ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৭ ডিসেম্বর ২০২১, ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

রাজনীতি

নুরের দলকে নিষিদ্ধের দাবি

ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০২১
নুরের  দলকে নিষিদ্ধের দাবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যলয়: সাম্প্রদায়িক হামলার অভিযোগ এনে নতুন গঠিত হওয়া রাজনৈতিক দল গণ অধিকার পরিষদকে নিষিদ্ধের দাবি জানিয়েছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) এ দাবিতে রাজধানীর শাহবাগে সমাবেশ ও অবরোধ কর্মসূচি পালন করেছে তারা।

এ সময় দুপুর ১২টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ওই এলাকা অবরোধ করে রাখে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা।

সংগঠনের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুলের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মো. আল মামুনের সঞ্চালনায় এতে বক্তব্য রাখেন স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া, ভাস্কর শিল্পী রাশা প্রমুখ।

শিল্পী রাশা বলেন, রেজা কিবরিয়া ও নুরুল হক নুরের মদদে চট্টগ্রামের জেএমসেন হলের পূজামণ্ডপে হামলা, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট করে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার ষড়যন্ত্র হয়েছিল। হামলার পর ঘটনাস্থলের সিসি ক্যামেরার ভিডিও এবং স্থির চিত্র দেখে তাদের চিহ্নিত করা হয়েছে। এসব সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাসীকে দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি রাষ্ট্রকে নিশ্চিত করতে হবে।

অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার বড়ুয়া বলেন, রেজা কিবরিয়া ও নুরুল হক নুররা দেশব্যাপী সাম্প্রদায়িক হামলার মদদদাতা হিসেবে বাংলাদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে।   রেজা কিবরিয়াদের অসৎ উদ্দেশ্য জাতির সামনে উন্মোচিত হয়েছে। এরা জামাত-শিবিরের এজেন্ডা বাস্তবায়ন করার জন্য মাঠে নেমেছে। এদের সাম্প্রদায়িক সংগঠন দ্রুত নিষিদ্ধ করতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ প্রতিষ্ঠার জন্য সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে সারা দেশে আরও কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. আল মামুন বলেন, রেজা কিবরিয়ারা রাজনীতিতে সুবিধাবাদী হিসেবে পরিচিত। সবসময় গিরগিটির মতো রঙ পরিবর্তন করা তার স্বভাব। এসব লোকের কোনো নীতি-আদর্শ নেই। একাত্তরে পরাজিত পাকিস্তানি অপশক্তির দোসর জামাত-শিবিরের আপডেট ভার্সন গণ অধিকার পরিষদে যোগ দিয়ে রেজা কিবরিয়া মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সঙ্গে বেঈমানি করেছেন। কোনো স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি জামাত-শিবিরের সংগঠন মেনে নেবে না বাংলাদেশের মানুষ। জামাত-শিবিরের মুখপাত্র হিসেবে গণ অধিকার পরিষদে নেতৃত্ব দেওয়া রেজা কিবরিয়ার মূল উদ্দেশ্য।

কর্মসূচি থেকে দুটি দাবি  জানানো হয়। সেগুলো হল- চট্টগ্রামের জেএমসেন হলের পূজামণ্ডপসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় সাম্প্রদায়িক হামলার মদদদাতা রেজা কিবরিয়া ও নুরুল হক নুর গংদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান এবং  জঙ্গি, সাম্প্রদায়িক ও সন্ত্রাসী সংগঠন গণ অধিকার পরিষদসহ ছাত্র ও যুব অধিকার পরিষদকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৬, ২০২১
এসকেবি/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa