ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ ফাল্গুন ১৪২৭, ০৫ মার্চ ২০২১, ২০ রজব ১৪৪২

রাজনীতি

অমল সেনের ১৮তম মৃত্যুবার্ষিকীতে বিভিন্ন সংগঠনের শ্রদ্ধা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০২১
অমল সেনের ১৮তম মৃত্যুবার্ষিকীতে বিভিন্ন সংগঠনের শ্রদ্ধা

ঢাকা: বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি অমল সেনের ১৮তম মৃত্যুবার্ষিকীতে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়েছে।

শনিবার (১৬ জানুয়ারি) সকাল ১১টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে অমল সেনের প্রতিকৃতিতে এ শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

বিকেলে বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টি থেকে পাঠানো এক প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।  

পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির শ্রদ্ধা নিবেদনের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচি শুরু হয়। কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন পার্টির পলিটব্যুরো সদস্য আনিসুর রহমান মল্লিক, মাহমুদুল হাসান মানিক, কামরুল আহসান, তপন দত্ত, করম আলী, আমিরুল হক আমিন, অ্যাডভোকেট আকসিম এম চৌধুরী, জাকির হোসেন রাজু, মোস্তফা আলমগীর রতনসাব্বাহ আলী খান কলিন্স, আবুল হোসাইন,  শাহানা ফেরদৌসী লাকী, মুর্শিদা আখতার নাহার, কাজী মাহমুদুল হক সেনা, মুতাসিম বিল্লাহ সানী, আজাহার আলী প্রমুখ।

এরপর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, মুক্তযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক সংসদ সদস্য অ্যাড. মৃণাল কান্তি দাস, উপদপ্তর সম্পাদক সায়েম খান, কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুল আউয়াল শামিম, সিপিবির সহকারী সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন, সাম্যবাদী দলের কেন্দ্রীয় নেতা সুলতান আহমেদ বিশ্বাস, সুনীল শীল,  বাংলাদেশ জাসদের প্রেসিডিয়াম সদস্য নাসিরুল হক নবাব, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক করিম শিকদার, জাসদের সহ-সভাপতি শফিউদ্দিন মোল্লা, যুগ্ম সাধার সম্পাদক রোকনুজ্জামান জামান রোকন, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল বাসদের কেন্দ্রীয় নেতা বজলুর রশিদ ফিরোজ, রাজেকুজ্জামান রতন, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, গণতন্ত্রী পার্টির সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য কমল ঘোষ, ঐক্য ন্যাপের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ ভুইয়া, গণআজাদী লীগের সভাপতি এস কে শিকদার, ন্যাপের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, বাংলাদেশ যুব মৈত্রী, বাংলাদেশ ছাত্র মৈত্রী, বাংলাদেশ খেতমজুর ইউনিয়ন, বাংলাদেশ নারী মুক্তি সংসদ, জাতীয় কৃষক সমিতি, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন এবং বাংলাদেশের প্রগতিশীল-গণতান্ত্রিক বিভিন্ন শ্রেণী গণসংগঠনের নেতারা।

কমরেড অমল সেন ১৯৩৫ সনে অবিভক্ত কমিউনিস্ট পার্টির সদস্যপদ লাভ করেন। ১৯৪৬ এর ঐতিহাসিক তেভাগা আন্দোলনে সকলের কাছে ‘বাবুদা’ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন। রাজনৈতিক জীবনে তিনি বারবার কারারুদ্ধ হয়েছেন। ১৯৭১ এর মার্চ মাসে জনগণ জেল ভেযে তাকে মুক্ত করেন। স্বাধীনতার পর ১৯৭২ সনে পিকিং-মস্কো ধারার বিপরীতে লেনিনবাদী কমিউনিস্ট পার্টি গড়ে তোলেন এবং তার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। কমরেড অমল সেনের হাতে গড়া লেনিনবাদী কমিউনিস্ট পার্টি পরবর্তীতে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি নাম ধারণ করে। তিনি ওয়ার্কার্স পার্টির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি হিসেবে দীর্ঘ সময় দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৩ সালে তিনি ৮৯ বছর বয়সে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০২১
আরকেআর/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa