ঢাকা, রবিবার, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৪ আগস্ট ২০২২, ১৫ মহররম ১৪৪৪

রাজনীতি

খালেদার কিছু হলে আমরা পরিস্থিতি সামাল দিতে পারবো না: নোমান

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২১
খালেদার কিছু হলে আমরা পরিস্থিতি সামাল দিতে পারবো না: নোমান

রাজশাহী: বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেছেন, খালেদা জিয়া তিন তিনবারের প্রধানমন্ত্রী। তিনি একাধারে দেশকে নেতৃত্ব দিয়ে দেশনেত্রী হয়েছেন।

আজ তিনি জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। তার সুচিকিৎসার খুবই প্রয়োজন। কিন্তু দেশে তা সম্ভব নয়। আর সরকারও তাকে বিদেশ যেতে দিচ্ছে না। এ অবস্থায় কোনো অঘটন ঘটে গেলে দেশের চরম নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি তৈরি হবে। যা সামাল দেওয়া আমাদের পক্ষেও সম্ভব হবে না। তাই এখনো সময় আছে তাকে বিদেশ পাঠিয়ে সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করুন। না হলে তার দায়-দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে।

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও বিদেশে সুচিকিৎসার দাবিতে মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) বিকেলে রাজশাহীর মালোপাড়ায় মহানগর বিএনপির কার্যালয়ের নিচে বিভাগীয় সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপি নেতা আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেন, আজকের এ আন্দোলন খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার আন্দোলন। কিন্তু এতে কাজ না হলে আমরা সরকার পতনের আন্দোলনে যাবো। অনেক সহ্য করেছি আর নয়৷ খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা না হলে এক দফার আন্দোলনে রাজপথে নামবো।

সরকার পতন আন্দোলনের জন্য নেতাকর্মীদের প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানিয়ে বিএনপি নেতা আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেন, আমাদের পিঠ দেয়ালে ঠেকে গেছে যেকোনো সময় যুগপৎ আন্দোলন শুরু হবে। সরকারের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে আজকের এ রাজশাহী বিভাগীয় সমাবেশকে লোকে লোকারণ্য করায় তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানান।

খালেদা জিয়ার অসুস্থতার কথা তুলে ধরে আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেন, চেয়ারপারসন খুবই অসুস্থ। দেশের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তার বিরুদ্ধে ৩০টির বেশি রাজনৈতিক মামলা হয়েছে। এর মধ্যে দুটিতে সাজাপ্রাপ্ত হয়েছেন। কিন্তু তার সুচিকিৎসা পাওয়ার অধিকার রয়েছে। অথচ সরকার সবকিছু জেনেও তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করছে না। আমরা চাই খালেদা জিয়া সুস্থ হয়ে আবারও রাজপথে নেতৃত্ব দেবেন। কিন্তু সরকার তা চায় না। তারা ভয় পায়। এজন্য আন্দোলনের কোনো বিকল্প নেই। তাকে অবিলম্বে সুচিকিৎসার জন্য বিদেশে না পাঠালে সরকার পতনের আন্দোলন শুরু হবে বলে হুঁশিয়ারি দেন বিএনপির এ সিনিয়র নোমান।

রাজশাহী বিভাগীয় সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মহানগর বিএনপি সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল।  

সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা মিজানুর রহমান মিনু, রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শাহীন শওকতসহ কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় নেতারা।  

সমাবেশ পরিচালনা করেন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলন।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ৩০, ২০২১
এসএস/আরআইএস 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa