ঢাকা, সোমবার, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৪ জিলহজ ১৪৪৩

রাজনীতি

মার্কিন নেতৃত্বে এশিয়ায় নতুন ‘অর্থনৈতিক জোট’, উদ্বেগ সিপিবির

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১ ঘণ্টা, মে ২৮, ২০২২
মার্কিন নেতৃত্বে এশিয়ায় নতুন ‘অর্থনৈতিক জোট’, উদ্বেগ সিপিবির

ঢাকা: মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বে ভারত প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের জন্য ‘আইপিইএফ’ নামে যে নতুন অর্থনৈতিক জোট গঠন করা হয়েছে, তাকে ‘দুরভিসন্ধিমূলক’ উল্লেখ করে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)।  

শনিবার (২৮ মে) সিপিবি সভাপতি কমরেড মোহাম্মদ শাহ্ আলম এবং সাধারণ সম্পাদক কমরেড রুহিন হোসেন প্রিন্স এক বিবৃতিতে এই উদ্বেগ জানান।

 

বিবৃতিতে বলা হয়, জাপান, ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া, মালয়েশিয়া এবং সিঙ্গাপুরসহ এশিয়ার ১৩টি দেশ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র যে নতুন জোট গঠন করেছে, তা স্পষ্টতই দুরভিসন্ধিমূলক। সবচেয়ে উদ্বেগের কথা হলো, বাংলাদেশকে এই জোটে যুক্ত করতে নানাভাবে চাপ দেওয়া হচ্ছে।

বিবৃতিতে সিপবির পক্ষ থেকে বলা হয়, জাপান সফরকালে এই জোটের ঘোষণা দিতে গিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন তাদের মন্দ অভিপ্রায় অনেকটাই প্রকাশ করে ফেলেছেন। তা হলো- এশিয়ার বাণিজ্যে যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ আধিপত্য এবং সেটি উৎপাদনের জোরে নয়, বরং তদারকি ক্ষমতার জোরে। শুরুতেই এই জোটের আলোচনায় বিশ্বের অন্যতম অর্থনৈতিক শক্তি চীনকে বাইরে রাখা হয়েছে। বাদ দেওয়া হয়েছে আসিয়ানের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য রাষ্ট্র কাম্বোডিয়া, লাওস, মায়ানমারকে।

বিবৃতিতে তারা বলেন, এ জোটের ঘোষণায় আরও বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র জোটভুক্ত দেশগুলোর সাপ্লাই চেইন, জ্বালানি খাত, বাণিজ্য কর, শ্রম আইন ইত্যাদি বিষয়ে তদারকিমূলক ভূমিকা রাখবে। ফলে বেশ পরিষ্কারভাবেই বোঝা যাচ্ছে যে জোটের সদস্য রাষ্ট্রগুলোর মধ্যে কার কর্তৃত্ব প্রধান হবে। শুধু তাই নয়, বাণিজ্য জোটের নামে এটি আসলে এক ধরনের রাজনৈতিক জোট। যার লক্ষ্য হলো, ইউক্রেন যুদ্ধের নয়া প্রেক্ষাপটে চীন এবং রাশিয়ার বিপরীতে তাদের নিজস্ব শক্তিবলয় গড়ে তোলা। একই সঙ্গে এশিয়ায় ন্যাটোর দীর্ঘমেয়াদী উপস্থিতির প্রেক্ষাপট শক্তিশালী করা এবং এক পর্যায়ে চীনের বেল্ট অ্যান্ড রোড প্রকল্পকে বিঘ্নিত করা। যা নিশ্চিতভাবেই এশিয়ায় বিরাট সংঘাতের জন্ম দেবে। এশিয়ার জনগণ কোনোভাবেই এই সংঘাতময় পরিস্থিতিকে স্বাগত জানাতে পারে না।  

অবিলম্বে এই জোট (আইপিইএফ) প্রক্রিয়া বন্ধের দাবি, এবং বাংলাদেশ সরকারকেও কোনোভাবেই এই জোটে শরিক না হয়ে নিরাপদ দূরত্বে থাকার জোর দাবিও জানান সিপিবি নেতারা।

বাংলাদেশ সময়: ২০১১ ঘণ্টা, মে ২৮, ২০২২
আরকেআর/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa