফেসবুকের স্ট্যাটাস নিয়ে সাম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে। আপনি উক্ত কলেজের একজন শিক্ষক ও ভিডিও ফুটেজে দেখা যায় আপনি সেখানে উপস্থিত ছিলেন। পরিশেষে দেখা যায় আপনার উপস্থিতিতে ওই কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষকে জুতার মালা পরিয়ে বের করে আনা হয়। যা নিন্দনীয়, শিক্ষক সমাজকে হেয় প্রতিপন্ন করার সামিল। বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় ও মিডিয়ায় আপনাকে জড়িয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। যার দায় আপনি এড়াতে পারেন না। আমরা মনে করি সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালনে আপনি ব্যর্থ হয়েছেন।

নোটিশে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, সভাপতির অবর্তমানে সহ সভাপতি মশিয়ার রহমান এ দায়িত্ব পালন করবেন।  

এদিকে জেলা প্রশাসনের তদন্ত প্রতিবেদন বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) দেওয়ার কথা থাকলেও তা পিছিয়ে আগামী শনিবার (২ জুলাই) নির্ধারণ করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. জুবায়ের হোসেন চৌধুরী।  

অপরদিকে নড়াইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রিয়াজুল ইসলামের নেতৃত্বে গঠিত জেলা পুলিশের তদন্ত টিমের প্রতিবেদনও শনিবার নির্ধারণ করেছে।  

জানা যায়, গত ১৮ জুন নড়াইল সদরের মির্জাপুর ইউনাইটেড ডিগ্রি কলেজে রাহুল দেব নামে একাদশ শ্রেণির এক ছাত্র নুপুর দেবকে সমর্থন করে তার ফেসবুকে একটি পোস্ট দেওয়াকে কেন্দ্র করে রণক্ষেত্র তৈরি হয়। এ সময় বিক্ষুদ্ধ ছাত্র-জনতা শিক্ষকদের তিনটি মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দেয়। তাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ স্বপন কুমার বিশ্বাসসহ অভিযুক্ত ছাত্রকে জুতার মালা পরিয়ে পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়।  

** অধ্যক্ষকে লাঞ্চিতের ঘটনায় অন্যতম আসামি গ্রেফতার
** অধ্যক্ষকে জুতার মালা পরানোর ঘটনায় গ্রেফতার ৩

বাংলাদেশ সময়: ১৫১৫ ঘণ্টা, জুলাই ০১, ২০২২
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa