ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১০ রবিউস সানি ১৪৪২

রাজনীতি

‘মিয়ানমারকে ভারতের সামরিক সরঞ্জাম দেওয়া উদ্বেগজনক’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬১০ ঘণ্টা, অক্টোবর ২২, ২০২০
‘মিয়ানমারকে ভারতের সামরিক সরঞ্জাম দেওয়া উদ্বেগজনক’ জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব/ ফাইল ফটো

ঢাকা: গণহত্যার অভিযোগে অভিযুক্ত মিয়ানমারকে ভারতের সাবমেরিনসহ সামরিক সরঞ্জাম দেওয়া বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব ও স্থিতিশীলতার জন্য গভীর উদ্বেগজনক বলে মন্তব্য করেছেন জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব।

বৃহস্পতিবার (২২ অক্টোবর) এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, সম্প্রতি খবর প্রকাশিত হয়েছে যে, ভারত মিয়ানমারকে  সাবমেরিন এবং সামরিক সরঞ্জাম দিতে যাচ্ছে।

মিয়ানমার প্রায়শই তার সামরিক শক্তিতে বাংলাদেশকে উস্কানি দিয়ে যাচ্ছে। এ বাস্তবতা বিবেচনায় ভারতের এ সিদ্ধান্ত কোনক্রমেই বাংলাদেশ ভারত ‘রক্তের বন্ধন’ যুক্ত সম্পর্কের সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ নয়।

আবদুর রব বলেন, ‘গণহত্যার অভিযোগে অভিযুক্ত এবং আন্তর্জাতিক আদালতে বিচারাধীন মিয়ানমারকে ভারতের সাবমেরিনসহ সামরিক সরঞ্জাম দেওয়া বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব ও স্থিতিশীলতার প্রশ্নে গভীর উদ্বেগজনক। বাংলাদেশের সাথে মিয়ানমারের সম্পর্ক এখন খুবই নাজুক পর্যায়ে। মিয়ানমার তার দেশের ১১ লাখ রোহিঙ্গা নাগরিককে হত্যা-ধর্ষণ এবং অস্ত্রের মুখে জোর করে বাংলাদেশে পাঠিয়ে দিয়েছে। এ মহাসংকটেও রক্তের বন্ধনে আবদ্ধ ভারত বাংলাদেশের পাশে দাঁড়ায়নি। ’

তিনি বলেন, ‘মিয়ানমার প্রায়শই বাংলাদেশের সীমান্তে সামরিক মহড়ার প্রদর্শন করে থাকে। কখনো সামরিক হেলিকপ্টারগুলো বাংলাদেশের সীমান্ত অতিক্রম করার খবর শোনা যায়। কিছুদিন আগেও মিয়ানমার বাংলাদেশ সীমান্তে তার কয়েক হাজার সামরিক সেনা সমাবেশ করেছে। ’

স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলক এ নেতা বলেন, সাম্প্রতিক কালে মিয়ানমারের উসকানিমূলক কার্যক্রম থেকে এটা প্রতীয়মান হয় যে, মিয়ানমার ভারতের এ সাবমেরিনসহ সামরিক সরঞ্জাম বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যে কোনো মুহূর্তে ব্যবহার করতে পারে। সুতরাং বাংলাদেশের উচিত নতজানু নীতি পরিহার করে অবিলম্বে সরকারি পর্যায়ে ‘রাখি বন্ধন’ যুক্ত সম্পর্কের দেশ ভারতের কাছে এ প্রশ্নে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করা। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৬১০ ঘণ্টা, অক্টোবর ২২, ২০২০
এমএইচ/এফএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa