bangla news

যুক্তরাষ্ট্রে আন্দোলন প্রাতিষ্ঠানিক পদ্ধতির পরিণতি: সিপিবি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৬-০৪ ৮:০৭:০৪ পিএম
সিপিবির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম।

সিপিবির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম।

ঢাকা:  জর্জ ফ্লয়েডকে নির্মমভাবে হত্যার প্রতিবাদে হওয়া আন্দোলনকে যুক্তরাষ্ট্রে বিদ্যমান বর্ণবাদ ও সহিংসতার প্রাতিষ্ঠানিক পদ্ধতির অনিবার্য পরিণতি বলে মনে করে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)।

সিপিবির সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন।

বৃহস্পতিবার (০৪ জুন ) দেওয়া এক বিবৃতিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে এবং পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে চলমান বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলনের প্রতি সিপিবির পক্ষ থেকে সংহতি জানানো হয়।

বিবৃতিতে সিপিবির নেতারা বলেন, জর্জ ফ্লয়েডের নির্মম হত্যাকাণ্ড মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শাসক চক্রের বর্ণবাদী মতবাদকে আবারও নগ্নভাবে উন্মোচিত করেছে। এটা স্পষ্ট যে, কৃষ্ণাঙ্গ মার্কিন নাগরিকদের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে রুটিন সহিংসতা অব্যাহত রয়েছে। সিপিবি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করে যে,  মিনেপোলিসের বিদ্রোহ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বিদ্যমান বর্ণবাদ ও সহিংসতার প্রাতিষ্ঠানিক পদ্ধতির অনিবার্য পরিণতি। এই প্রাতিষ্ঠানিক পদ্ধতি পুলিশের দ্বারা প্রকাশ্যে এ ধরনের জঘন্য হত্যাকাণ্ডকে কার্যত প্রশ্রয় দেয়। মার্কিন শাসকশ্রেণির বর্ণবাদী ও নব্য-ফ্যাসিবাদী শক্তির এই কুৎসিত চেহারা মার্কিন পুঁজিবাদের দেউলিয়াত্বকে উন্মোচন করে দিয়েছে।

বিবৃতিতে নেতারা আরও বলেন, কোভিড ১৯-এর মহামারি যেমন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পুঁজিবাদী স্বাস্থ্যব্যবস্থার ব্যর্থতা প্রকাশ করেছে এবং তেমনিভাবে কৃষ্ণাঙ্গ মার্কিন নাগরিকের হত্যাকাণ্ড মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে পুঁজিবাদী শাসন ও তথাকথিত মানবাধিকারের ভয়াবহ চিত্রও উন্মোচিত করেছে। আমেরিকার সাধারণ মানুষ জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ডের বিরুদ্ধে এবং বর্তমান মার্কিন সরকারের সন্ত্রাসবাদী গণবিরোধী নীতির বিরুদ্ধে পুরো দেশটিতে যথাযথভাবে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ সংগঠিত করছে। শুধু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে নয়, বিশ্বজুড়েই প্রতিবাদ-বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।

সিপিবির নেতারা এই হত্যাকাণ্ডের যথাযথ তদন্ত ও বিচারের দাবি এবং প্রয়াত জর্জ ফ্লয়েডের পরিবার ও বন্ধুবান্ধবদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৭ ঘণ্টা, জুন ০৪, ২০২০
এসকে/এইচএডি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-06-04 20:07:04