ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ মাঘ ১৪২৯, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১০ রজব ১৪৪৪

রাজনীতি

বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি ঘোষণা

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৪৯ ঘণ্টা, আগস্ট ২৪, ২০২১
বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি ঘোষণা বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচি ঘোষণা

ঢাকা: বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) ৪৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আগামী ১ সেপ্টেম্বর। দিনটি উপলক্ষে নানা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে দলটি।

মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) দুপুরে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন দপ্তরের দায়িত্বে থাকা সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স।

তিনি বলেন, ১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর জিয়াউর রহমান বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদ ও ১৯ দফা কর্মসূচির ভিত্তিতে একটি শক্তিশালী জাতিরাষ্ট্র গঠন এবং বহুদলীয় গণতন্ত্র ও মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে ন্যায়বিচার ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বিএনপি গঠন করেন। দীর্ঘ ৪৩ বছরের পথপরিক্রমায় বিএনপি স্বাধীনতার চেতনা বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশ গঠন, গণতন্ত্রায়ন, সমৃদ্ধি এবং দুঃশাসন, দুর্যোগ-দুর্বিপাকে জনগণের পাশে থেকে নিরলসভাবে কাজ করছে।

কর্মসূচিতে যা থাকছে-
প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিন (১ সেপ্টেম্বর) সকাল ৬টায় নয়াপল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ দেশব্যাপী সব কার্যালয়ে দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে।
সকাল ১১টায় বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান বীর উত্তমের মাজারে দলের জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরা ফাতেহা পাঠ ও পুষ্পস্তবক অর্পণ করবেন।

দুপুর ১২টা থেকে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ বিএনপি এবং কেন্দ্রীয় অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের পক্ষ থেকে পর্যায়ক্রমে জিয়ার মাজারে ফাতেহা পাঠ ও পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হবে।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভার আয়োজন করা হবে। হেল্প ক্যাম্প ও করোনা রোগীদের সহায়তা করা হবে।  

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে পোস্টার প্রকাশ করা হয়েছে এবং ক্রোড়পত্র প্রকাশ করা হবে।

সারাদেশে অনুরূপভাবে আলোচনা সভাসহ অন্যান্য কর্মসূচির মাধ্যমে দিবসটি যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এমরান সালেহ প্রিন্স আরও বলেন, আগামী ৩০ আগস্ট গুমের শিকার ব্যক্তিদের স্মরণে আন্তর্জাতিক গুম প্রতিরোধ দিবস অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ দিবস বিএনপি কর্মসূচি পালন করবে।   

তিনি বলেন, জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল কেন্দ্রীয় সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল, সহ-সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদল নেতা মোস্তাফিজুর রহমান রুমীকে সোমবার (২৩ আগস্ট) ১০টায় যাত্রাবাড়ী এলাকা থেকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর লোকেরা তুলে নিয়ে যাওয়ার পর এখন পর্যন্ত তাদের কোনও হদিস দিচ্ছে না। ঘটনার পরপরই বিএনপি মহাসচিব এ ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে তাদের সন্ধান দাবি করে বিবৃতি দিয়েছেন। কিন্তু এখনও তাদের কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। আমরা অবিলম্বে তাদের জনসম্মুখে হাজির এবং নিঃশর্ত মুক্তির জোর দাবি জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, শহীদুল ইসলাম বাবুল, সহ-দপ্তর সম্পাদক বেলাল আহমেদ, মুনীর হোসেন প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪৫ ঘণ্টা, আগস্ট ২৪, ২০২১
এমএইচ/এমআরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa